• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • হঠাৎ করে বয়স বেড়ে গেল অর্পিতার ! জানুন এর পিছনে ‘অব্যক্ত’ কাহিনি

হঠাৎ করে বয়স বেড়ে গেল অর্পিতার ! জানুন এর পিছনে ‘অব্যক্ত’ কাহিনি

‘অব্যক্ত’ ছবিতে অর্পিতা চট্টোপাধ্যায় ৷ ছবি: অ্যাডভার্বের সৌজন্যে ৷

‘অব্যক্ত’ ছবিতে অর্পিতা চট্টোপাধ্যায় ৷ ছবি: অ্যাডভার্বের সৌজন্যে ৷

  • Share this:

    #কলকাতা: পঞ্চাশের কাছাকাছি বয়স ৷ মুখ-গলা-হাতে স্পষ্ট ছাপ রয়েছে বলিরেখার ৷ যেন জীবনের নানা ঘটনা আর ইতিহাসের গল্প বলছে শরীরের সেই কুঁচকে যাওয়া ত্বক ৷ একমাথা কোঁকড়া চুলে আলুথালু খোঁপা ৷ পরণে সাদা-মাঠা ছাপার শাড়ি ৷ হাতে গয়না বলতে দু’গাছি সোনার পাতলা চুড়ি ৷ আঙুলে ধারণের মুক্তো আর পলা ৷ চিনতে পারছেন এই মধ্যবয়স্কা মহিলাকে ?

    চিনতে পারলেও এমনভাবে আগে হয়তো দেখেননি কোনওদিনও ৷ এক্কেবারে ঠিকই ধরেছেন ইনিই অর্পিতা চট্টোপাধ্যায় ৷ অর্জুন দত্তের নতুন ছবি ‘অব্যক্ত’তে এমন লুকেই ধরা দিয়েছেন অভিনেত্রী ৷ আর তাঁর এমন লুক সামনে আসতেই ভাইরাল হয়ে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায় ৷

    কুড়ি বছরের থেকে একটু বেশি বয়সী থেকে পঞ্চাশের কাছাকাছি বয়সের মহিলার চরিত্রে নিজেকে এই ছবিতে ফুটিয়ে তুলবেন অর্পিতা ৷ নায়িকার এই লুকের পিছনে যে তিনটি মানুষ রয়েছেন তাঁরা হলেন- স্টাইলিস্ট পৌলমী গুপ্ত, মেকআপ আর্টিস্ট অনিরুদ্ধ চাকলাদার এবং হেয়ার স্টাইলিস্ট শেখর অধিকারী ৷

    2

    ‘অব্যক্ত’ ছবিতে অনুভব কাঞ্জিলালের সঙ্গে অর্পিতা ৷  ছবি সৌজন্য়ে : অ্যাডভার্ব ৷

    ‘অব্যক্ত’ হল একজন মা ও ছেলের গল্প ৷ যেখানে ‘ইন্দ্র’ নামে এক চরিত্রের ছোট থেকে বড় হয়ে ওঠার নানা কাহিনি উঠে আসবে ‘অব্যক্ত’-এর হাত ধরে ৷ আর সেই গল্প বলাটার জন্য ছবিতে রয়েছে কয়েকটি স্তম্ভ ৷ যারা এক-একটি চরিত্রের আবর্ত আর সম্পর্কের টানাপড়েনের মধ্যে দিয়ে এগিয়ে চলে ৷ ইন্দ্রের মা ‘সাথী’, তাঁর বাবা ‘কৌশিক’ আর ইন্দ্রের বাবার বন্ধু ‘রুদ্র’৷ এই ছবির মূল চরিত্র ৷ যেখানে ইন্দ্রের চরিত্রে অভিনয় করছেন অনুভব কাঞ্জিলাল ৷ ইন্দ্রের মা ‘সাথী’র চরিত্রে অভিনয় করেছেন অর্পিতা চট্টোপাধ্যায় ৷ ‘কৌশিক’-এর চরিত্রে রয়েছেন অনির্বাণ ঘোষ ৷ আর ‘রুদ্র’-এর চরিত্রে পাওয়া যাবে আদিল হুসেনকে ৷

    3

    ‘অব্যক্ত’ ছবিতে  অনির্বাণ ঘোষ ও সামন্তক মৈত্রের সঙ্গে অর্পিতা ৷ ছবি সৌজন্য়ে : অ্যাডভার্ব ৷

    এছাড়া অন্যান্য চরিত্রে থাকছেন কেয়া চট্টোপাধ্যায়, দেবযানী চট্টোপাধ্যায় , লিলি চক্রবর্তী, পিঙ্কি বন্দ্যোপাধ্যায় এবং সামন্তক মৈত্র ৷ এই ছবির পরিচালক অর্জুন দত্ত জানিয়েছেন, ‘‘আসলে অনেক সম্পর্কের নাম হয় না। অনেক সময় ব্যক্ত হয়েও অব্যক্ত থেকে যায়। এ ছবিতে পাস্ট অ্যান্ড প্রেজেন্টতে ব্লেন্ড করা হয়েছে। সে কারণেই এমন নাম।’’ ছবির চিত্রনাট্য লিখেছেন আশীর্বাদ মৈত্র এবং অর্জুন নিজেই ৷

    এই ছবির ডিরেক্টর অফ ফোটোগ্রাফির দায়িত্ব সামলেছেন জয় সুপ্রতিম ৷ যিনি এর আগে ‘সহজ পাঠের গপ্পো’ ছবির জন্যও কাজ করেছিলেন ৷ এছাড়া এই ছবির সঙ্গীত পরিচালক হলেন সৌম্য রিত নাগ ৷ ছবির বাকি চরিত্রের লুক স্টাইল করেছেন জিবি ৷ আগামী ২০ মে থেকে শুরু হতে চলেছে এই ছবির শ্যুটিং ৷

    First published: