তিনি নাকি আর ‘দেশের মাটি’-র নায়িকা নন, ট্রোলারদের এই কটূক্তির যোগ্য জবাব ফেসবুকে দিলেন শ্রুতি

শ্রুতি দাস, ছবি-ফেসবুক

পরিস্থিতিতে নেটমাধ্যমের একাংশে দাবি উঠেছে, রাজা- মাম্পিকেই ধরাবাহিকের মূল জুটি করা হোক ৷ নোয়া-কিয়ানকে অসহ্য লাগছে, সেকথাও জানাতে দ্বিধা করেননি অনেকেই ৷

  • Share this:

    কলকাতা: সামাজিক মাধ্যমের দৌলতে তারকারা এখন সাধারণ মানুষের অনেক কাছাকাছি ৷ যোগাযোগ সহলজলভ্য হওয়ার ফলে স্তুতি ও নিন্দা, দুই-ই আসে সরাসরি ৷ ট্রোলড হওয়া এখন কার্যত তারকাজীবনের অঙ্গ হয়ে গিয়েছে ৷ সেই তালিকায় সাম্প্রতিক সংযোজন শ্রুতি দাস ৷ ‘দেশের মাটি’ ধারাবাহিকের নায়িকাকে নেটমাধ্যমে কটূক্তির শিকার হতে হয়েছে ৷

    টানাপড়েনের সূত্রপাত ধারাবাহিকের পটভূমি ঘিরে ৷ লীনা গঙ্গোপাধ্যায়ের চিত্রনাট্যে প্রথম থেকে আলো ছিল  নোয়া কিয়ান জুটির উপর ৷ নোয়ার চরিত্রে অভিনয় করছেন শ্রুতি ৷ কিয়ানের ভূমিকায় আছেন দিব্যজ্যোতি দত্ত ৷ পরিচালক জুটি লীনা গঙ্গোপাধ্যায় ও শৈবাল বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই ধারাবাহিক শুরু হওার পর থেকে দর্শকদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে ওঠে নোয়া-কিয়ান জুটি ৷

    কিন্তু গল্পের মোড় ঘুরে যায় কিছু মাস পরেই ৷ স্পটলাইটে উদ্ভাসিত হয়ে ওঠেন রাজা ও মাম্পি ৷ দর্শকদের বক্তব্য, এপ্রিল মাসে কোভিডে আক্রান্ত হয়ে শ্রুতি নিভৃতবাসে যাওয়ার পরই ধারাবাহিকের পটভূমিতে এই পরিবর্তন আসে ৷ রাজার ভূমিকায় রাহুল অরুণোদয় বন্দ্যোপাধ্যায় ও  মাম্পিবেশী রুকমার অফস্ক্রিন প্রেম নিয়েও এখন চর্চা তুঙ্গে ৷ যদিও দুই কুশীলবের দাবি, তাঁরা শুধুই ভাল বন্ধু ৷ সংবাদমাধ্যমে রাহুল বলেছেন, রুমকমা তাঁর থেকে বয়সে অনেক ছোট ৷ তিনি রুকমাকে খুব ভালবাসেন ৷ কিন্তু সেটা প্রেমের সম্পর্ক নয় ৷

    সবমিলিয়ে, এই পরিস্থিতিতে নেটমাধ্যমের একাংশে দাবি উঠেছে, রাজা- মাম্পিকেই ধরাবাহিকের মূল জুটি করা হোক ৷ নোয়া-কিয়ানকে অসহ্য লাগছে, সেকথাও জানাতে দ্বিধা করেননি অনেকেই ৷

    এর পরই নিজের ফেসবুকে সপাট উত্তর দেন শ্রুতি ৷ তাঁর কথায়, ‘দেশের মাটি’ তথাকাথিত নায়ক নায়িকা ভিত্তিক ধারাবাহিক নয় ৷ এখানে প্রতিটি চরিত্রই নায়ক বা নায়িকা ৷ অভিনেত্রীর দাবি, ‘দেশের মাটি’-তে তিনি আর দিব্যজ্যোতি নায়ক নায়িকা থাকছেন না, এ কথা বলে তাঁর মনোবল ভাঙানো যাবে না ৷ লিখেছেন, ‘ রোজ রোজ এর মানুষের মৃত্যুগুলো আমার মনোবল ভেঙে দিচ্ছে ৷ ’ ট্রোলারদের প্রতি তাঁর আবেদন, মানসিক দিক থেকে উপযুক্ত মানুষ হয়ে ওঠার জন্য ৷ শারীরিক ভাবে এই ট্রোলাররা পশুদের মতো অবলা হওয়ার ইঙ্গিতও দিয়েছেন তিনি ৷

    শ্রুতি দাসের ফেসবুক থেকে

    শ্রুতি দাসের ফেসবুক থেকে

    তাঁর এই পোস্টে অনেক অনুরাগীই অভিনেত্রীর পাশে দাঁড়িয়েছেন ৷ বলেছেন, তিনি যোগ্য জবাব দিয়েছেন ৷ কিন্তু এর পরেও ট্রোলিং বন্ধ হয়নি ৷ কমেন্ট বক্সে ভেসে এসেছে বিষোদগার ৷ এমনকি, পোস্টের কমেন্টে রীতিমতো তর্কাতর্কিও হয়েছে দু’ পক্ষের ৷ তাঁর ভক্তদের দাবি, শ্রুতির মতো নায়িকা বাংলা ধারাবাহিকে আর নেই ৷ সমালোচকদের বক্তব্য, রাজা-মাম্পির জুটিই বেশি আকর্ষণীয় ৷

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published: