• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • Rachna Banerjee|| পরিবারের ওপরে নেমে এল ঝড়! একেবারে একা হয়ে গেলেন অভিনেত্রী রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়

Rachna Banerjee|| পরিবারের ওপরে নেমে এল ঝড়! একেবারে একা হয়ে গেলেন অভিনেত্রী রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়

রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল ছবি।

রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল ছবি।

Actress Rachna Banerjee's father died on Monday: সারা বছর দিদি নম্বর ওয়ানের (Didi No.1) মঞ্চে সকলের দুঃখ ভাগ করে নেন রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার তাঁর জীবনের ওপর দিয়েই বয়ে গেল বড় ঝড়।

  • Share this:

    #কলকাতা: একেবারে একা হয়ে গেলেন অভিনেত্রী রচনা বন্দ্যোপাধ্যায় (Rachna Banerjee)। সারা বছর দিদি নম্বর ওয়ানের (Didi No.1) মঞ্চে সকলের দুঃখ ভাগ করে নেন যিনি, তাঁর জীবনের ওপর দিয়েই বয়ে গেল বড় ঝড়। সোমবার বাবা রবীন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায়কে হারিয়েছেন অভিনেত্রী। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর। তার দু'দিন পর আজ বৃহস্পতিবার কিছুক্ষণ আগে অভিনেত্রী তাঁর ফেসবুক পেজে শোকবিহ্বল একটি পোস্ট করেন। বাবার ছবির ওপরে লিখেছেন, "আমার বাপি...ভাবিনি একদিন একা হয়ে যাবো। ভাবিনি তুমি চলে যাবে। এখনও অনেকগুলো বছর তোমাকে ছাড়া কাটাতে হবে। তোমার আশীর্বাদ আমাদের সাথে আছে আমি জানি। থাকবো.... থাকতে হবে। তুমি ভালো থেকো বাপি।"

    দীর্ঘদিন বার্ধক্য জনিত রোগে ভুগছিলেন রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Rachna Banerjee) বাবা রবীন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায়। গোলপার্কের এক বহুতলে থাকতেন তিনি। রবিবার রাত থেকেই শরীর ক্রমশ খারাপ হতে শুরু করে। সোমবার বাড়িতেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। সোমবারই শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়। তারপর থেকে সামাজিক মাধ্যমে আজ নিজের কষ্ট ব্যক্ত করেন অভিনেত্রী।

    রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়ের যারা দীর্ঘদিনের সহকর্মী, তাঁরা সকলেই জানেন বাবা ছিলেন তাঁর বন্ধুর মতো। স্বভাবতই বন্ধুসম বাবাকে হারিয়ে শোকে কাতর ইনি। জানা গিয়েছে, সোমবারেও অন্যান্য দিনের মতো কাজে ব্যস্ত ছিলেন অভিনেত্রী। শুটিং ছিল তাঁর। কিন্তু আচমকাই বাবর প্রয়াণে সমস্ত পরিকল্পনা বাতিল করেন তিনি। তারপর থেকে তাঁর কোনও পোস্ট চোখে পড়েনি। এ দিন দুপুরে বাবার ছবি দিয়ে মনের কথা ভাগ করে নেন বাংলা রিয়েলিটি শো'য়ের জগতের দিদি। এ দিন রচনার পোস্টের নিচে হাজার হাজার মানুষ তাঁকে শক্ত থাকার জন্য সাহস জুগিয়েছেন, অভিনেত্রীর বাবার আত্মার শান্তি কামনা করেছেন।

    Published by:Shubhagata Dey
    First published: