Home /News /features /
টেনশনে থাকলে ভাল লিখি : অ্যান্ড্রু শন গ্রিয়ার

টেনশনে থাকলে ভাল লিখি : অ্যান্ড্রু শন গ্রিয়ার

  • Share this:

    #কলকাতা: তিনি এলেন, তিনি জয় করলেন! দশম এপিজে কলকাতা লিটেরারি ফেস্টিভ্যাল-এ তাঁর আলোচনা পর্ব চলাকালীন দর্শকাসনে পিন পড়ার শব্দটুকুও যেন শোনা যেত! মন্ত্রমুগ্ধ হয়ে তাঁর এক-একটা কথা শুনছেন শ্রোতারা ! অ্যান্ড্রু শন গ্রিয়ার, ২০১৮-র পুলিৎজার পুরষ্কার বিজয়ি। 'লেস' উপন্যাসের জন্য পুলিৎজার পেয়েছেন অ্যান্ড্রু।

    আলোচনা শেষে পার্ক স্ট্রিটের অ্যালেন পার্কে 'মেক-শিফট' তাবুতে বসে কফিতে চুমুক দিতে দিতে খোসমেজাজে আড্ডা জুড়লেন তরুণ তুর্কি--

    পুলিৎজার-এর মতো খেতাব কী জীবনটা বদলিয়ে দিল ?

    কোথাও একটা আত্মবিশ্বাস তো অবশ্যই বেড়েছে! তবে, আমি কিন্তু টেনশনে থাকলে বেশি ভাল লিখি!

    'লেস'-এর মতো একটা উপন্যাস লেখা সহজ ছিল ?

    অন্য উপন্যাসগুলো লেখার আগে আমার প্রায় নার্ভাস ব্রেকডাউন হয়ে গিয়েছিল! কিন্তু 'লেস' লিখতে আলাদা কোনও এফোর্ট দিতে হয়নি! খুব সাবলীলভাবেই মনের ভিতর থেকে বেরিয়ে এসেছিল। শুধু একটা জায়গাতেই খানিক আটকেছিলাম! শুরুতে ভাবিনি এটা কমেডি উপন্যাস হিসেবে লিখব। ভেবেছিলাম একজন 'গে'-র জীবনকে কেন্দ্র করে সিরিয়াস গল্প হবে। কিন্তু আচমকাই একদিন মনে হল, মজার মোড়কে লিখলে কেমন হয়? এই ইমোশনটাই আমায় গল্পের আরও কাছে নিয়ে এল। আফটার দ্যাট, ইট ওয়াজ আ হেল অফ আ লট অফ ফান!

    ছোটবেলায় কোন বই পড়তে ভালবাসতেন?

    যে কোনও বই যার শুরুতে ম্যাপ রয়েছে। আমার মনে হত, এই বইটার মধ্যে গোটা পৃথীবিটা আছে আর আমি সেইসব জায়গাগুলোতে ঘুরে বেরাচ্ছি। ইটস আ থ্রিলিং ফিলিং! এখনও এই ভালবাসাটা রয়েছে।

    কোন কোন ধারার লেখা পড়েতে ভালবাসেন না?

    অধিকাংশ লেখকের মতোই আমি পড়ি যাতে আমার লেখা উন্নত হয়! এবং এমন অনেক বিষয়ই আছে যেগুলো আমি পড়তে ভালবাসি, কিন্তু আমার লেখায় কোনও সাহায্য করে না! যেমন গ্র্যাফিক উপন্যাস।

    কাছের মানুষদের উপহার হিসেবে কোন বইটা দিতে ভালবাসেন?

    রেমন্ড শ্যান্ডেলের 'দ্য বিগ স্লিপ' বা ' দ্য লং গুডবাই'!

    First published:

    Tags: Andrew sean greer, EXclusive Interview, Less, Pulitzer prize 2018

    পরবর্তী খবর