মিশরে শুরু হয়েছে সাপ দিয়ে স্পা! তৈলাক্ত শরীরে পিছলে যাবে আরাম!

মিশরে শুরু হয়েছে সাপ দিয়ে স্পা! তৈলাক্ত শরীরে পিছলে যাবে আরাম!

দেখা যাচ্ছে যে কায়রো শহরের এক স্পা-তে জ্যান্ত সাপ দিয়ে মাসাজ করা হচ্ছে। পদ্ধতি অনুসারে, প্রথমে সারা শরীরে তেল বা যেখানে মাসাজ করা হবে সেখানে তেল লাগানো হয়। আর তার পরেই শরীরে উপরে একটি সাপ ছেড়ে দেওয়া হয়। যে এঁকেবেঁকে ঘুরে বেড়াবে পিঠ থেকে মুখের উপরে।

দেখা যাচ্ছে যে কায়রো শহরের এক স্পা-তে জ্যান্ত সাপ দিয়ে মাসাজ করা হচ্ছে। পদ্ধতি অনুসারে, প্রথমে সারা শরীরে তেল বা যেখানে মাসাজ করা হবে সেখানে তেল লাগানো হয়। আর তার পরেই শরীরে উপরে একটি সাপ ছেড়ে দেওয়া হয়। যে এঁকেবেঁকে ঘুরে বেড়াবে পিঠ থেকে মুখের উপরে।

  • Share this:

#কায়রো: বাপ রে বাপ! না কি বাপ রে সাপ! কোনটা বলবেন বুঝতে পারা যাচ্ছে না তো? অনেকেই এই সংবাদ দেখে প্রায় বাক্যহারা হয়ে গিয়েছেন। চোখের সামনে ফণা তুলে দাঁড়িয়ে আছে গোখরো বা কেউটে, এই দৃশ্য কল্পনা করেই অনেকের দাঁতে দাঁত লেগে যায়। আর সেখানে পাইথন-সহ ২৮ রকমের সাপ দিয়ে স্পা-তে মাসাজ শুরু করল মিশরের একটি সালোঁ। শরীরে উপর দিয়ে কিলবিল করে সাপ ঘুরে বেড়াবে, আর তাতেই না কি পেশির আরাম হবে!

রয়টার্স সংস্থার একটি ভিডিও থেকেই এই খবর ছড়িয়ে পড়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে যে কায়রো শহরের এক স্পা-তে জ্যান্ত সাপ দিয়ে মাসাজ করা হচ্ছে। পদ্ধতি অনুসারে, প্রথমে সারা শরীরে তেল বা যেখানে মাসাজ করা হবে সেখানে তেল লাগানো হয়। আর তার পরেই শরীরে উপরে একটি সাপ ছেড়ে দেওয়া হয়। যে এঁকেবেঁকে ঘুরে বেড়াবে পিঠ থেকে মুখের উপরে। অবশ্য সাপ বাবাজিকে নির্দেশ দেওয়ার জন্য স্পায়ের একজন কর্মী উপস্থিত থাকবেন। তিনিই নিয়ন্ত্রণ করবেন সাপের চলাফেরা, দরকার মতো এক বা একাধিক সাপ ছেড়ে দেবেন ক্লায়েন্টের শরীরে!

শুনতে অবাক লাগলেও ক্লায়েন্টের ভিড় কিন্তু হচ্ছে সেখানে। এই স্পা-তে গিয়ে মাসাজ করিয়ে এসেছেন ডিয়া জেইন বলে একজন ব্যক্তি। আর তিনি বলেছেন যে প্রথম প্রথম বেশ ভয় লাগলেও পরে তাঁর দারুণ আরাম লাগছিল। মাসাজের শেষে তিনি রিল্যাক্সও অনুভব করেছেন। কিন্তু সবাই যে তাঁর মতো সাহসী হবেন, তেমনটা তো আর! সে ওই স্পা যতই নির্বিষ সাপ ব্যবহার করুক না কেন!

তাই ডিয়ার এই সর্প মাসাজের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়তেই নিন্দার ঝড় ওঠে টুইটারে (Twitter)। কেউ কেউ সাহস দেখিয়ে এটাকে দারুণ ব্যাপার বললেও, বেশিরভাগ নেটিজেনই বলেছেন এমন ধারার আরামের তাঁদের প্রয়োজন নেই!

অন্য দিকে, রয়টার্সের আপলোড করা ভিডিও বলছে যে যাঁদের হৃদয় দুর্বল, তাঁদের জন্য এই মাসাজ নয়। হক কথা। আর তাই তো নেটিজেনরা পদ্ধতিটাকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানালেও বলতে ভুলছেন না যে হাত দিয়েই মাসাজ করানোর সাবেকি ধরন তাঁরা ভালোবাসেন!

তবে ব্য়তিক্রমী লোকের তো অভাব নেই এই জগতে।এই যেমন এক নেটিজেন এই সাপ দিয়ে মাসাজের ভিডিও দেখার পর তাঁর ছোটবেলায় ফিরে গেছেন। কোমরের ব্যথার জন্য না কি পাইথন ব্যবহার করতে দেখেছেন তিনি। সে কথা সবাইকে খোলাখুলি জানিয়ে তাঁর দাবি- ব্যাপারটা এমন কিছু অভিনব নয়!

তবে, স্পা-তে এ ভাবে সাপের ব্যবহার দৃষ্টি এড়ায়নি পশুপ্রেমীদেরও। এমনিতেই মানবজাতির ধ্বংসাত্মক লীলায় পৃথিবী থেকে অর্ধেক প্রজাতির সাপ বিলুপ্ত হয়ে গিয়েছে। তার উপরে এই ভাবে পশুদের উপরে অত্যাচার চালানো মেনে নেওয়া যায় না বলেও প্রতিবাদ করেছেন অনেকে!

Published by:Pooja Basu
First published:

লেটেস্ট খবর