• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • মার্সিডিজে পাখির বাসা, গাড়ি চড়াই বন্ধ করে দিলেন দুবাইয়ের রাজকুমার

মার্সিডিজে পাখির বাসা, গাড়ি চড়াই বন্ধ করে দিলেন দুবাইয়ের রাজকুমার

পাখির বাসা বাঁচাতে গাড়ি ঘিরে ফেলার নির্দেশ দেন দুবাইয়ের রাজকুমার৷ PHOTO-INSTAGRAM/Faz3

পাখির বাসা বাঁচাতে গাড়ি ঘিরে ফেলার নির্দেশ দেন দুবাইয়ের রাজকুমার৷ PHOTO-INSTAGRAM/Faz3

খোদ রাজকুমারের নির্দেশের অমান্য করে এমন সাধ্যি কার! ফলে নিশ্চিন্তে দামি মার্সিডিজের বনেটেই ডিম পেড়েছিল মা পাখিটি৷ পরম যত্নে ডিমে তা দিয়েছে সে৷

  • Share this:

    #দুবাই: গাড়ির বনেটে বাসা বেঁধেছে দু'টি পাখি৷ তাও যে সে গাড়ি নয়, সংসার পাতার জন্য একেবারে দুবাইয়ের রাজপুত্র শেখ হামদান বিন মহম্মদ বিন রশিদ আল মাকতৌমের বহুমূল্য মার্সিডিজ বেঞ্জের বনেটকেই বেছে নিয়েছিল ঘুঘু দম্পতি৷ হয়তো তাদের কাছেও খবর ছিল, পরিবেশপ্রেমী দুবাইয়ের রাজকুমার সহজে তাদের সেখান থেকে উৎখাত করবেন না!

    শুনতে মজা লাগলেও বাস্তবে সত্যিই এমনটা করেছেন দুবাইয়ের ক্রাউন প্রিন্স৷ নিজের দামি মার্সিডিজের উপরে পাখির বাসা দেখে বেশ কিছুদিনের জন্য ওই গাড়িতে চড়াই বন্ধ করে দেন তিনি৷ শুধু তাই নয়, গাড়িটি সাদা এবং লাল টেপ দিয়ে ঘিরে ফেলার নির্দেশ দেন তিনি৷ এমনকী, নিজের কর্মচারীদের গাড়িটির আশপাশে যেতেও নিষেধ করেন, পাছে পাখিগুলি বিরক্ত হয়!

    খোদ রাজকুমারের নির্দেশের অমান্য করে এমন সাধ্যি কার! ফলে নিশ্চিন্তে দামি মার্সিডিজের বনেটেই ডিম পেড়েছিল মা পাখিটি৷ পরম যত্নে ডিমে তা দিয়েছে সে৷ সম্প্রতি ডিম ফুটে বেরিয়ে এসেছে পাখির বাচ্চা৷ এর প্রতিটি মুহূর্তই দূর থেকে বসানো ক্যামেরায় রেকর্ড করিয়েছেন দুবাইয়ের রাজকুমার৷ বুধবার সেই ভিডিও ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করেছেন তিনি৷ সঙ্গে লিখেছেন, 'এক এক সময় জীবনের ছোট্ট ছোট্ট জিনিসগুলি প্রত্যাশাকেও ছাপিয়ে যায়!'

    View this post on Instagram

    A post shared by Fazza (@faz3) on

    বলার অপেক্ষা রাখে না, এমন সুন্দর ভিডিও আর দুবাইয়ের রাজকুমারের মানবিক আচরণে রীতিমতো মুগ্ধ নেটিজেনরা৷ ভিডিওটি শেয়ার করার একদিনের মধ্যে সেটির ভিউ ১৫ লক্ষ ছাড়িয়েছে৷ ইনস্টাগ্রামে Fazza নামে জনপ্রিয় দুবাইয়ের রাজকুমার৷ তার প্রায় ১ কোটি ফলোয়ারও রয়েছে৷ এমনিতেই পরিবেশপ্রেমী হিসেবে খুবই জনপ্রিয় তিনি৷ এই ভিডিও দেখার পর দুবাইয়ের ক্রাউন প্রিন্সকে প্রশংসায় ভরিয়ে দিয়েছেন তাঁর ফলোয়ার থেকে শুরু করে অন্যান্য সবাই৷ একজন মজা করে লিখেছেন, 'পাখিটি সত্যিই ভাগ্যবান৷'

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: