সমাজে এগিয়ে চলার গল্প বলতে আসছেন এক রূপান্তরকামী পরিচালক, অভিনয়েও এক রূপান্তরকামী

সমাজে এগিয়ে চলার গল্প বলতে আসছেন এক রূপান্তরকামী পরিচালক, অভিনয়েও এক রূপান্তরকামী

স্বল্পদৈর্ঘের ছবি (Adelante) আদালান্তে৷ এটি আসলে একটা স্প্যানিশ শব্দ । এর অর্থ হল "এগিয়ে চলা" ।

স্বল্পদৈর্ঘের ছবি (Adelante) আদালান্তে৷ এটি আসলে একটা স্প্যানিশ শব্দ । এর অর্থ হল "এগিয়ে চলা" ।

  • Share this:

    #কলকাতা: রণদীপ সরকার ও পুষ্কর ক্রিয়েশনের প্রযোজনায় তৈরি বাংলা স্বল্পদৈর্ঘের ছবি (Adelante) আদালান্তে৷ এটি আসলে একটা স্প্যানিশ শব্দ । এর অর্থ হল "এগিয়ে চলা" । ছবিতে দু’টি বিষয়ের উপর জোর দেওয়া হয়েছে, এক সমাজে ট্রান্সজেন্ডারদের অবস্থান এবং আত্মহত্যা৷ মূল চরিত্রে অভিনয় করছেন সুজি ভৌমিক৷ রয়েছেন অভিনন্দন সরকার ও সায়ন্তনী গুহঠাকুরতাও। নিজে এলজিবিটি কমিউনিটির সদস্য ও ট্রান্সজেন্ডার সুজি এই ছবিতে যেন তাঁর ব্যক্তিগত জীবনের গল্পই বলছেন৷ তিনি তাঁর এলজিবিটি সমাজের এক চরিত্রকে মেলে ধরবেন এই ছবিতে৷ ছবির পরিচালক নিজেও এই সম্প্রদায়ের সদস্য৷ ফলে সমাজে এই মানুষগুলোর গভীর আবেগের টানাপোড়েন তুলে ধরা হয়েছে Adelante ছবিতে৷

    এই গল্পের সুজি আত্মহত্যা প্রবণ, অভিমানী, আত্মসম্মান বোধ তাঁর অনেক। তাঁর জীবনের একাকীত্ব, প্রেমহীনতা, সমাজ-কর্মক্ষেত্র আর আপন জনদের অপমান আর অবহেলা তাঁর জীবনে নিয়ে আসে এক গভীর অবসাদ! নিজের জীবনের প্রতি একরাশ ঘৃণা থেকে আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নেন তিনি৷ তবে জীবন শেষ করতে চাইলেও জীবন কোথাও মোর ঘুরিয়ে দেয় নতুন করে বাঁচবার । এভাবে এগিয়েছে ছবির গল্প৷ "এমন গল্পে আমি কাজ করতে পেরে আপ্লুত৷ এখানে আরেকটা চমক আমাদের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে এই প্রথম রূপান্তরকামি পরিচালক ও এক রূপান্তরকামী অভিনেত্রীর অভিনয়। এই ইন্ডাস্ট্রি এক নতুন জুটি পেতে চলেছে।" বলছেন সুজি ভৌমিক৷

    অন্যদিকে পরিচালক রণদীপ বলছেন যে, "সমাজে আত্মহত্যার প্রবণতা বেড়ে চলেছে৷ যুবসমাজের জীবন গ্রাস করছে এই প্রবণতা৷ এই ছবির মাধ্যমে আমরা দেখাতে চেষ্টা করেছি যে কীভাবে জীবনের নেতিবাচক দিকগুলি সরিয়ে শুধুমাত্র ইতিবাচক দিকগুলির উপর জোর দেব৷ জীবনে লড়াই করে বেঁচে থাকাটাই হল জীবনের মূল মন্ত্র৷" সেটাই তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন বলে জানান রণদীপ৷

    তিনি আরও বলেন যে, "আর একটা বিষয়কেও এই ছবিতে দেখানো হয়েছে । সেটা হল ট্রান্সজেন্ডার । মহাভারতের সময় শিখন্ডী ছিল । তাঁকে কিন্তু সমাজ মেনে নিয়েছে, তাই এখনকার সমাজ মানবে না কেন? তারাও সমাজের এক অঙ্গ৷ তাই তাদেরকেও দূরে না সরিয়ে রেখে সমাজে যোগ্য সম্মান দিতে হবে৷"

    Published by:Pooja Basu
    First published: