Buddhadeb Dasgupta demise: প্রয়াত পরিচালক বুদ্ধদেব দাশগুপ্ত, অপূরণীয় ক্ষতি, পরিবারের প্রতি সমবেদনা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের

প্রয়াত চলচ্চিত্র পরিচালক বুদ্ধদেব দাশগুপ্ত।

বুদ্ধদেব দাশগুপ্তের (Buddhadeb Dasgupta death) মৃত্যুতে তিনি খুবই মর্মাহত, শোকবার্তায় জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷

  • Share this:

    #কলকাতা: বাংলা তথা ভারতীয় চলচ্চিত্র জগতে নক্ষত্র পতন৷ প্রয়াত বর্ষীয়ান পরিচালক বুদ্ধদেব দাশগুপ্ত (Buddhadeb Dasgupta)৷ তিনি একাধারে পরিচালক ও কবি৷ তাঁর সৃষ্টির মধ্যে দিয়ে চিরকাল দর্শক ও পাঠক মনে থেকে যাবেন তিনি৷ তাঁর মৃত্যুতে গভীর শোকপ্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee condolences) ৷ বুদ্ধদেব দাশগুপ্তের মৃত্যুতে তিনি খুবই মর্মাহত, শোকবার্তায় জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ বাংলার চলচ্চিত্রের ভাবধারা বদলের পিছনে তিনি ছিলেন অন্যতম কান্ডারী (Buddhadeb Dasgupta death)এবং তাঁর চলে যাওয়া এক অপূরণীয় ক্ষতি৷ তাঁর পরিবার, আত্মীয় এবং গুণমুগ্ধদের প্রতি সমবেদনা, শোকবার্তা লিখেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

    পরাধীন ভারতে ১৯৪৪ সালে পুরুলিয়ার আরায় জন্ম বুদ্ধদেব দাশগুপ্তর। আমৃত্যু পুরুলিয়ার অনুষঙ্গ ফিরে এসেছে তাঁর প্রতিটি কাজে। তাঁর বহু ছবির শ্যুটিং-এর জন্য পুরুলিয়াকে বারেবারে বেছে নিয়েছিলেন পরিচালক৷ তাঁর পেশাগত জীবন শুরু করেন অধ্যাপনা দিয়ে। অর্থনীতির তত্ত্ব আর বাস্তব জীবনের দূরত্বই তাঁকে সিনেমায় টেনে আনে। বুদ্ধদেব কলকাতা ফিল্ম সোসাইটির সঙ্গে যুক্ত হন। প্রথমেই বানান একটি ১০ মিনিটের তথ্যচিত্র।

    পূর্ণদৈর্ঘ্যের সিনেমা হিসেবে 'দূরত্ব' তাঁকে প্রথম খ্যাতি দেয়। মৃণাল সেন, ঋত্বিক ঘটক, সত্যজিৎ রায়-এই ত্রয়ী বাংলা ছবিতে যে সাংস্কৃতিক রেনেসাঁ এনেছিলেন তার যোগ্য উত্তরাধিকারী ছিলেন বুদ্ধদেব দাশগুপ্ত। অন্তত ১১টি ছবিরর জন্য নানা সময়ে জাতীয় পুরস্কার পেয়েছেন। লোকার্নো, কান, বার্লিনের মতো নামজাদা আন্তর্জাতিক ফেস্টিভ্যালে তাঁর ছবি প্রশংসিত হয়েছে। বাঙালি তাঁকে মনে রাখবে কমলকুমার মজুমদারের গল্প অবলম্বনে 'নিম অন্নপূর্ণা' বা 'তাহাদের কথা'-র মতো কালজয়ী ছবির জন্য।

    Published by:Pooja Basu
    First published: