যোগীরাজ্যে ফের ২ দলিত মেয়ের মৃত্যুর ঘটনায় বিজেপি-র তীব্র নিন্দা করলেন নুসরত জাহান

যোগীরাজ্যে ফের ২ দলিত মেয়ের মৃত্যুর ঘটনায় বিজেপি-র তীব্র নিন্দা করলেন  নুসরত জাহান
উত্তরপ্রদেশের উন্নাওয়ের অশোহা পুলিশ স্টেশনের অন্তর্গত বাবুরহা গ্রামের চাষের জমি থেকে উদ্ধার করা হয় ২ জন দলিত মেয়ের দেহ। আর একজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করে বিজেপিকে কাঠগড়ায় দাঁড় করালেন তৃণমূল সাংসদ তথা অভিনেত্রী নুসরত জাহান।

উত্তরপ্রদেশের উন্নাওয়ের অশোহা পুলিশ স্টেশনের অন্তর্গত বাবুরহা গ্রামের চাষের জমি থেকে উদ্ধার করা হয় ২ জন দলিত মেয়ের দেহ। আর একজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করে বিজেপিকে কাঠগড়ায় দাঁড় করালেন তৃণমূল সাংসদ তথা অভিনেত্রী নুসরত জাহান।

  • Share this:

    #লখনউ: দলিত মেয়েদের উপর নৃশংসতার জন্য ফের যোগী রাজ্য খবরের শিরোনামে। উত্তরপ্রদেশের উন্নাওয়ের অশোহা পুলিশ স্টেশনের অন্তর্গত বাবুরহা গ্রামের চাষের জমি থেকে উদ্ধার করা হয় ২ জন দলিত মেয়ের দেহ। আর একজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করে বিজেপিকে কাঠগড়ায় দাঁড় করালেন তৃণমূল সাংসদ তথা অভিনেত্রী নুসরত জাহান।

    উন্নাও-এর এই ঘটনার একটি প্রতিবেদন টুইটারে শেয়ার করে তিনি ক্ষোভ উগড়ে দেন। তিনি লেখেন, "বিজেপি শাসিত উত্তরপ্রদেশে এই ভয়াবহতার কোনও শেষ নেই! পশ্চিমবঙ্গে নারী সুরক্ষা ও নিরাপত্তা নিয়ে বিজেপি মানুষকে ভুল বোঝাতে চাইছে। আর এদিকে উত্তরপ্রদেশে এমন ঘটনায় তারা চোখ বুজে আছে।"

    নরেন্দ্র মোদিকেও কটাক্ষ করতে ছাড়েননি নুসরত। প্রধানমন্ত্রীকে ট্যাগ করে প্রশ্ন তুলেছেন, শুধু প্রোপাগান্ডাই তৈরি করা হচ্ছে নাকি সত্যি কোনও চিন্তাও রয়েছে?


    প্রসঙ্গত, প্রাথমিক ভাবে পুলিশ মনে করছে, দুই কিশোরীকেই বিষ দেওয়া হয়েছিল। জেলা ম্যাজিস্ট্রেট হাসপাতালে গিয়েছেন, গোটা ঘটনাটির সাক্ষী থাকবেন তিনি। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করা হয়েছে। লখনউ থেকে একজন আইজি এবং আরেকজন ডিআইজিকে গ্রামে পাঠানো হয়েছে। জানা গিয়েছে, বাড়ির গবাদিদের জন্য জমিতে ঘাস কাটতে গিয়েছিলেন তাঁরা।

    যে দুই কিশোরী মারা গিয়েছেন, তাঁদের বয়স যথাক্রমে ১৩ এবং ১৬। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন কিশোরীর বয়স ১৭। ১৬ ও ১৭ বছর বয়সি মেয়ে দু'টি দুই বোন এবং ১৩ বছরের কিশোরীটি তাঁদের তুতো বোন বলে জানা গিয়েছে। উন্নাওয়ের এসপি সুরেশরাও এ কুলকার্নি বলেন, 'নিজেদের জমিতেই অচৈতন্য অবস্থায় পড়েছিল মেয়েগুলি। সেখান থেকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাঁদের। উদ্ধার করার সময় তাঁদের মুখ দিয়ে গ্যাঁজলা বের হচ্ছিল।

    এই ঘটনায় ফের উত্তরপ্রদেশের নারী সুরক্ষা ও নিরাপত্তা প্রশ্নের মুখে এসে দাঁড়িয়েছে। কেন বার বার যোগী রাজ্যে মেয়দের উপরে এমন নির্যাতন হচ্ছে এই নিয়ে তুমুল আলোচনা হচ্ছে।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published:

    লেটেস্ট খবর