জল্পনার অবসান, ঘাসফুলেই কৌশানি, তারকাপ্রার্থীর ঝুলিতে মমতা দিলেন কৃষ্ণনগর উত্তর, বান্ধবীকে শুভেচ্ছা বনির

জল্পনার অবসান, ঘাসফুলেই কৌশানি, তারকাপ্রার্থীর ঝুলিতে মমতা দিলেন কৃষ্ণনগর উত্তর, বান্ধবীকে শুভেচ্ছা বনির

File Photo

"ভালো কাজ করেছে বলেই আজ এই জায়গায় পৌঁছতে পেরেছে কৌশানি। আমার বিশ্বাস আগামী দিনেও নিজেকে প্রমাণ করতে পারবে সে। : বনি সেনগুপ্ত

  • Share this:

    #কলকাতা : গত কয়েকদিনে তুঙ্গে উঠেছিল জল্পনা। অনুপ-পিয়া সেনগুপ্তের একমাত্র ছেলে বনি সেনগুপ্ত নাকি যোগ দিতে চলেছেন বিজেপিতে। আরও একধাপ এগিয়ে এমনও গুঞ্জন উঠেছিল যে বনির বিশেষ বান্ধবী সদ্য তৃণমূলে যোগ দেওয়া কৌশানিও নাকি ঘাসফুল ছেড়ে বেছে নেবেন পদ্মফুলই। কিন্তু সেইসব গুঞ্জন একেবারে উড়িয়ে দিয়ে আজ তৃণমূলের প্রার্থীতালিকায় দেখা গেলো কৌশানির উজ্জ্বল উপস্থিতি!

    প্রত্যাশা মতোই শুক্রবার দুপুরে বেশ হালকা মেজাজে তৃণমূলে প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর প্রতিবারের মতোই তালিকায় দেখা গেলো একগুচ্ছ চমক। সেই চমকের তালিকায় জ্বলজ্বল করছে কৌশানির নাম।

    প্রসঙ্গত, এর আগে, তৃণমূলের হাত ধরে রাজনীতিতে অভিষেক ঘটে দেবশ্রী রায়, শতাব্দী রায়েরও। দেব, মিমি, নুসরতও সেই পথেই এগিয়েছেন। কিন্তু ২০১৫-য় অভিনয় জগতে পা রাখা কৌশানী এত অল্পদিনেই রাজনীতিতে কেন, তা নিয়ে কৌতূহল রয়েছে। তবে কৌশানীর যুক্তি, ‘‘এখন যা টালমাটাল অবস্থা। এটাই সিদ্ধান্ত নেওয়ার সঠিক সময় বলে মনে হল। ছোট থেকেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভক্ত আমি। আমার গোটা পরিবার একটা দলকেই অনুসরণ করে, সেটা হল তৃণমূল। তাই তৃণমূলের কান্ডারি হওয়া আমার কাছে সৌভাগ্যের ব্যাপার।’’ শুধুমাত্র মমতার জন্যই যে তিনি রাজনীতিতে এসেছেন, সে কথাও সাফ জানিয়ে দেন কৌশানী। তিনি বলেন, ‘‘আমার প্রথম ছবি পারব না আমি ছাড়তে তোকে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেও ছাড়তে পারব না আমি।

    বিশেষ বান্ধবী কৌশানি মুখার্জীর প্রার্থী হওয়া নিয়ে যথেষ্টই খুশি ও গর্বের সুর শোনা গেল বনি সেনগুপ্তের গলায়। টেলিফোনে যোগাযোগ করা হলে বনি বলেন আগামী দিনে হবু স্ত্রীয়ের পাশেই থাকবেন তিনি। অভিনেতার কথায় "ভালো কাজ করেছে বলেই আজ এই জায়গায় পৌঁছতে পেরেছে কৌশানি। আমার বিশ্বাস আগামী দিনেও নিজেকে প্রমাণ করতে পারবে সে। যে দায়িত্ব তাঁকে দেওয়া হয়েছে তা ভালো করে পূরণ করবে কৌশানি এমনটাই বিশ্বাস বনির। প্রচারের দিনগুলোতে প্রেমিকাকে পূর্ণ মানসিক সমর্থন যোগাবেন বলেও জানান বনি সেনগুপ্ত।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published:

    লেটেস্ট খবর