Bangladesh Shutdown| সোমবার থেকে বাংলাদেশে শুরু শাটডাউন, বন্ধ সব অফিস, যান চলাচলও!

বাংলাদেশে এবার জারি হচ্ছে কঠোরতম লকডাউন।

প্রশাসন সূত্রে খবর, প্রথম দফায় সাতদিন এই শাটডাউন (Bangladesh Shutdown) চালিয়ে দেখতে চাইছে সরকার। পরিস্থিতি নাগালে না এলে আরও বাড়তে পারে এই শাটডাউনের মেয়াদ।

  • Share this:

    #ঢাকা: লকডাউন জারি করেও সংক্রমণে লাগাম টানা যায়নি। এবার আগামী সোমবার থেকে বাংলাদেশ কঠোরতম লকডাউন (Bangladesh Shutdown) তথা শাটডাউন জারি হচ্ছে। প্রশাসন সূত্রে খবর, সোমবার থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য বাংলাদেশের সরকারি এবং বেসরকারি সব অফিস বন্ধ থাকবে। এমনকি বন্ধ রাখা হচ্ছে সব ধরনের গাড়ি চলাচল। স্রেফ অ্যাম্বুলেন্স এবং চিকিৎসা সরঞ্জাম সরবরাহ যানবাহন চলবে বলে জানাচ্ছে বাংলাদেশ প্রশাসন। এই সময় জরুরি কারণ স্বাস্থ্যের সমস্যা ছাড়া কেউ বাড়ি থেকে বেরোলে কঠোর শাস্তির মুখেও পড়তে পারেন। তবে চিকিৎসক-স্বাস্থ্যকর্মী ব্যতীত সংবাদমাধ্যমের জন্য ছাড় থাকছে। প্রশাসন সূত্রে খবর, প্রথম দফায় সাতদিন এই শাটডাউন চালিয়ে দেখতে চাইছে সরকার। পরিস্থিতি নাগালে না এলে আরও বাড়তে পারে এই শাটডাউনের মেয়াদ।

    চলতি বছরে করোনার দ্বিতীয় ধাক্কায় কাবু বাংলাদেশে গত ৫ ই এপ্রিল থেকে দ্বিতীয় বারের জন্য লকডাউন জারি হয়েছিল।  এই লকডাউন চলে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত। কিন্তু দেখা যাচ্ছে তাতেও সংক্রমণ কমেনি। বিশেষত শেষ এক মাসের দৈনিক আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যা হুহু করে বাড়ছে। শেষ ইদ-উল-ফিতরের পর আক্রান্ত আরও বাড়ে।

    পরিস্থিতি বিচার করে তাই ২২ শে জুন থেকে ঢাকাকে সারা দেশ থেকে বিচ্ছিন্ন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল সরকার। আশেপাশের মানিকগঞ্জ নারায়ণগঞ্জ, গাজীপুর, মাদারীপুর, রাজবাড়ী ,গোপালগঞ্জ, থেকে জরুরী পরিষেবা ছাড়া মূল শহরে যান চলাচল বন্ধ রাখা হয়। কিন্তু তাতেও কাজ হয়নি বলছে পরিসংখ্যানই। ফলে বাংলাদেশে চাইছে সংক্রমণ রুখতে আরো কঠোর হতে।

    ইতিমধ্যেই জানা গিয়েছে বাংলাদেশের ৬৪ টির মধ্যে ৪০টি জেলাই অতি ঝুঁকিপূর্ণ। শুক্রবারের হিসেব শেষ ২৪ ঘন্টায় ১০৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে ৫ হাজার ৮৬৯ জন। পরিস্থিতি বিচার করেই এবার শাটডাউন জারি করতে চাইছেন বাংলাদেশ প্রশাসন।

    Published by:Arka Deb
    First published: