• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • Taliban foreign currency : বিদেশি মুদ্রার ব্যবহার নিষিদ্ধ করে চরম আর্থিক সংকটে তালিবান শাসিত আফগানিস্তান

Taliban foreign currency : বিদেশি মুদ্রার ব্যবহার নিষিদ্ধ করে চরম আর্থিক সংকটে তালিবান শাসিত আফগানিস্তান

আফগানিস্তানের বিদেশি মুদ্রা নিষিদ্ধ করল তালিবান

আফগানিস্তানের বিদেশি মুদ্রা নিষিদ্ধ করল তালিবান

Anyone using foreign currency in Afghanistan will be prosecuted by Taliban. সব নাগরিক, দোকানদার, ছোট-বড় ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষকে এখন থেকে সব লেনদেন আফগানি মুদ্রায় করতে এবং বিদেশি মুদ্রা ব্যবহার থেকে বিরত থাকতে নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে

  • Share this:

    #কাবুল: এই তালিবান নাকি নতুন তালিবান। তোরাবোরার গুহা থেকে নয়, এই তালিবান দেশ শাসন করে কাবুল থেকে। সোশ্যাল মিডিয়ায় যাদের একাধিক হ্যান্ডেল রয়েছে। তবে ভেতরে ভেতরে এখনো অত্যাচার নতুন নয়। কয়েকদিন আগেই এক মহিলা বাস্কেটবল খেলোয়াড়কে গলা কেটে খুন করেছে তারা।আফগানিস্তানে ডলারসহ বিদেশি সব মুদ্রার ব্যবহার নিষিদ্ধ করেছে তিন মাস আগে দেশটির নিয়ন্ত্রণ নেওয়া কট্টরপন্থি গোষ্ঠী তালিবান।

    আরও পড়ুন - China vs Taiwan : চিনের ক্রমাগত হুমকির মধ্যেই তাইওয়ান সফরে ইউরোপীয় পার্লামেন্টের সদস্যরা

    এক ঘোষণায় তারা বলেছে, অর্থনৈতিক পরিস্থিতি ও দেশের জাতীয় স্বার্থে সব ধরণের বাণিজ্যে সব আফগান নাগরিকের আফগানি মুদ্রা ব্যবহার করা প্রয়োজন। ইসলামিক আমিরাতের (তালিবান আফগানিস্তানকে এ নামেই ডাকে) সব নাগরিক, দোকানদার, ছোট-বড় ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষকে এখন থেকে সব লেনদেন আফগানি মুদ্রায় করতে এবং বিদেশি মুদ্রা ব্যবহার থেকে বিরত থাকতে নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে। যারা এ নির্দেশ অমান্য করবে তাদেরকে আইনী ব্যবস্থার মুখোমুখি হতে হবে, অনলাইনে পোস্ট করা এক বিবৃতিতে এমনটাই বলেছেন তালিবান মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ।

    তাদের এই পদক্ষেপে এমনিতেই খাদের কিনারায় থাকা দেশটির অর্থনীতি আরও সংকটজনক অবস্থায় পড়বে বলে পর্যবেক্ষকদের আশঙ্কা। অগাস্টে তালিবান আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পরপরই যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক এবং ইউরোপের বিভিন্ন দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক তাদের কাছে থাকা আফগানিস্তানের কোটি কোটি ডলারের সম্পদ জব্দ করে রাখে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তালিবান আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর দেশটির অর্থনীতি সংকটে পড়েছে।

    আফগানিস্তানে নগদ অর্থের গুরুতর সংকট থাকায় বিদেশিরা যে অর্থ-সম্পদ আটকে রেখেছে, তা ছেড়ে দেওয়ার জন্য তালিবান অনুরোধ জানিয়েছে।বিদেশি সাহায্য বন্ধ হয়ে যাওয়ার কারণেও আফগানিস্তান বড় ধরনের সংকটে পড়েছে। এর আগে বিদেশ থেকে আসা অনুদানই দেশটির সরকারি ব্যয়ের তিন-চতুর্থাংশ মেটাত। আফগানিস্তানের বাজারগুলোতে মার্কিন ডলারের চল রয়েছে।

    পাকিস্তানের সঙ্গে থাকা সীমান্তসহ দেশটির বিভিন্ন সীমান্ত এলাকায়ও ব্যবসা-বাণিজ্যের ক্ষেত্রে ডলার ব্যবহৃত হয়ে আসছে। চলতি বছর দেশটির অর্থনীতি ৩০ শতাংশ পর্যন্ত সংকুচিত হতে পারে বলে গত মাসে সতর্ক করেছে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ)। তেমনটা হলে দেশটির লাখ লাখ মানুষ দারিদ্র্যসীমার নিচে চলে যাবে এবং তীব্র মানবিক সংকট সৃষ্টি হবে, বলেছে তারা।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: