• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • মাটিতে চাটাই পেতে শুয়ে, ও ডাল সবজি খেয়েই জেলের প্রথম রাত কাটল রিয়া চক্রবর্তীর !

মাটিতে চাটাই পেতে শুয়ে, ও ডাল সবজি খেয়েই জেলের প্রথম রাত কাটল রিয়া চক্রবর্তীর !

এর আগের দিন রাতে রিয়া ছিলেন এনসিবি হেড কোয়াটারে। সেখানেও তিনি সারা রাত পায়চারি করে কাটিয়েছেন।

এর আগের দিন রাতে রিয়া ছিলেন এনসিবি হেড কোয়াটারে। সেখানেও তিনি সারা রাত পায়চারি করে কাটিয়েছেন।

এর আগের দিন রাতে রিয়া ছিলেন এনসিবি হেড কোয়াটারে। সেখানেও তিনি সারা রাত পায়চারি করে কাটিয়েছেন।

  • Share this:

    #মুম্বই:  এনসিবি হেড কোয়ার্টার থেকে বাইকুলা জেলে গতকাল নিয়ে আসা হয় রিয়া চক্রবর্তীকে। বেল না হলে এখানেই ১৪ দিন থাকতে হবে তাঁকে। মঙ্গলবার রাতে তাঁর বেলের আবেদন খারিজ করে আদালত। আজ ফের জামিনের শুনানি হবে। গতকালই রিয়াকে স্থানান্তরিত করা হয় মহিলা সেলে। সম্ভবত তাঁর সঙহগেই থাকার কথা ছিল শিনা হত্যা কাণ্ডে গ্রেফতার ইন্দ্রাণীর। এর আগের দিন রাতে রিয়া ছিলেন এনসিবি হেড কোয়াটারে। সেখানেও তিনি সারা রাত পায়চারি করে কাটিয়েছেন। গত কাল বাইকুলা জেলে।

    রিয়াকে ১ নম্বর সেলে রাখা হয়েছে। যার তিন দিকে দেওয়াল। একদিকে গ্রিল থাকে। এখানেই দুপুরে ও রাতের সবজি, ডাল রুটি খান। কয়েদিদের শোয়ার জন্য চাটাই আর চাদর দেওয়া হয়। সেই চাটাই মাটিতে পেতে শুয়ে রাত কাটালেন রিয়া।

    গত মঙ্গলবার তিন দিন টানা জেরার পর গ্রেফতার করা হয়েছে বলিউড অভিনেত্রী ও সুশান্ত সিং রাজপুতের ‘প্রেমিকা’ রিয়া চক্রবর্তীকে ! গ্রেফতারের পরে রিয়ার মেডিক্যাল টেস্ট করা হয় ৷ জানা গিয়েছে, অন্য তিন গ্রেফতার অভিযুক্তদের সঙ্গে রিয়াকে আদালতে নিয়ে যাওয়া হবে ৷ খবর রয়েছে, রিয়ার বিরুদ্ধে প্রচুর তথ্য প্রমাণ পেয়েছে এনসিবি ৷ তবে রিয়ার করোনা টেস্ট নেগেটিভ এসেছে।

    রিয়ার আইনজীবীর চেষ্টা কোনও কাজে আসেনি। জামিনের আবেদন করা হলে, তা খারিজ করে দেওয়া হয় গতকাল। আপাতত ১৪ দিন হেফাজতেই কাটাতে হবে রিয়াকে। অন্যদিকে, জেরার মুখে রিয়ার ভাই ও সুশান্তের পরিচারক দীপেশ আগেই জানিয়ে ছিলেন, রিয়ার সঙ্গে মাদকচক্রের সংযোগ থাকার কথা ৷ এই সবের ওপর নির্ভর করেই নানা অভিযোগে রিয়াকে গ্রেফতার করা হয় ৷ সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু রহস্যের তদন্ত শুরু করেছে সিবিআই। তদন্ত শুরু হওয়ার পর থেকেই একের পর এক তথ্য সামনে উঠে আসতে শুরু করে। বলিউডের মাদকচক্র নিয়েও নানা তথ্য উঠে আসতে থাকে। সুশান্তের তৎকালীন প্রেমিকা রিয়ার বিরুদ্ধে বেশ কিছু অভিযোগ করা হয়। সুশান্তের পরিবার রিয়াকেই দায়ী করেছেন অভিনেতার মৃত্যুর জন্য। এর পর রিয়াকে জেরা শুরু হতেই রিয়া জানান সুশান্ত মাদক নিতেন। কিন্তু তাঁর কোনও যোগ নেই মাদকচক্রের সঙ্গে। তবে এনসিবির জেরার মুখে পড়ে রিয়া জানান তিনিও ড্রাগ নিতেন। মাদক সেবন করতেন নিয়মিত। সূত্রের এই খবর সামনে আসতেই চাঞ্চল্য ছড়ায়। গ্রেফতার করা হয় রিয়াকে। রিয়ার গ্রেফতারের পর সুশান্তের দিদি শ্বেতা ট্যুইটারে লেখেন, এবার সব সত্যি সামনে আসবে। আজ ফের আদালত জানাবেন রিয়াকে জামানত দেওয়া হবে কিনা।

    Published by:Piya Banerjee
    First published: