• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • রিয়ার দাবি, তিনি নির্দোষ ! এনসিবি জোর করে, ভয় দেখিয়ে মাদক-যোগের কথা স্বীকার করিয়েছে !

রিয়ার দাবি, তিনি নির্দোষ ! এনসিবি জোর করে, ভয় দেখিয়ে মাদক-যোগের কথা স্বীকার করিয়েছে !

শুক্রবার রিয়া চক্রবর্তীর জামিনের আবেদন খারিজ করে দেয় বিশেষ আদালত। আপাতত ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত জেলেই থাকছেন রিয়া। খারিজ হয়ে যায় ভাই শৌভিক চক্রবর্তী-সহ এই মামলায় ধৃত আরও ৪ জনের জামিনের আবেদনও। নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর তরফে দাবি করা হয়, রিয়া চক্রবর্তী 'ড্রাগ সিন্ডিকেট'-এর সঙ্গে সরাসরিভাবে যুক্ত, সক্রিয় সদস্য। NDPS আইন অনুসারে ২৭ এ, ২১, ২২, ২৮ ও ২৯ ধারায় মামলা দায়ের করেছে।

শুক্রবার রিয়া চক্রবর্তীর জামিনের আবেদন খারিজ করে দেয় বিশেষ আদালত। আপাতত ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত জেলেই থাকছেন রিয়া। খারিজ হয়ে যায় ভাই শৌভিক চক্রবর্তী-সহ এই মামলায় ধৃত আরও ৪ জনের জামিনের আবেদনও। নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর তরফে দাবি করা হয়, রিয়া চক্রবর্তী 'ড্রাগ সিন্ডিকেট'-এর সঙ্গে সরাসরিভাবে যুক্ত, সক্রিয় সদস্য। NDPS আইন অনুসারে ২৭ এ, ২১, ২২, ২৮ ও ২৯ ধারায় মামলা দায়ের করেছে।

আদালতে রিয়ার জামিনের আবেদনের শুনানির সময় এনসিবি অনেক অভিযোগ তোলে। রিয়ার জামিন না দেওয়ার আবেদন করে।

  • Share this:

    #মুম্বই: গত মঙ্গলবার তিন দিন টানা জেরার পর গ্রেফতার করা হয়েছে বলিউড অভিনেত্রী ও সুশান্ত সিং রাজপুতের ‘প্রেমিকা’ রিয়া চক্রবর্তীকে ! ১৪ দিনের জেল হেফাজত হয় অভিনেত্রীর। তাঁর মেডিক্যাল টেস্টও করা হয়। প্রথম রাতে এনসিবি কোয়াটারেই থাকেন তিনি। সারারাত না ঘুমিয়ে পায়চারি করতে দেখা যায় তাঁকে। এর পর দিন মুম্বইয়ের বাইকুলা জেলে রাখা হয় তাঁকে। সেখানে মাটিতে চাটাই পেতে রাত কাটান রিয়া। আজ রিয়া সহ বাকি তিন অভিযুক্তর জামিনের শুনানির কথা ছিল। কিন্তু তা স্থগিত রাখা হয়। আপাতত জেলেই থাকতে হবে তাঁকে।

    আদালতে রিয়ার জামিনের আবেদনের শুনানির সময় এনসিবি অনেক অভিযোগ তোলে। রিয়ার জামিন না দেওয়ার আবেদন করে। আজ রিয়ার উকিল সতীশ মানশিন্ডে জানান, রিয়াকে জোর করে মাদক সেবনের কথা স্বীকার করতে বাধ্য করেছে এনসিবি। তিনি মাদক নিতেন না। এমনকি মাদকচক্রের সঙ্গেও তাঁর যোগ নেই। যদিও এ কথা মানেনি এনসিবি। রিয়া নিজেই স্বীকার করেছেন দাবি করেছে এনসিবি। কিন্তু রিয়াও উকিলের সঙ্গে সহমত হয়ে জানিয়েছেন তাঁকে বাধ্য করা হয়েছে মাদক সেবনের কথা মানতে। তিনি মাদক নিতেন না। তবে রিয়ার কথার সত্যতা বিচার করে দেখা হচ্ছে না এখুনি।

    সুশান্তের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে ছিলেন রিয়া। সুশান্তের মৃত্যুর পর সব অভিযোগের আঙুল রিয়ার দিকেই ওঠে। সুশান্তের পরিবারও রিয়ার নামে অভিযোগ করেন। সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে ট্রোলড হতে থাকেন রিয়া। তিন দিন টানা জেরার পর গ্রেফতার করা হয় তাঁকে। সকলেই চান রিয়ার শাস্তি হোক। তবে সুশান্তের মৃত্যুর সঙ্গে এখনও কোনও তেমন যোগ পাইনি সিবিআই।

    Published by:Piya Banerjee
    First published: