Kriti Sanon: বাস্তব জীবনে মা হতে চান না কৃতি শ্যানন! জানালেন আতঙ্কের কথা

photo source collected

Kriti Sanon: কৃতির বক্তব্য যে তিনি আদৌ মা হতে চাইবেন কি না সেই বিষয়ে সন্দেহ আছে!

  • Share this:

#মুম্বই: আগামী ছবি মিমিতে (Mimi) এক গর্ভবতী মায়ের ভূমিকায় অভিনয় করছেন কৃতি শ্যানন (Kriti Sanon)। তবে বাস্তব জীবনে না কি মা হওয়ার কথা ভাবলেই তিনি ভয়ে কাঠ হয়ে যান। তখন আদৌ তিনি কী করবেন সেটা জানেন না কৃতি। অভিনেত্রী বলেন যে ছবিতে সন্তানের জন্ম দেওয়ার দৃশ্যটি সব চেয়ে কঠিন ছিল তাঁর পক্ষে। দৃশ্যটি ফুটিয়ে তোলার সময় খুব নার্ভাস ছিলেন তিনি।

মিমি একটি সাহসী ও মুক্তমনা মেয়ে। যে আর্থিক প্রয়োজনে সারোগেসির মাধ্যমে মা হওয়ার পথ বেছে নেয়। এই চরিত্রেই কাজ করছেন কৃতি। কৃতি ছাড়াও ছবিতে আছেন পঙ্কজ ত্রিপাঠী (Pankaj Tripathi), সুপ্রিয়া পাঠক (Supriya Pathak), মনোজ পাওয়া (Manoj Pahwa) প্রমুখ। লক্ষণ উতেকার (Laxman Utekar) পরিচালিত এই ছবি এই মাসেই ৩০ তারিখে মুক্তি পাবে সিনেমা হল এবং ওটিটি প্ল্যাটফর্মে।

চরিত্র ফুটিয়ে তোলার জন্য YouTube-এ সন্তানের জন্ম দেওয়ার অনেক ভিডিও দেখেছেন কৃতি। আর সেগুলো দেখে রীতিমতো ভয়ে হাত-পা পেটের ভিতর সেঁধিয়ে গিয়েছে তাঁর। বাস্তব জীবনে তিনি যখন মা হবেন, তখন কী হবে এই ভেবেই ভয়ে অস্থির তিনি। এই সব দেখে শুনে কৃতির বক্তব্য যে তিনি আদৌ মা হতে চাইবেন কি না সেই বিষয়ে সন্দেহ আছে!

ছবির দ্বিতীয় ভাগে দেখা যাবে যে মা হতে চলেছেন মিমি। আর এই জায়গাটাই সব চেয়ে কঠিন মনে হচ্ছে কৃতির। কারণ তিনি এর সঙ্গে নিজেকে মেলাতে পারছেন না। মা হওয়া মানে শুধুই শারীরিক পরিবর্তন নয়, এটা অনেকাংশে মানসিক পরিবর্তনও। শারীরিক পরিবর্তন বোঝাতে ১৫ কেজি ওজন বাড়িয়েছেন কৃতি। কিন্তু মানসিক পরিবর্তন ফুটিয়ে তোলা আরও কঠিন। সেটা করতে বেশ কষ্ট হয়েছে অভিনেত্রীর।

View this post on Instagram

A post shared by Kriti (@kritisanon)

বাচ্চা ডেলিভারির দৃশ্যে অনেক সময় বলিউডের অন্যান্য ছবিতে কিছুটা কমিক রিলিফ রাখা হয়। দর্শক যাতে ভয় পেয়ে না যান সেই জন্যই এটা করা হয়। কিন্তু পরিচালক এখানে কৃতিকে বলেছিলেন যে এমনভাবে এই দৃশ্য ফুটিয়ে তুলতে হবে যাতে একই কষ্ট দর্শকও যেন অনুভব করতে পারেন।

জাতীয় পুরষ্কার জয়ী একটি মরাঠি ছবির রিমেক হচ্ছে মিমি। মিমি ছাড়াও ভেড়িয়া (Bhediya), বচ্চন পাণ্ডে (Bachchan Pandey) আর আদিপুরুষেও (Adipurish) কাজ করছেন কৃতি।

Published by:Piya Banerjee
First published: