Shahrukh Khan school life: শাহরুখের স্কুলজীবনের এই কুকীর্তি জানা আছে কি?

Shahrukh Khan

দ্য ইনার ওয়ার্ল্ড অফ শাহরুখ খান (The Inner World Of Shah Rukh Khan) নামে এক তথ্যচিত্রের জন্য অভিনেতা তাঁর স্কুলে যান।

  • Share this:

#মুম্বই: তিনি বি-টাউনের কিং খান। বছরের পর বছর বলিউডে চলেছে তাঁর রাজত্ব। দিলওয়ালে দুলহনিয়ে লে যায়েঙ্গে (Dilwale Dulhania Le Jayenge) হোক বা ডন (Don), সব ছবিতেই তিনি একের পর এক মাত দিয়েছেন। বড় পর্দায় তাঁর ছবির অপেক্ষা করেনি এমন মানুষ হয় তো পাওয়া মুশকিল। কিন্তু বলিউডের বিখ্যাত তারকার তকমা পাওয়ার আগে নয়াদিল্লিতে বেড়ে ওঠেন শাহরুখ খান (Shah Rukh Khan)।

সেন্ট কলম্বা স্কুলে (St. Columba's School) প্রাথমিক পড়াশোনা শেষ করেন অভিনেতা। পড়াশোনা এবং খেলাধুলো দু'টোতেই তিনি ছিলেন তুখোড়। যদিও বর্তমানে অভিনেতা থাকেন মুম্বইয়ে। তবে দিল্লি যাওয়ার কথা ভুলে যান না তিনি। প্রায়শই তাঁকে দিল্লিতে আসতে দেখা যায়। দ্য ইনার ওয়ার্ল্ড অফ শাহরুখ খান (The Inner World Of Shah Rukh Khan) নামে এক তথ্যচিত্রের জন্য অভিনেতা তাঁর স্কুলে যান। সেখানে স্কুলপ্রাঙ্গণ যেমন তিনি ঘুরে দেখেন, তেমনই বেশ কয়েকজন পুরনো পরিচিতদের সঙ্গে তাঁর দেখাও হয়।

কিং খানের সঙ্গে আলাপচারিতার সময় এক ব্যক্তি তাঁকে মডার্ন স্কুলের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে জড়িত একটি ঘটনার কথা মনে করান। ওই ব্যক্তি জিজ্ঞাসা করেন, “মনে আছে তুমি মডার্ন স্কুলের বাচ্চাদের দাঁত ভেঙে দিয়েছিলে”? এই কথা শুনে শাহরুখ হেসে ফেলেন। অভিনেতাকে স্কুলের পরিচালন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করতেও দেখা যায়। তাঁদের তিনি আশ্বাস দেন যে, তিনি আবারও আসবেন এবং এবার পুত্র আরিয়ান খানকে (Aryan Khan) সঙ্গে নিয়ে আসবেন।

Copy Learn more about embedding Facebook videos on our

প্রসঙ্গত, কলম্বা স্কুলে পড়াশোনার সময় শাহরুখ খান তার পাশাপাশি ক্রীড়া এবং নাটকে অংশগ্রহণ করেন। ক্রীড়াপ্রতিযোগিতায় তিনি সোয়ার্ড অফ অনার পুরস্কার পান। স্কুল জীবন শেষে ১৯৮৫ সাল থেকে ১৯৮৮ সাল পর্যন্ত হংসরাজ কলেজে পড়াশোনা করেন কিং খান। কলেজ থেকে স্নাতক স্তরে ডিগ্রি অর্জন করার পর জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া (Jamia Millia Islamia) বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন এবং সেখান থেকে ১৯৮৮ সালে স্নাতকস্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। মা ও বাবার মৃত্যুর পর ১৯৯১ সালে তিনি মুম্বইয়ে চলে যান। তার পরেই বলিউডে পদার্পণ করে খ্যাতির শিখরে পৌঁছন।

Published by:Pooja Basu
First published: