‘নাম হামারা হি খারাব হোগা’ হঠাৎ কেন মাঝরাতে এ ধরণের কথা বললেন Arjun Kapoor

Photo- File

রাত বারোটায় বাংলোর সামনে ঢল পাপারাৎজিদের! ব্যাপারটা কী? গোপন জীবন কী ভাবে লুকালেন অর্জুন কাপুর?

  • Share this:

#মুম্বই: দীর্ঘদিন ধরেই পাপারাৎজিদের সঙ্গে একটা ভালো সম্পর্ক বজায় রেখেছেন বলিউড অভিনেতা অর্জুন কাপুর (Arjun Kapoor)। প্রায়শই তাঁদের অভিবাদন জানাতে দেখা যায় অভিনেতাকে। এমনকি তাঁরা যথাযথ আচরণ না করলেও তা জানান তিনি।

এদিন এক নতুন সাক্ষাৎকারে অর্জুন বলেছেন যে, তিনি বুঝতে পারছেন এই কঠিন মুহূর্তেও চিত্রগ্রাহকরা তাঁদের জীবিকা নির্বাহের চেষ্টা করছেন। তিনি যখনই পারেন, তখনই তাঁদের ফটো তোলার জন্য পোজ দিয়ে থাকেন। কিন্তু তাঁদেরও সকলের গণ্ডি প্রসঙ্গে সচেতন ও শ্রদ্ধাশীল হওয়া উচিত। কিন্তু যখন তারা এই বিষয়টিকে গুরুত্ব দেন না তখন তাঁদের সে বিষয়ে জানিয়ে দিতে হয়।

Zoom-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে অর্জুন কাপুর বলেন, "আমি এর প্রশংসা করি যে, তাঁরা যা করছেন তা নিজের জন্য জীবিকা নির্বাহের চেষ্টায় করছেন। আমি যখনই পারি, আমি তাঁদের জন্য পোজ দিয়েছি। কারণ ছবি বিক্রি করতে এবং তাঁদের দিনটি তৈরি করতে তা সাহায্য করে। তারা সময়ের সঙ্গে সঙ্গে গণ্ডি বজায় রাখতে শিখেছেন এবং তাঁরা বেশ শ্রদ্ধাশীলও বটে। এখন, আমাদের মধ্যে সেই সমীকরণ আছে। আজ, আমি যখন তাঁদের বলি ইয়ার আজ মত লো (আজ ছবি তুলবেন না) তার পরও যদি তাঁরা যদি ছবি তোলেন এবং তার পর সেই ছবি দেখে ফিল্মি লুক লাগে, তখন আমরা না বলতে পারি না। এমনটা নয় যে, তাঁরা এটা বুঝতে পারেন না। একবার বা দু'বার যখন তারা বুঝতে পারেন না যে তাঁরা সীমা অতিক্রম করেছেন, তখন আমার মনে হয় বড় ভাই বা বন্ধু হিসাবে আমি তাঁদের বলতেই পারি আরে ইয়ার এটা করবেন না। আপনি রাত ১২টার সময় চিৎকার করে কারও বাড়িতে প্রবেশ করতে পারেন না। অন্য লোকেরা অভিযোগ করবে, আমার বদনাম হবে। আর এটাই একমাত্র সময়, যখন আমি প্রতিক্রিয়া দিই। বাকি সময় আমি বেশ ঠাণ্ডা মেজাজেই থাকি।”

বছরের পর বছর অর্জুন কাপুর এবং মালাইকা অরোরার (Malaika Arora) সম্পর্ক নিয়ে বি-টাউনে জল্পনা চলছিল। তাঁরা একে অপরের সঙ্গে ডেটও করেছেন। তবে কোনও রকম লুকোচুরি না করেই নিজেদের সম্পর্ক প্রকাশ্যে আনেন তাঁরা। তখনও পাপারাৎজিদের ক্যামেরায় ধরা পড়েছেন অর্জুন ও মালাইকা। স্বেচ্ছায় নিজেদের ছবিও তুলতে দেখা যায় মালাইকা ও অর্জুনকে। এক সংবাদমাধ্যমের সামনে অর্জুন বললেন, "আমরা একসঙ্গে প্রকাশ্যে এলাম কারণ সংবাদমাধ্যম আমাদের সেই সম্মান দিয়েছে। সংবাদমাধ্যম সবাই আমাদের সম্মান করেছে, শ্রদ্ধা রেখেছে, সৎ-ও ভদ্রও থেকেছে। তাই জন্যই আমরা স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করছি।”

Published by:Debalina Datta
First published: