বিদেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

পথে পাওয়া কুকুরের মেটারনিটি ফটোশুট, সেলিব্রিটির মতোই সে ধরা দিল বেবি বাম্প নিয়ে

পথে পাওয়া কুকুরের মেটারনিটি ফটোশুট, সেলিব্রিটির মতোই সে ধরা দিল বেবি বাম্প নিয়ে

সেলিব্রিটিদের মতোই বেবি বাম্প নিয়ে, গোলাপি চাদরে আর সাদা ফুলের টায়রায় সেজে সবার নজর কেড়ে নিল সে

  • Share this:

#হিউস্টন: জীবে প্রেম করেন যে জন, তাঁর নামটি কী? তিনি হিউস্টন শহরের বাসিন্দা কেটি এভারস। পেশায় এই শিক্ষিকা সম্প্রতি রাস্তায় আবিষ্কার করেছিলেন এক গর্ভবতী গোল্ডেন রিট্রিভারকে। দেরি না করে সঙ্গে সঙ্গে তাকে নিজের বাড়িতে নিয়ে আসেন কেটি। মেট্রো সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে কারণটিও বলতে দ্বিধাবোধ করেননি শিক্ষিকা। তাঁর সাফ জবাব- মানুষ হোক বা পশু- অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় পথে পড়ে থাকা কারও পক্ষেই বাঞ্ছনীয় নয়। তা ছাড়া, জন্মের পরে সন্তানগুলো বাঁচবে কি না, সে আশঙ্কাও তো রয়েছে!

খবর বলছে যে দিন কয়েক আগে হিউস্টনের পথ থেতে লিলি মাই নামের ওই গর্ভবতী গোল্ডেন রিট্রিভারকে উদ্ধার করেন কেটি। তার পরেই তাঁর মাথায় খেলে যায় এক অভিনব চিন্তা। ফটোগ্রাফার বন্ধু শনা কেইলি আর তিনি ঠিক করে ফেলেন যে লিলি মাইয়ের একটা মেটারনিটি ফটোশ্যুট করাতে হবে!

মেটারনিটি ফটোশ্যুট হল অন্তঃসত্ত্বা দশার নানা মুহূর্তের উদযাপন। সেলিব্রিটি তো বটেই, হালফিলে সাধারণ মানুষের মধ্যেও এই ফটোশ্যুটের জনপ্রিয়তা বেশ বৃদ্ধি পেয়েছে। সে রকম ফটোশ্যুটেই এ বার কেইটির সঙ্গে দেখা দিল লিলি মাই। একেবারে সেলিব্রিটিদের মতোই বেবি বাম্প নিয়ে, গোলাপি চাদরে আর সাদা ফুলের টায়রায় সেজে সবার নজর কেড়ে নিল সে!

লিলি মাইয়ের এই ফটোশ্যুটের একটি মুহূর্তে কেটির হাতে সোনোগ্রাফের ছবিও দেখা যাচ্ছে। যদিও সেটা নকল বলেই দাবি করেছেন কেটি। তাঁর বক্তব্য- এত কিছু করার উদ্দেশ্য একটাই, যাতে মানুষ অন্তঃসত্ত্বা পশুর যত্নে একটু মনোযোগী হয়!

খবর বলছে যে এই ফটোশ্যুটের পরে লিলি মাই ৮টি সন্তানের জন্ম দিয়েছে। একটু সুস্থ হলে নানা পরিবারে সে আর তার ছানারা ঠাঁই পাবে।

প্রসঙ্গত, এটাই প্রথম নয়, এর আগেও ১৯৫টি পথের কুকুরকে উদ্ধার করে তাদের পুনর্বাসনের বন্দোবস্ত করে দিয়েছেন কেটি। পরিসংখ্যান বলছে যে হিউস্টনে পথের কুকুরদের অবস্থা খুব একটা ভালে নয়। হিউস্টনের ২.৩ মিলিয়ন অধিবাসীর সঙ্গেই পথে দিন কাটায় ১ মিলিয়ন কুকুর। সেই জন্য সম্প্রতি অনেকগুলো কুকুরকে মিনেসোটায় স্থানান্তরিতও করা হয়েছে।

Published by: Ananya Chakraborty
First published: December 22, 2020, 4:46 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर