নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য মনোনয়ন ট্রাম্পের জামাইয়ের

নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য মনোনয়ন ট্রাম্পের জামাইয়ের
Photo-File

ইজরায়েলের সঙ্গে শান্তি চুক্তির জন্য এই মনোনয়ন৷

  • Share this:

    #ওয়াশিংটন ডিসি: প্রাক্তন হোয়াইট হাউসের সিনিয়র উপদেষ্টা জ্যারেড কুশনার ও তাঁর ডেপুটি আভি বেরিকোউইৎজ  রবিবার নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য মনোনয়ন পেয়েছেন৷ তাঁরা চারটি পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার ডিল করিয়েছেন ইজরায়েল ও আরব দেশগুলির মধ্যে৷ যা "Abraham Accords"নামে পরিচিত৷

    সেই সময়ের ডোনাল্ড ট্রাম্প ও আমেরিকার অ্যাটর্নি অ্যালান ডেরশোয়িৎজ এই জুটির মনোনয়ন করেছিলেন৷ অ্যালান হাভার্ড ল স্কুলের অধ্যাপক ছিলেন৷

    কুশনের ট্রাম্পের জামাই আর বেরিকোউইৎজ মিডল ইস্ট এনভয় ইজরায়েলের সঙ্গে সংযুক্ত আরব আমিরশাহি, বাহরিন, সুদান ও মরক্কোর মধ্যে শান্তি চুক্তির জন্য তৎপরতা দেখিয়েছিলেন৷


    ২৫ বছর ধরে ইরানকে নিয়ে মধ্যপ্রাচ্যে যে অস্থিরতার পরিস্থিতি ছিল অগাস্ট থেকে ডিসেম্বর এই চারমাসের মধ্যে তৈরি হওয়া সমঝোতা চুক্তিতে তার অবসান হয়৷

    কুশনের একটি বিবৃতিতে বলেছেন তিনি এই পুরস্কারের জন্য মনোনীত হওয়ায় দারুণ গর্বিত বোধ করছেন৷ এই পুরস্কার দেওয়া হবে অক্টোবরে৷ প্রেসেডেন্ট জো বাইডেনের প্রশাসন ক্ষমতায় আসার পর তারা নিরাপত্তা সংক্রান্ত সব চুক্তি খতিয়ে দেখছে যা ট্রাম্প ক্ষমতায় থাকাকালীন হয়েছিল৷ তারমধ্যে রয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরশাহি ও সৌদি আরবের মধ্যে হওয়া চুক্তিগুলিও৷

    আইনের নীতি নির্দেশকদের একটা অংশের থেকে এই সময়ের চুক্তিগুলি নিয়ে অভিযোগ উঠেছে৷ মরক্কো ডিল নিয়ে উঠছে প্রশ্ন৷ কারণ এই চুক্তির মানে পশ্চিম সাহারা এলাকায় মরক্কোর সার্বভৌমত্ব মেনে নেওয়া৷

    ২০ জানুয়ারি প্রচুর বিতর্কিত পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে ট্রাম্প নিজের অফিস ছাড়েন৷ তাঁর এই ব্যবহারের ওপর এই প্রশ্ন উঠেছিল আদৌ তাঁর জামাই ওতাঁর সঙ্গী আদৌ নোবেল শান্তি পুরস্কার পাবেন কিনা?

    Published by:Debalina Datta
    First published: