Mumbai: লকডাউনে বেরিয়ে সোজা পুলিশের খপ্পরে নাসিরুদ্দিন শাহ, দেখুন ভিডিও

বান্দ্রায় (Bandra) থাকায় নাসিরউদ্দিন এবং রত্না পাঠক শাহকে প্রায়ই জনপ্রিয় কার্টার রোডের (Curter road) দিকে পায়চারি করতে লক্ষ্য করা যায়।

বান্দ্রায় (Bandra) থাকায় নাসিরউদ্দিন এবং রত্না পাঠক শাহকে প্রায়ই জনপ্রিয় কার্টার রোডের (Curter road) দিকে পায়চারি করতে লক্ষ্য করা যায়।

  • Share this:

#মুম্বই:

প্রবীণ বলিউড অভিনেতা নাসিরউদ্দিন শাহ (Naseeruddin Shah) বুধবার সান্ধ্যকালীন ভ্রমণে বেরিয়েছিলেন। কিন্তু মুম্বই পুলিশ (Mumbai Police) তাঁকে বাধা দিতেই শীঘ্রই ফিরে যান তিনি। এদিন ই-টাইমস (ETimes)-এর ক্যামেরায় পালি হিলে (Pali Hill) সান্ধ্যভ্রমণের সময় এই প্রবীণ অভিনেতা ধরা পড়েন। যদিও পুলিশের দেওয়া নির্দেশ মেনে তৎক্ষনাৎ নাসিরউদ্দিন শাহকে চলে যেতে দেখা গিয়েছে। ই-টাইমস-এর সূত্র অনুসারে জানা যায় যে, যখন পুলিশ কোভিড ১৯-এর বিধিনিষেধের কারণে সবাইকে রাস্তায় হাঁটাচলা এড়ানোর নির্দেশনা দেওয়া শুরু করে, সে সময় নাসিরউদ্দিন শাহ কোনও দ্বিধা ছাড়াই সঙ্গে সঙ্গে ফিরে গিয়েছিলেন।

একথা ঠিক যে নাসিরুদ্দিন শাহ প্রায়শই সন্ধ্যায় সপ্তাহে দু'বার বা তিনবার হাঁটতে বের হন। গত বছরও কোভিড ১৯ মহামারীর কারণে যখন সারা দেশে লকডাউন চলছিল সেই সময় সন্ধ্যায় প্রবীণ অভিনেতা এবং তাঁর স্ত্রী রত্না পাঠক শাহকে (Ratna Pathak Shah) রাস্তায় হাঁটতে দেখা গিয়েছে। বান্দ্রায় (Bandra) থাকায় নাসিরউদ্দিন এবং রত্না পাঠক শাহকে প্রায়ই জনপ্রিয় কার্টার রোডের (Curter road) দিকে পায়চারি করতে লক্ষ্য করা যায়।

উল্লেখ্য, নাসিরউদ্দিন শাহ, যিনি অসংখ্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কার পেয়েছেন, তিনি শুধুমাত্র চলচ্চিত্রের ক্ষেত্রেই নয়, একজন জনপ্রিয় নাট্যব্যক্তিত্বও বটে। নাটকের সঙ্গে তাঁর ওতপ্রোত সম্পর্ক। ২০২০ সালে মহামারীর কারণে দীর্ঘ আট মাস পরে মঞ্চে ফিরেছিলেন এই অভিনেতা। তিনি গ্যাব্রিয়েল ইমানুয়েলের (Gabriel Emanuel) আইনস্টাইন (Einstein) উপস্থাপনা করতে পৃথ্বী থিয়েটারে (Prithvi Theatre) ফিরে এসেছিলেন, যা অভিনেত্রী-স্ত্রী রত্না পাঠক শাহ পরিচালনা করেছিলেন। লকডাউন চলাকালীন তিনি অনলাইন মাধ্যমেও অভিনয়ও করেছিলেন। আর অনলাইন অভিনয়ের বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে তিনি বিটিকে (BT) বলেছিলেন, "মানুষের সামনে মঞ্চে অভিনয় করার একটা আলাদা উত্তেজনা আছে, তবে দর্শকদের ছাড়া পারফর্ম করার নিজস্ব চ্যালেঞ্জ এবং সুবিধা রয়েছে। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে, আমরা চ্যালেঞ্জগুলি জয় করব এবং সুবিধাগুলি সম্পূর্ণরূপে খুঁজে বের করব কারণ অনলাইনে পারফর্ম করা ভবিষ্যতের একটি অনিবার্য অংশ বলে মনে হচ্ছে।"

অন্য দিকে, নাসিরুদ্দিন শাহকে বার বার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে প্রতিবাদ করতে দেখা গিয়েছে। তা কখনও কৃষি আইন, তো আবার কখনও লাভ জিহাদ। চুপ থাকেননি নাগরিকত্ব আইন নিয়েও। কৃষকদের আন্দোলনের সময়ে তাঁদের সমর্থন করতেও তিনি পিছ-পা হননি। বরাবর সাহসিকতার সঙ্গে নিজস্ব মতামত প্রকাশ করেছেন তিনি।

First published: