• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • খিদের বিরুদ্ধে লড়াই পেল স্বীকৃতি, বিশ্ব খাদ্য প্রকল্পকে নোবেল শান্তি পুরস্কার

খিদের বিরুদ্ধে লড়াই পেল স্বীকৃতি, বিশ্ব খাদ্য প্রকল্পকে নোবেল শান্তি পুরস্কার

যুদ্ধবিধ্বস্ত ইয়েমেন থেকে উত্তর কোরিয়া- গোটা বিশ্বের অগণিত মানুষের দুবেলা দুমুঠো খাবারের সমাধান করে রাষ্ট্রসঙ্ঘের এই প্রকল্প ভূষিত নোবেল শান্তি পুরস্কারে

যুদ্ধবিধ্বস্ত ইয়েমেন থেকে উত্তর কোরিয়া- গোটা বিশ্বের অগণিত মানুষের দুবেলা দুমুঠো খাবারের সমাধান করে রাষ্ট্রসঙ্ঘের এই প্রকল্প ভূষিত নোবেল শান্তি পুরস্কারে

যুদ্ধবিধ্বস্ত ইয়েমেন থেকে উত্তর কোরিয়া- গোটা বিশ্বের অগণিত মানুষের দুবেলা দুমুঠো খাবারের সমাধান করে রাষ্ট্রসঙ্ঘের এই প্রকল্প ভূষিত নোবেল শান্তি পুরস্কারে

  • Share this:

    #অসলো: পাপী পেটই পৃথিবীর সমস্ত যুদ্ধের কারণ ৷ সেই কারণ ধ্বংসের লক্ষেই কাজ করে সম্মানিত বিশ্ব খাদ্য প্রকল্প (World Food Programme) ৷ যুদ্ধবিধ্বস্ত ইয়েমেন থেকে উত্তর কোরিয়া- গোটা বিশ্বের অগণিত মানুষের দুবেলা দুমুঠো খাবারের সমাধান করে রাষ্ট্রসঙ্ঘের এই প্রকল্প ভূষিত নোবেল শান্তি পুরস্কারে  ৷

    গত কয়েকদিন ধরেই একের পর এক বিভাগে নোবেল পুরস্কার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা চলছে শুক্রবার অসলো শহরে নোবেল শান্তি পুরস্কার বিজয়ীর নাম ঘোষণা করেন নরওয়ের নোবেল কমিটির চেয়ারওম্যান বেরিট রিস-অ্যান্ডারসেন। তিনি বলেন, ‘যুদ্ধ ও সংঘাতের অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে খিদেকে ৷ ক্ষুধা নিবৃত্তি ঘটিয়ে শান্তি প্রতিষ্ঠার কাজে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছে বিশ্ব খাদ্য প্রকল্প ৷ কোটি কোটি অভুক্ত মানুষের মুখে খাবার যুগিয়েছে প্রকল্প ৷’

    ক্ষুধার্তের মুখে খাদ্যতুলে দিতে রাষ্ট্রপুঞ্জের এই সংস্থায় মুক্তহস্তে অর্থদানের আর্জিও এ দিন জানিয়েছেন রিস-অ্যান্ডারসন। চেয়ারওম্যান এদিন বলেন, গোটা বিশ্বে অভুক্ত থেকে খালি পেটে দিন গুজরান করছেন কোটি কোটি মানুষ ৷ সে দিকে আরও বেশি করে নজর ঘোরাতে এবং গোটা বিশ্বের সামনে সমস্যাটি উপস্থাপন করতে এ বছর বিশ্ব খাদ্য প্রকল্পের কৃতিত্বকে সম্মানিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নোবেল কমিটি ৷

    হিসেব বলছে, শুধু ২০১৯ সালেই ৮৮টি দেশের ৯.৭ কোটি মানুষকে ১৫০ কোটি রেশন যুগিয়েছে রাষ্ট্রপুঞ্জের এই প্রকল্প ৷ ১৯৬১ সাল থেকে কাজ করে আসা এই প্রকল্প নিয়ে রাষ্ট্রপুঞ্জের আশা এবং লক্ষ্য ২০৩০ সালের মধ্যে বিশ্ব থেকে ক্ষুধাদূরীকরণ ৷

    উল্লেখ্য ৷ হোয়াইট হাউসের তরফে জানানো হয়েছে, ২০২১ সালের নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য ট্রাম্পের নাম মনোনীত করা হয়েছে। ইজরায়েলের সঙ্গে সংযুক্ত আরব আমিরশাহি ও বাহরিনের সম্পর্ক স্বাভাবিক করায় মধ্যস্থতার জন্যই বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্টের নাম প্রস্তাব করা হয়েছে।

    Published by:Elina Datta
    First published: