‘ক’টা বাপের ব্যাটা আছে, ২৫ বছর ধরে সম্পর্ক টিকিয়ে রাখবে?’ বললেন দীপঙ্কর দে

‘ক’টা বাপের ব্যাটা আছে, ২৫ বছর ধরে সম্পর্ক টিকিয়ে রাখবে?’ বললেন দীপঙ্কর দে
  • Share this:

DEBAPRIYA DUTTA MAJUMDAR

#কলকাতা: ২৫ বছরের সম্পর্ক। প্রথম দেখা রবি ঘোষের সঙ্গে ছদ্দবেশীর কল শো’তে। একজন নবাগতা। অন্যজনের পড়া হয়ে গিয়েছে বহু চরিত্রের মুখোশ। তখন কেউ ভাবেননি সেই দেখার রেশ ২৫ বছর পরেও রয়ে যাবে । সেদিন হয়ত কিছুই মনে হয়নি তাঁদের। তবে মনের মনে হয়ে গিয়েছিল অনেক কিছু। দীপঙ্কর দে-দোলন রায় । বিয়ের পর দোলন রায়ের প্রথম জন্মদিন সেলিব্রেশনের সাক্ষী থাকল নিউজ ১৮ বাংলা। ঠিক কোন তারিখ থেকে সম্পর্ক শুরু হয়েছে তা যে কোনও যুগলের পক্ষেই বলা সম্ভব নয়। দোলন-দীপঙ্করের ক্ষেত্রে তো আরও নয়। সমাজের ভ্রুকুটি, বয়সের তফাৎ এই সব পার করতে সময় লেগেছে অনেক। সম্পর্কের পর প্রথম জন্মদিন পালন করতে দূরে কোথাও গিয়েছিলেন দু’জনে। উপহার হিসেবে দীপঙ্কর দে, দোলন কে দিয়েছিলেন নিজের লেখা কবিতা। দোলনের আজও সেসব কথা স্পষ্ট মনে আছে। সেই উপহার দোলনের কাছে সবচেয়ে প্রিয়। তবে দীপঙ্করের ভাষায় 'সেসব ভদ্রলোকের কবিতা নয়' ৷ 'টালিগঞ্জের স্টাররা যেভাবে সাড়ম্বরে জন্মদিন পালন করেন, দোলনকে আমি কখনোই সেভাবে জন্মদিন পালন করতে দেখিনি । তবে রান্না হয়, আমার পছন্দের রান্নাই হয়। খাওয়াদাওয়া করি চুটিয়ে। এবারও হয়েছে তবে একটু সাবধানে ।' জানালেন দীপঙ্কর দে।

তাঁদের বিয়ের খবর নিউজ ১৮ বাংলায় প্রথম প্রকাশ পাওয়ার পর থেকেই সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে অভিনন্দনের বন্যা বয়ে গিয়েছিল ৷ কিন্তু সঙ্গে নানা কুৎসিত ও কুরুচিকর আক্রমণের মুখেও পড়তে হয়েছে তাঁদের। সে প্রসঙ্গ উঠতেই দীপঙ্কর দে’র সাহসী মন্তব্য 'এঁরা নিকৃষ্ট মনের মানুষ। এঁদের সম্পর্কে বলা মানে নিজেকে ছোট করা। ক’টা বাপের ব্যাটা আছে ২৫ বছর ধরে সম্পর্ক টিকিয়ে রাখবে?  আমরা যা করেছি বেশ করেছি।’

অদ্ভূত লাগে মাঝে মধ্যে একটি বিজ্ঞাপনে দেখি একটি মেয়ে ছুটে এসে অন্য একটি মেয়েকে বলছে, ‘আমি ওকে ডাম্প করেছি। সেই আনন্দে পিৎজা অর্ডার করছে। তাঁকে ছুঁড়ে ফেলে দেওয়ার মধ্যেই নাকি আনন্দ।' দীপঙ্করকে থামিয়ে দোলনের সংযোজন 'আজকালকার দিনে তো ব্রেক আপ পার্টি হয় । সইয়া সে ব্রেক আপ, এটাই ট্রেন্ড।' জন্মদিনের প্রসঙ্গে স্মৃতিচারণ করলেন দোলন । দীপঙ্করকে কোনও এক জন্মদিনে সেতার উপহার দিয়েছিলেন দোলন। যদিও সেই সেতারে আর সুর তোলেন না দীপঙ্কর। জন্মদিনে দোলন রায়ের ঈশ্বরের কাছে একমাত্র প্রার্থনা 'প্রত্যেকটি জন্মদিনেই আমি ওঁকে পাশে পেতে চাই, কিন্তু জানি এটা খুব কঠিন। আমি জানি আপনারা মনে মনে অঙ্ক কষছেন। কিন্তু কঠিন বলেই  তো চাইছি।' দীপঙ্করের কথায় 'আপনারা আমাদের ভালোবাসুন, আশীর্বাদ করুন, আমরা যেন ভালো থাকি।'

First published: March 5, 2020, 11:12 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर