• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • বাগদাদে জোড়া বিস্ফোরণ আইএস-এর, দু’শোর গণ্ডি ছাড়াল মৃতের সংখ্যা

বাগদাদে জোড়া বিস্ফোরণ আইএস-এর, দু’শোর গণ্ডি ছাড়াল মৃতের সংখ্যা

বাগদাদের জোড়া বিস্ফোরণে দু'শোর গণ্ডি ছাড়াল মৃতের সংখ্যা। যারমধ্যে মহিলা ও শিশুর সংখ্যা প্রচুর।

বাগদাদের জোড়া বিস্ফোরণে দু'শোর গণ্ডি ছাড়াল মৃতের সংখ্যা। যারমধ্যে মহিলা ও শিশুর সংখ্যা প্রচুর।

বাগদাদের জোড়া বিস্ফোরণে দু'শোর গণ্ডি ছাড়াল মৃতের সংখ্যা। যারমধ্যে মহিলা ও শিশুর সংখ্যা প্রচুর।

  • Share this:

     #বাগদাদ: বাগদাদের জোড়া বিস্ফোরণে দু'শোর গণ্ডি ছাড়াল মৃতের সংখ্যা। যারমধ্যে মহিলা ও শিশুর সংখ্যা প্রচুর। বেশিরভাগ দেহই অগ্নিদগ্ধ হওয়ায়, ডিএনএ পরীক্ষা ছাড়া তাদের সনাক্ত করা সম্ভব নয়। বিস্ফোরণে আহতের সংখ্যাও দু'শোর বেশি। এই পরিস্থিতিতে প্রশাসনের উপর ক্রমেই ক্ষোভ বাড়ছে আম জনতার।

    একমাত্র সন্তানের দেহ খুঁজতে ধ্বংসস্তূপ হাতছাড়চ্ছে এক দম্পতি। এক ব্যক্তি খুঁজছেন তাঁর পরিবারের বাকি সদস্যদের দেহ। বিস্ফোরণের দু'দিন পর এমনই ছবি বাগদাদের কারাদায়। শনিবার রাতে ইরাকের রাজধানীর ব্যস্ত এই বাজার এলাকাকেই টার্গেট করেছিল ইসলামিক স্টেট।

    ইদের কেনাকাটার সময় বিস্ফোরক বোঝাই একটি ট্রাক উড়িয়ে দিয়েছিল জঙ্গিরা। ২০০৭-এর পর থেকে যা যুদ্ধবিধ্বস্ত ইরাকের সবচেয়ে ভয়াবহ জঙ্গি নাশকতা বলে দাবি সেদেশের প্রশাসনের।

     হামলার দু'দিন পরও লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। স্থানীয় প্রশাসন সূত্রে খবর, ইতিমধ্যেই দু'শোর বেশি দেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ধ্বংসস্তূপের নীচে আরও অনেকগুলি দেহ রয়েছে বলে আশঙ্কা। আগুনে ঝলসে গিয়েছে বেশিরভাগ দেহই। তাই ডিএনএ পরীক্ষা ছাড়া তাদের সনাক্ত করা সম্ভব নয়।

     বিস্ফোরণের পরপরই ঘটনাস্থলে গিয়ে জনরোষের মুখে পড়েছিল ইরাকি প্রধানমন্ত্রী হায়দার আল-আবাদির কনভয়। এবার রাজধানী শহরের নিরাপত্তাব্যবস্থা নিয়েও প্রশ্ন তুলছেন আম ইরাকিরা। সেই জনরোষের আঁচ পেয়েই শহরজুড়ে নিরাপত্তা আঁটোসাঁটো করার আশ্বাস দিয়েছে সেদেশের ইন্টিরিয়র মিনিস্ট্রি।

    তবে কিছুদিন আগেই আইএসের হাত থেকে ফালুজা পুনর্দখল করেছে ইরাকি সেনা। তা সত্ত্বেও কেন রোখা যাচ্ছে না আইএসকে? কেন বারে বারে জঙ্গিদের হাতে রক্তাক্ত হচ্ছে বাগদাদ? আত্মীয়-পরিজনদের দেহের পাশাপাশি এই প্রশ্নগুলিরও উত্তর খুঁজছেন বহু ইরাকি।

    First published: