corona virus btn
corona virus btn
Loading

ঋষি কাপুরের মৃত্যুর পরে প্রিয় বন্ধু রাকেশ রোশনের বড়সড় সত্যের পর্দাফাঁস

ঋষি কাপুরের মৃত্যুর পরে প্রিয় বন্ধু রাকেশ রোশনের বড়সড় সত্যের পর্দাফাঁস
রাকেশ রোশন ও ঋষি কাপুর ৷ ফাইল ছবি ৷

ফেব্রুয়ারিতে একটি বিয়েবাড়িতে যেতেই তিনিই চিন্টুকে মানা করেছিলেন

  • Share this:

#মুম্বই: বলিউডে অন্যতম বর্ষীয়ান অভিনেতা ঋষি কাপুর গত ৩০ এপ্রিল প্রয়াত হয়েছেন ৷ তাঁর প্রয়াণে বলিউডে শোকের ছায়া নেমেছে ৷ বেশ লম্বা সময় ধরে ক্যানসারে ভুগছিলেন ৷ এরই মধ্যে হঠাৎ ভীষণ অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি ৷ তাঁর আকস্মিক মৃত্যুর খবর পরিবার থেকে ঘনিষ্ঠ বন্ধুমহলের সবাইকে কাঁদিয়েছে ৷ এবার ঋষি কাপুরের মৃত্যুতে অন্যতম ঘনিষ্ঠ বন্ধু রাকেশ রোশন মুখ খুললেন ৷ শোকার্ত রাকেশ রোশন ঋষি কাপুরের দিল্লি যাত্রার বিষয়ে বক্তব্য রাখতেই শোরগোল শুরু  হয় বলিউডে ৷

সম্প্রতি রাকেশ রোশন তাঁর ঘনিষ্ঠ বন্ধু ঋষি কাপুরের মৃত্যু নিয়ে সংবাদ মাধ্যমে একটি বক্তব্য পেশ করতেই কেঁপে ওঠে সোশ্যাল মিডিয়া ৷ তিনি জানান, তিনিও ক্যানসারে আক্রান্ত ছিলেন ৷ যদিও তাঁর ক্যানসারের প্রকৃতি আলাদা ছিল ৷

সংবাদমাধ্যমকে রাকেশ রোশন জানান, ফেব্রুয়ারি মাসে চিন্টু (ঋষি কাপুর) আমাকে বলে দিল্লিতে একটি বিয়েবাড়ির নিমন্ত্রণে অংশ নিতে যাচ্ছে ৷ আমি শুনেই ঋষি কাপুরকে মানা করেছিলাম ৷ বলেছিলাম, সংক্রমণের সম্ভাবনা রয়েছে ৷ যেও না দিল্লি ৷ কিন্তু ঋষি কথা শোনেনি ৷’

রাকেশ রোশনের কথাই যেন অক্ষরে অক্ষরে মিলে গেল,  দিল্লিতে গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন ঋষি ৷ হাসপাতালেও ভর্তি হয়েছিলেন ৷ রাকেশ রোশন মন খারাপ করে বলেছেন আমার কথা শুনতে পারত চিন্টু ৷ দিল্লিতে গিয়ে বেশ বড়সড় ভুল করল ঋষি  ৷

 সংক্রমণের কারণেই ফেব্রুয়ারিতে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন ঋষি কাপুর ৷ পিটিআইকে তিনি জানিয়েছিলেন তাঁর শরীরে সংক্রমণ দেখা দিয়েছে ৷ চিকিৎসাও চলছে ৷ তিনি আরও যোগ করেছিলেন হয়ত দূষণের কারণেই সেই সংক্রমণ দেখা দিয়েছিল ৷ ফেব্রুয়ারির পরে এপ্রিলের শেষ সপ্তাহে ফের অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন ঋষি কাপুর ৷

কিন্তু এইবার হার মানতে হয়েছে রাকেশ রোশনের এই লড়াকু বন্ধুকে ৷ ঋষির মৃত্যুতে সারা দেশের মানুষ বড়সড় আঘাত পেয়েছেন ৷ ঋষি কাপুর পৃথিবীকে আলবিদা করেছেন ঠিকই, তবে চিরকাল বেঁচে থাকবেন সবার মনে  ৷ তাঁর মন জয় করা অভিনয় দিয়ে, কাল থেকে মহাকালে ৷ এই বিশ্বাসে বিশ্বাসী প্রিয় বন্ধু রাকেশ রোশন ৷

First published: May 3, 2020, 7:29 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर