বাবা দেশের ‘প্রেসিডেন্ট’, অথচ তার জন্যই অস্বস্তিতে পড়ল মেয়ে

বাবা দেশের ‘প্রেসিডেন্ট’, অথচ তার জন্যই অস্বস্তিতে পড়ল মেয়ে

বাবা দেশের প্রেসিডেন্ট, অথচ সেই বাবার জন্যই মেয়েকে শুনতে হল অকথা-কুকথা ৷ কথা হচ্ছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ৷ তাঁরই কন্যা ইভাঙ্কা ট্রাম্পকে বাবার জন্য অপমানিত হতে হল মাঝ আকাশে ৷

  • Share this:

#নিউইয়র্ক: বাবা দেশের প্রেসিডেন্ট, অথচ সেই বাবার জন্যই মেয়েকে শুনতে হল অকথা-কুকথা ৷ কথা হচ্ছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ৷ তাঁরই কন্যা ইভাঙ্কা ট্রাম্পকে বাবার জন্য অপমানিত হতে হল মাঝ আকাশে ৷

নিউ ইয়র্কের জন এফ কেনেডি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বিমানে চেপে সপরিবারে ক্রিসমাসের ছুটি কাটাতে যাচ্ছিলেন ইভাঙ্কা ট্রাম্প ৷ গন্তব্য ছিল হাওয়াই দ্বীপপুঞ্জ ৷ কিন্তু তার আগেই ছন্দপতন ৷ স্বামী ও তিন সন্তানকে নিয়ে বিমানে সওয়ার হতেই এক সহযাত্রীর কড়া প্রতিক্রিয়ার মুখে পড়েন ট্রাম্প কন্যা ৷

জেট বুল-এ বিমানের আরেক সওয়ারি ম্যাথিউ লেসনার ইভাঙ্কাকে সামন পেয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রতি ক্ষোভ উগরে দেন ৷ পেশায় নিউইর্য়ক কলেজের অধ্যাপর লেসনার ইভাঙ্কাকে কড়া সুরে বলেন, ‘আপনার বাবা প্রেসিডেন্ট হওয়ার যোগ্য নন ৷ তিনি দেশটাকে নষ্ট করে দিচ্ছেন ৷’ এতেই শেষ নয়, এরপর তিনি বিমানকর্মীদের উদ্দেশ্যে ইভাঙ্কাকে কটাক্ষ করে বলেন, ‘উনি আমাদের মতো সাধারণ মানুষদের সঙ্গে কি করছেন! প্রাইভেট জেট-এ জায়গা পাননি বুঝি ৷’

প্রেসিডেন্ট কন্যার সঙ্গে এরকম ব্যবহার করতে দেখে বিমানকর্মীরা ম্যাথিউ লেসনারকে তড়িঘড়ি বিমান থেকে নামিয়ে দেন ৷ বিমানে ইভাঙ্কার সঙ্গে মার্কিন সিক্রেট সার্ভিস এজেন্টরাও উপস্থিত ছিলেন ৷

তবে এই ঘটনায় প্রবল অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন ম্যাথিউ লেসনার ও তাঁর স্ত্রী ৷ তাঁদের বক্তব্য, কোনও অভব্যতা তিনি করেননি ৷ শুধু নিজের মতামত জানিয়েছিলেন মাত্র ৷ তাতে কেনও তাঁকে বিমান থেকে নামিয়ে দেওয়া হল! অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন বিমানের বাকি যাত্রীরাও ৷ তাদের বক্তব্য, লেসনার ক্রুদ্ধ হলেও ট্রাম্প কন্যা ইভাঙ্কার সঙ্গে কোনও অভব্যতা করেননি ৷ শুধু নিজের মনোভাব ব্যক্ত করেছিলেন ৷ তাতে লেসনারকে বিমান থেকে নামিয়ে দেওয়ার মোত কোনও ঘটনা ঘটেনি ৷

তবে বিমান কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়, লেসনারের জন্য তারা অন্য বিমানের ব্যবস্থা করে দিয়েছিলেন ৷ কিন্তু তাতেও মিটছে না বিতর্ক ৷

প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফলাফল বেরোনোর পর একমাসেরও বেশি সময় কেটে গিয়েছে ৷ মার্কিন প্রেসিডেন্ট পদে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে এখনও অনেক মার্কিন নাগরিক মেনে নিতে পারেননি ৷ তারই প্রমাণ দেখা গেল আরও একবার ৷

First published: 03:26:08 PM Dec 23, 2016
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर