হোম /খবর /বিনোদন /
বিয়ের পর সৃজিতের প্রথম জন্মদিনও একসঙ্গে কাটানো হল না, বিরহী পোস্ট করলেন মিথিলা

বিয়ের পর সৃজিতের প্রথম জন্মদিনও একসঙ্গে কাটানো হল না, বিরহী পোস্ট করলেন মিথিলা

নতুন বর’কে কাছে না পেয়ে বিরহী মিথিলাও । সোশ্যাল মিডিয়াতেই তাই জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানালেন ভালবাসার মানুষকে ।

  • Last Updated :
  • Share this:

#কলকাতা: করোনা ভাইরাসের থাবা, লকডাউনের ভ্রুকুটি , দুই দেশের সীমান্ত...প্রতিকূলতা... পরিস্থিতি যতই নিষ্ঠুর হোক না কেন, ভালবাসার শক্তির কাছে সবই তুচ্ছ... সেটাই আরেকবার প্রমাণ করেছেন বাংলার পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায় ও তাঁর স্ত্রী, বাংলাদেশের অভিনেত্রী, সমাজকর্মী, আধ্যাপিকা রাফিয়াত রশিদ মিথিলা ।

সব বাধা-বিপত্তির ঊর্ধে ভালবাসারই জয় হয়েছে... ভালবাসাই মিলিয়ে দিয়েছে সৃজিত-মিথিলাকে। গত বছর ৬ ডিসেম্বর বিয়ে, কিন্তু তারপর থেকেই যে যাঁর কর্মক্ষেত্রে ফিরে গিয়েছিলেন । এরপর লকডাউন শুরু হয়ে যাওয়ায় দু’দেশে আটকে পড়েছিলেন নবদম্পতি । ১৫ অগাস্ট, ভারতের স্বাধীনতা দিবসের দিন বাংলাদেশের সীমান্ত পার করে স্বামীর কাছে ফিরে এসেছেন মিথিলা। নিজেই এই সুখবর সোশ্যাল মিডিয়ায় জানিয়েছিলেন সৃজিত। লিখেন, ''১৯৪৭ সালের ১৫ অগাস্ট বহু মানুষ ঘৃণার কারণে সীমান্ত পার করেছিলেন। ২০২০-র ১৫ অগাস্ট দু'জন মানুষ ভালবাসার জন্য সীমান্ত পার করলেন।'' পোস্টের সঙ্গে পেট্রাপোল সীমান্ত পার করে মিথিলা ও মেয়ে আয়রাকে এ'দেশে নিয়ে আসার বেশ কয়েকটি ছবিও পোস্ট করেন সৃজিত।

কিন্তু ঘরে বসে থাকলে তো আর চলে না । তাই আবারও কাজের প্রয়োজনে ভিন রাজ্যে উড়ে যেতে হয়েছে সৃজিত’কে । তাই মিথিলা এই মুহূর্তে কলকাতায় থাকলেও তাঁর সঙ্গে জন্মদিন কাটানো হল না সৃজিতের । বিয়ের পরের প্রথম জন্মদিন কাটল বাড়ির বাইরেও ।

এ দিকে নতুন বর’কে কাছে না পেয়ে বিরহী মিথিলাও । সোশ্যাল মিডিয়াতেই তাই জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানালেন ভালবাসার মানুষকে । লিখলেন, ‘‘শুভ জন্মদিন মিস্টার মূখার্জি । অনেক ধন্যবাদ আমাদের জীবনে আসার জন্য । সারাজীবন এরকমই আনন্দে, খুশিতে থেকো ‘নাটকের রাজা’ । এই প্যানডেমিকের মাথায় অনেক অভিশাপ লাগুক যে আমাদের এই শুভদিনে আলাদা করে রেখেছে । কিন্তু আমাকে কথা দাও, তুমি সাবধানে থাকবে আর খুব তাড়াতাড়ি বাড়ি ফিরে আসবে ।’’

গতবছর ৬ ডিসেম্বর সাতপাকে বাঁধা পড়েন সৃজিত ও মিথিলা। সুইৎজারল্যান্ডে মধুচন্দ্রিমা সেরে মেয়ে আইরাকে নিয়ে বাংলাদেশ যান মিথিলা। পরবর্তী ‘কাকাবাবু’ সিরিজের শ্যুটিং করতে সৃজিতও পাড়ি দেন আফ্রিকা। এরমধ্যেই জারি হয়ে যায় লকডাউন। সৃজিত কলকাতা ফেরেন কোনওমতে, কিন্তু দুইয়ের মাঝে কাঁটা হয়ে দাঁড়ায় লকডাউন। কলকাতায় ফেরা হয় না মিথিলার। দীর্ঘ সময় আলাদাই থাকতে হয় নবদম্পতিকে । অবশেষে ভালবাসারই জয়... ভারতের স্বাধীনতা দিবসের দিনই সীমান্ত পেরিয়ে স্বামীর কাছে ফিরে এসেছেন মিথিলা ও আয়রা।

Published by:Simli Raha
First published:

Tags: Rafiath Rashid Mithila, Srijit Mukherjee