সর্বনাশা করোনা, আবার মন্দার আশঙ্কা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির? বন্ধ বহু ছবি মুক্তি

সর্বনাশা করোনা, আবার মন্দার আশঙ্কা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির? বন্ধ বহু ছবি মুক্তি

মহারাষ্ট্রে (Maharashtra) করোনা সংক্রমণ (Corona) বাড়ছে, ফলে সেই প্রভাব পড়ছে বলিউডের (bollywood) উপর৷ কিন্তু এখনও স্বাভাবিক নিয়মে ছবি মুক্তি হচ্ছে টলিউডে (tollywood)৷

মহারাষ্ট্রে (Maharashtra) করোনা সংক্রমণ (Corona) বাড়ছে, ফলে সেই প্রভাব পড়ছে বলিউডের (bollywood) উপর৷ কিন্তু এখনও স্বাভাবিক নিয়মে ছবি মুক্তি হচ্ছে টলিউডে (tollywood)৷

  • Share this:

    ফের করোনার (COVID19) গ্রাসে ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি৷ দীর্ঘ লকডাউনের (lockdown)কোপ কাটিয়ে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক ছন্দে ফিরছিল বিনোদন দুনিয়া৷ কিন্তু দেশজুড়ে করোনা সংক্রমণ ফের একবার বৃদ্ধি পেতে শুরু করায় প্রমাদ গুনছেন কলাকুশলীরা৷ মহারাষ্ট্রের (Maharashtra) করোনা হাল বেহাল৷ প্রতিদিনই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা৷ ফলে করোনা রুখতে নানাবিধ পদক্ষেপ নিচ্ছে সরকার৷ নাইট কার্ফু (Night Curfew) থেকে বেশ কিছু জায়গায় ভিড় নিয়ন্ত্রণের পন্থা রয়েছে নতুন নির্দেশিকায়৷ তাতে সমস্যা তৈরি হচ্ছে বলিউড ইন্ডাস্ট্রির (Bollywood Industry)৷ পিছিয়ে যাচ্ছে একের পর এক ছবি রিলিজ (Film Release postpone in Bollywood)৷

    গত দু’মাসে পরিস্থিতি এমন ছিল না৷ দেশের নানা প্রান্ত খুলেছিল সিনেমা হল৷ কোনও রকম আসন বাদ দিয়ে বসা নয়, একেবারে ১০০ শতাংশ অকুপেন্সি নিয়মে চলছিল হলগুলি Cinema Hall) ৷ হলমুখী হচ্ছিলেন দর্শকও৷ কিন্তু করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের (corona second wave) ফলে অবস্থা শোচনীয়৷ সিঁদুরে মেঘ দেখতে শুরু করেছে প্রযোজনা সংস্থাগুলি৷ একাধিক বড় ব্যানারের ছবি মুক্তি আটকে গিয়েছে৷ অমিতাভ বচ্চন-ইমরান হাশমি অভিনাত ছবি চেহরে (Chehere) মুক্তির কথা ছিল ৯ এপ্রিল৷ কিন্তু করোনার কথা মাথায় রেখে নির্দিষ্ট দিনে হলে মুক্তি পাচ্ছে না ছবি৷ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে৷

    স্থগিত থাকছে রানি মুখোপাধ্যায় ও সইফ আলি খান অভিনীত ছবি বান্টি অউর বাবলি ২-র (Bunty aur Bubli 2) মুক্তি৷ মুক্তির কথা ছিল ২৩ এপ্রিল৷ এছাড়াও মুক্তির অপক্ষায় রান্না দাগ্গুবতির হাতি মেরে সাথির (Hathi Mere Sathi) হিন্দি ভার্সান এখনও মুক্তির অপেক্ষায়৷ রোহিত শেট্টির বিগ বাজেটের ছবি সূর্যবংশী (Sooriyabanshi) ছবিটি মুক্তি পাওয়ার কথা ৩০ এপ্রিল৷ দীর্ঘ দিন ধরে মুক্তির অপেক্ষায় অক্ষয় কুমার অভিনীত এই ছবি৷ আপাতত ছবির রিলিজ হচ্ছে বলেই খবর৷

    রাতের কার্ফুর ফলে রাত আটটার পর কোথাও শো (Movie Show) রাখা যাচ্ছে না৷ তাই যে সব ছবি মুক্তি পাচ্ছেও, তাতে দর্শক সংখ্যাও বেশি হচ্ছে না৷ অর্থাৎ একদিকে ছবি মুক্তি আটকে সমস্যা, অন্যদিকে ছবি মুক্তি হলেও (সমস্যা৷ চিন্তা বাড়াচ্ছে প্রযোজক ও প্রযোজনা সংস্থাগুলি৷

    তবে বলিউডে এমন হাল হলেও, টলিউড (Tollywood) এখনও সেভাবে সমস্যায় পড়েনি৷ আপাতত বাংলার বাজারে সব থেকে বড় আকর্ষণ ভোটযুদ্ধ৷ কিন্তু তার মাঝেও ছবি রিলিজ হচ্ছে৷ করোনার কোপ থেকে এখনও মুক্ত রয়েছে বাংলা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি (Bengali Film Industry)৷ সব বড় প্রযোজনা সংস্থার পক্ষ থেকেই জানানো হয়েছে যে ছবি মুক্তি নিয়ে এখনও কোনও সমস্যা নেই৷ নির্দিষ্ট সময়ে মুক্তি পাবে ছবি৷ ২ এপ্রিল মুক্তি পাচ্ছে সুরিন্দরের (Surinder) প্রযোজনায় ফ্লাইওভার (Flyover)৷ ১৫ এপ্রিল মুক্তি এসভিএফের (SVF) পাবে ট্যাঙরা ব্লুজ (Tangra Blues)৷ মুক্তির অপেক্ষায় এসকে (Eskay) প্রযোজনার অনুসন্ধান৷ এছাড়াও মুক্তি পাচ্ছে গল্পের মায়াজাল, এই আমি রাণু৷

    Published by:Pooja Basu
    First published: