• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • সরোজের ফোন ধরেননি সলমন, ভাইজানের ব্যবহারে ক্ষুন্ন হয়েছিলেন মাস্টারজি!

সরোজের ফোন ধরেননি সলমন, ভাইজানের ব্যবহারে ক্ষুন্ন হয়েছিলেন মাস্টারজি!

তাবড় তাবড় স্টারদের শিক্ষা যেমন তিনি দিতেন, তেমনই প্রয়োজনে শাসনও করতেন তাঁদের । সেই মাস্টারজিই একবার রেগে গিয়েছিলেন সলমন খানের উপর । তাঁর ব্যবহারের জন্য ।

তাবড় তাবড় স্টারদের শিক্ষা যেমন তিনি দিতেন, তেমনই প্রয়োজনে শাসনও করতেন তাঁদের । সেই মাস্টারজিই একবার রেগে গিয়েছিলেন সলমন খানের উপর । তাঁর ব্যবহারের জন্য ।

তাবড় তাবড় স্টারদের শিক্ষা যেমন তিনি দিতেন, তেমনই প্রয়োজনে শাসনও করতেন তাঁদের । সেই মাস্টারজিই একবার রেগে গিয়েছিলেন সলমন খানের উপর । তাঁর ব্যবহারের জন্য ।

  • Share this:

    #মুম্বই: বলিউডে ফের নক্ষত্র পতন । এ বার চলে গেলেন টিনসেল টাউনের সবার প্রিয় মাস্টারজি । শুক্রবার গভীর রাতে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত হন বিখ্যাত কোরিওগ্রাফার সরোজ খান । ১৭ জুন থেকে তিনি ভর্তি ছিলেন বান্দ্রার গুরু নানক হাসপাতালে ৷ নিজের হাতে করে যিনি বলিউডের তাবড় তাবড় তারকাদের গড়েছিলেন, আজ তিনিই নেই । তিন বার জাতীয় পুরস্কার ও আট বার ফিল্মফেয়ার সম্মানে সম্মানিত হয়েছিলেন সরোজ। পুরুষ তান্ত্রিক বলিউডে তাঁর উজ্জ্বল উপস্থিতি এক কথায় ছিল অনন্য।

    বলিপাড়ার সকলের ভালবাসার মাস্টারজি ছিলেন তিনি । সে সময় বলিউডে একটি প্রচলন ছিল। কোরিওগ্রাফারদের বলা হত মাস্টারজি। টিনসেল টাউনের তিনিই শেষ মাস্টারজি। সকলেই তাঁকে শ্রদ্ধা করতেন । তাবড় তাবড় স্টারদের শিক্ষা যেমন তিনি দিতেন, তেমনই প্রয়োজনে শাসনও করতেন তাঁদের ।

    সেই মাস্টারজিই একবার রেগে গিয়েছিলেন সলমন খানের উপর । সলমনের এক ভক্ত ছিলেন বিশেষভাবে সক্ষম । হাঁটাচলার ক্ষমতা ছিল না তাঁর । তিনি সরোজজি’কে অনুরোধ করেছিলেন একবার সলমনের সঙ্গে তাঁর কথা বলাতে । সরোজ কান সলমনকে ফোন করেন । কিন্তু তিনি ব্যস্ত থাকায় তিনি নিজেরই এক টেকনিশিয়ানকে ফোনটা সলমনের হাতে দিতে বলেন । ওই টেকনিশিয়ান তখন সল্লু ভাইয়ের সঙ্গেই কাজ করছিলেন । কিন্তু মাস্টারজির ফোন শুনেও সলমন সেই ফোন ধরতে অস্বীকার করেন । এতেই দুক্রখ পেয়েছিলেন সরোজ ।

    Published by:Simli Raha
    First published: