হাফিজ সইদের জঙ্গি গোষ্ঠীকে অবশেষে নিষিদ্ধ করল পাকিস্তান

হাফিজ সইদের জঙ্গি গোষ্ঠীকে অবশেষে নিষিদ্ধ করল পাকিস্তান
জঙ্গিনেতা হাফিজ সইদ

হাফিজ সইদের সংগঠন পাকিস্তানে অত্যন্ত সক্রিয়৷ পাকিস্তানের ৩০০টি সেমিনারি, স্কুল, হাসপাতাল, প্রকাশক সংস্থা ও অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস রয়েছে জামাত নেটওয়ার্কের৷

  • Share this:

#ইসলামাবাদ: অবশেষে চাপের মুখে বোধদয় পাকিস্তানের৷ মুম্বই হামলার মাস্টারমাইন্ড হাফিজ সইদ ও তার সংগঠন জামাত উদ দাওয়াকে নিষিদ্ধ করল পাকিস্তান সরকার৷ নিষিদ্ধ করা হয়েছে জামাতের শাখা সংগঠন ফালহা ই ইনসানিয়াত ফাউন্ডেশন-কেও৷ পাক বিদেশ মন্ত্রক সূত্রে জানা গিয়েছে, পাকিস্তান অ্যান্টি টেররিজম অ্যাক্ট ১৯৯৭-এর আওতায় নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে হাফিজের জঙ্গি গোষ্ঠীকে৷

পাকিস্তানের ন্যাশনাল কাউন্টার টেররিজম অথরিটি জানিয়েছে, ৭০টি নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠনের তালিকায় ঢোকানো হয়েছে জামাত ও ফালহা ই ইনসানিয়াতকে৷ একটি বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, 'এই তালিকাটি ৫ মার্চ আপডেট করা হয়েছে৷ বিদেশমন্ত্রকের তথ্যের ভিত্তিতে৷'

হাফিজ সইদের সংগঠন পাকিস্তানে অত্যন্ত সক্রিয়৷ পাকিস্তানের ৩০০টি সেমিনারি, স্কুল, হাসপাতাল, প্রকাশক সংস্থা ও অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস রয়েছে জামাত নেটওয়ার্কের৷ জামাত ও ফালহা ই ইনসানিয়াতের মোট ৫০ হাজার স্বেচ্ছাসেবক ও কয়েক হাজার বেতনভূক কর্মী রয়েছে৷ রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদে কালো তালিকায় রয়েছে হাফিজ সইদ৷ ২০১৭ সালের নভেম্বরে গৃহবন্দি অবস্থা থেকে তাকে মুক্ত করে পাক সরকার৷

পুলওয়ামা হামলার পর ইতিমধ্যেই জঙ্গি দমন নিয়ে বিশ্বে কার্যত কোণঠাসা জঙ্গি হামলায় রাষ্ট্রসংঘকে পাশে পেল ভারত৷ হামলার নিন্দায় সরব রাষ্ট্রসংঘ৷ জঙ্গি মাসুদ আজহারকে আন্তজার্তিক জঙ্গির তকমা দিল রাষ্ট্রসঙ্ঘ ৷ রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদে এই প্রস্তাব মঞ্জুর হয়৷ রাষ্ট্রসংঘের এই প্রস্তাবের পাশে রয়েছে পাকিস্তানের বন্ধু রাষ্ট্র হিসেবে পরিচিত চিনও ৷ পুলওয়ামা হামলার তীব্র নিন্দাও করা হয়েছে চিনের তরফ থেকে৷

আরও ভিডিও: পুলওয়ামা হামলার সময় কোথায় ছিলেন প্রধানমন্ত্রী? এনিয়ে বিস্ফোরক অভিযোগ তুলেছে কংগ্রেস

First published: March 6, 2019, 10:48 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर