corona virus btn
corona virus btn
Loading

নারী নির্যাতনের প্রতিবাদে ভিডিও অ্যালবাম আইআইটি গবেষক পড়ুয়াদের

নারী নির্যাতনের প্রতিবাদে ভিডিও অ্যালবাম আইআইটি গবেষক পড়ুয়াদের
  • Share this:

Venkateswar Lahiri

#কলকাতা: রূপান্তরকামীদের নিয়ে সিনেমা বানিয়ে হৈচৈ ফেলে দিয়েছিলেন আইআইটি খড়গপুরের গবেষক পড়ুয়ারা। এবার হায়দরাবাদে তরুণী চিকিৎসককে গণধর্ষণ করে নৃশংস হত্যার ঘটনা কিংবা উন্নাও কান্ড নাড়িয়ে দিয়েছে ওঁদের মন। না, তবে এবার সিনেমা নয়, এবার তাদের ক্যামেরা তুলে ধরছে ধর্ষণ তথা নারীদের ওপর প্রতিনিয়ত ঘটে যাওয়া নানাবিধ অপরাধের বিরুদ্ধে সচেতনতামূলক একটি স্বল্প দৈর্ঘ্যের ভিডিও অ্যালবাম ‘ Break The Silence’।

কেউ বলেন, ও নারী আবার কেউবা বলেন, ও পুরুষ। নারী না পুরুষ? সমাজ প্রশ্নের উত্তর খুঁজে যায়। রূপান্তরকামীদের জায়গা দিতে গিয়ে এই সমাজ এখনও অনেক বার হোঁচট খায়। রূপান্তরকামীদের লড়াইটা প্রতিদিনের। সামাজিক লড়াই তো আছেই, আছে মানসিক টানাপোড়েনও। সম্প্রতি রূপান্তরকামীদের কথা সিনেমার মাধ্যমে তুলে ধরেছেন আইআইটি খড়গপুরের ১২জন গবেষক পড়ুয়া।

খড়্গপুর আইআইটি-র গবেষক পড়ুয়াদের বানানো স্বল্প দৈর্ঘ্যের ছবি " অফসাইড " স্থান করে নিয়েছিল এবারের ২৫ তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে। রূপান্তরকামীদের নিয়ে বানানো এই সিনেমাটি বহু দর্শকের প্রশংসা কুড়িয়েছে। সিনেমার পরিচালক পদার্থবিদ্যা বিভাগের গবেষক শাওন বাগ নিউজ 18 বাংলা-কে জানালেন, কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবের পর এই শর্ট ফিল্মটি কলকাতার একটি খ্রীষ্টান মিশনারিতেও প্রদর্শিত হয়েছিল। সেখানেও উচ্চ প্রশংসিত হয় সিনেমাটি।

পরিচালকের কথায়, সিনেমাটি রূপান্তরকামীদের কাছে একটি অনুপ্রেরণা। ‘অফসাইড’-র নানা প্রশংসার মাঝে এটাই হয়তো সব চেয়ে বড় পাওয়া । একজন রূপান্তরকামীর ফুটবলার হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে তৈরী এই সিনেমাটি যে মানুষকে অন্য ভাবে ভাবতে শেখাবে তা বলার অবকাশ রাখে না ৷ তবে ‘অফসাইড’-এর সাফল্যে থেমে না থেকে অঙ্কিতা, রুচি, শ্রেয়া, সুপর্ণা, শাওন, জিৎ, অভীক, সাম্বো-সহ অন্যান্য গবেষক পড়ুয়ার দল ইতিমধ্যেই শুরু করে দিয়েছে নিজেদের পরবর্তী প্রজেক্ট-এর কাজ। তবে এবার সিনেমা নয় , এবার তাদের ক্যামেরা তুলে ধরেছে হায়দরাবাদ কিম্বা উন্নাও ধর্ষণকান্ড তথা দেশব্যাপী নারী দের ওপর ঘটে যাওয়া অপরাধের বিরুদ্ধে সচেতনতা তৈরী করা নিয়ে একটি স্বল্প দৈর্ঘ্যের ভিডিও অ্যালবাম। যার নাম ‘ব্রেক দ্য সাইলেন্স’।

এই ভিডিও অ্যালবামে অভিনয় করেছেন আইআইটি খড়্গপুরের পড়ুয়ারাই। সম্পূর্ণ শুটিং প্রক্রিয়াটি হয়েছে আইআইটি ক্যাম্পাসে। গবেষণা, পড়াশোনার পাশাপাশি সমাজকে সচেতনতার বার্তা দিতেও ওরা আজ নারী-পুরুষ একজোট। দিন প্রতিদিন নারীদের ওপর ঘটে চলেছে একের পর এক নৃশংস ধর্ষণের ঘটনা, তার বিরুদ্ধে মুখে কুলুপ এঁটে বসে থাকা নয়, সোশ্যাল মিডিয়ায় লম্বা চওড়া পোস্ট লেখা নয়, মোমবাতি, মৌন মিছিল নয়, বরং নিরবতা ভেঙে গর্জে ওঠারই আবেদন করা হয়েছে এই ভিডিও অ্যালবামটিতে। জানালেন, গবেষক তথা মুক্তির অপেক্ষায় থাকা অ্যালবামের পরিচালক শাওন।

ধর্ষণ রুখতে গেলে নিতে হবে কিছু কড়া পদক্ষেপ, কাজ শুরু করতে হবে একদম গোড়া থেকে, নইলে এই ধরণের অপরাধ রোখা সম্ভব নয় বলেই মনে করেন পড়ুয়ারা। খুব তাড়াতাড়ি ‘ধর্ষণ’ শীর্ষক স্বল্প দৈর্ঘ্যের পাশাপাশি একটি সচেতনতামূলক সিনেমা বানানোর পরিকল্পনাও আছে বলে জানান এই গবেষক পড়ুয়ারা। অত্যাচারিত নারীদের করুন আর্তনাদ কীভাবে হারিয়ে যায়, সেকথাই নান্দনিক ভাবে তুলে ধরা হয়েছে এই ভিডিও অ্যালবামটিতে। ‘অফসাইড’-র মতো এই ‘ব্রেক দ্য সাইলেন্স’-ও মানুষের বিবেককে নাড়া দেবে বলে মনে করছেন এই তরুণ গবেষক পড়ুয়ার দল। আগামী সপ্তাহেই মুক্তি পেতে চলেছে তাদের এই নতুন ভিডিও অ্যালবামটি। সোশ্যাল মিডিয়ায় এক ক্লিকেই দেখা যাবে ভিডিওটি।

সিনেমা বানানোর অনুপ্রেরণা তাদের কাছে সত্যজিৎ রায়। তবে দামি ক্যামেরা কিংবা অন্যান্য পরিকাঠামো ছিল না। তবে ছিল রূপান্তরকামীদের নিয়ে ছবি বানানোর অদম্য ইচ্ছে। তাই ইচ্ছা পূরণ করতে ডিএসএলআর ক্যামেরায় গোটা একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবি বানিয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন আইআইটি খড়গপুরের ১২ জন গবেষক পড়ুয়া। যে ছবি মনোনীত হয় কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবে। তারপর থেকেই পড়ুয়াদের মনোবল এখন টগবগ করে ফুটছে।

First published: December 8, 2019, 3:43 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर