নিজেকে পরিষ্কার করতে উলঙ্গ অবস্থায় রাস্তায় দৌড়লেন ব্যক্তি, তার পর...

নিজেকে পরিষ্কার করতে উলঙ্গ অবস্থায় রাস্তায় দৌড়লেন ব্যক্তি, তার পর...
পুলিশ জানিয়েছে, এমন ঘটনার জন্য তাঁকে গ্রেফতার করা হবে

পুলিশ জানিয়েছে, এমন ঘটনার জন্য তাঁকে গ্রেফতার করা হবে

  • Share this:

#লন্ডন: করোনার জেরে ২০২০-র শুরু থেকেই একাধিক বিষয়ে পরিবর্তন এসেছে। পরিবর্তন হয়েছে আমাদের লাইফস্টাইলে। বাড়িতে থাকার অভ্যেস বেড়েছে। অনেকের খাওয়া-দাওয়ার অভ্যেসেও পরিবর্তন এসেছে। অনেকের আবার পালটেছে রোজকার রুটিন। এই প্যানডেমিক শিখিয়েছে একা থাকতে, আবার এই প্যানডেমিকই শিখিয়েছে একে অপরের প্রয়োজনে পাশে দাঁড়াতে। প্যানডেমিক বাড়িয়েছে ধৈর্য্য। লকডাউন শিথিল হলে তাই ধীরে ধীরে সেই অভ্যেসের সঙ্গেই তাল মিলিয়ে পুরনো অভ্যেসকে সঙ্গী করে মানুষ স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছে।

বিশ্বের সব জায়গায় ধীরে ধীরে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেও ইউনাইটেড কিংডমের ব্যাপারটা বর্তমানে একেবারেই তেমন নয়। উলটে লকডাউনের পথে হেঁটেছে তারা। নতুন করোনা স্ট্রেইনের সংক্রমণ আটকাতে আপাতত মার্চ মাস পর্যন্ত লকডাউন চলবে বলে ঘোষণা করেছেন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন (Boris Johnson)। তার পর স্কুল খোলা যেতে পারে বলে জানিয়েছেন তিনি।

এই পরিস্থিতিতে অত্যাবশ্যকীয় পণ্য কিনতে বেরোনো ছাড়া সে ভাবে বাড়ি থেকে বেরনোর অনুমতি নেই। তবে, প্রাতঃভ্রমণ বা পোষ্যকে নিয়ে আশপাশে বেরোনোর অনুমতি দিয়েছে সেখানকার প্রশাসন। তাই একদম নিজেকে তালা বন্ধ না করে অনেকেই লন্ডন-সহ ব্রিটেনের একাধিক জায়গায় নিজের এলাকাটুকুতে বের হচ্ছেন। কিন্তু তারা হয় তো জানতেন না লকডাউনে এমন জিনিস দেখতে হবে, যা মনে থাকবে সারাজীবন।


কী সেই জিনিস? লকডাউনে বিকেলে এমনিই রাস্তায় হাঁটছিলেন কয়েকজন। তাঁরা হঠাৎ দেখেন, এক ব্যক্তি উলঙ্গ অবস্থায় প্রায় দৌড়চ্ছেন, তাঁর গায়ে পোশাকে চিহ্ন মাত্র নেই। হঠাৎ এমন দৃশ্য চোখে পড়ায় হকচকিয়ে যান সকলে। তাঁদের মধ্যে একজন ওই ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসা করার চেষ্টাও করেন, সবার সামনে রাস্তায় এভাবে তিনি দৌড়চ্ছেন কেন! প্রত্যক্ষদর্শীদের একাংশ বলেন, উত্তরে না কি ওই ব্যক্তি জানান, তিনি হাঁটতে হাঁটতে নিজেকে একটু পরিষ্কার করে নিয়ে চেয়েছেন। তাই এভাবে হাঁটছেন।

মাই লন্ডন-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ২২ বছর বয়সী ক্যাথেরিন, যিনি ওই এলাকায় ছিলেন, জানান, ব্লুমসবেরি স্কোয়্যার গার্ডেনের দিকে দৌঁড়ে যাচ্ছিলেন ওই ব্যক্তি। ব্রিটিশ মিউজিয়ামের আশপাশে অনেকে ছিলেন, যাঁরা অবাক হয়ে যান ওঁকে দেখে। আমরা দেখলাম তিনি গার্ডেনে ঢুকে পিছন দিকে হাঁটা শুরু করলেন।

এই ঘটনায় বিরক্ত অনেকেই হয়তো পুলিশকে ফোন করেন এবং পুলিশ ঘটনাস্থানে এসে পৌঁছয়। যদিও ততক্ষণে ওই ব্যক্তি এলাকা ছেড়ে বেরিয়ে গিয়েছেন এবং তাঁর খোঁজ পাওয়া যায়নি। পুলিশ জানিয়েছে, এমন ঘটনার জন্য তাঁকে গ্রেফতার করা হবে।

পুলিশের তরফে ব্যক্তির খোঁজ চালানো হচ্ছে। এক পুলিশ আধিকারিক বলেন, ঘটনাটি বিকেল ৪টে নাগাদ ঘটে গ্রেট রাসেল স্ট্রিটে, যখন সবাই হাঁটতে বের হয়। আমরা এলাকায় প্রচুর খুঁজেছি কিন্তু তাঁর খোঁজ পাওয়া যায়নি। তবে, খোঁজ এখনও চলছে।

Published by:Ananya Chakraborty
First published: