অয়ন না সামলালে এত দিনে বাচ্চাদের বাবা হয়ে যেতেন, নিজেই কবুল করছেন রণবীর!

আপনি কি জানেন, রিয়েল লাইফের রণবীর চেয়েছিলেন একবার নিয়মিত ও সাদামাটা একটা জীবন?

আপনি কি জানেন, রিয়েল লাইফের রণবীর চেয়েছিলেন একবার নিয়মিত ও সাদামাটা একটা জীবন?

  • Share this:

#মুম্বই: মহেশ ভাটের (Mahesh Bhatt) কথায়, রণবীর কাপুর (Ranbir Kapoor) নাকি ‘লেডিস ম্যান’, যাঁর জীবনে লেগেই থাকে নিত্যনতুন প্রেমের আনাগোনা। কিন্তু বলিউডে তাঁর প্রেমে হাবুডুবু খাওয়ার মতো রমণীর অভাব না থাকলেও রণবীরের ভাবনা ছিল একেবারে অন্যরকম। এমনকি ইয়ে জওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি (Yeh Jawaani Hai Deewani) ছবিতেও রণবীরের যে চরিত্র দর্শকের মন কেড়েছে সেই চরিত্র থেকেও একেবারে আলাদা রিয়েল লাইফের রণবীর।

একটা সময় ছিল, যখন রণবীর কাপুর ইয়ে জওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি থেকে তাঁর চরিত্র বানির (Bunny), যিনি কবির থাপার (Kabir Thapar) নামেও পরিচিত, এর মতাদর্শকে একেবারেই অনুসরণ করতে পারেননি। একটা সহজ চাকরি, বিয়ে বা বাচ্চাদের ঝক্কি না নিয়ে নিজের জীবন নিজের মতো করে কাটাতে চান একজন মানুষ, ছবিত বানি চরিত্রটা ছিল কিছুটা এমনই। তবে আপনি কি জানেন, রিয়েল লাইফের রণবীর চেয়েছিলেন একবার নিয়মিত ও সাদামাটা একটা জীবন?

ইয়ে জওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি ছবির ট্রেলার লঞ্চের সময় বক্তব্য রাখেন রণবীর। সেই সময় তাঁর বয়স ছিল ৩০ বছর। অভিনেতা জানিয়েছিলেন যে, তিনি বিয়ে করতে চান এবং ২০২০ সালের মাঝামাঝি সময়ের মধ্যে তিনি সেটেলও হয়ে যেতে চান। যাই হোক, তিনি আরও বলেছিলেন যে, পরিচালক অয়ন মুখোপাধ্যায়ই (Ayan Mukerji) তাঁর এমন মনোভাব বদলাতে সাহায্য করেছিলেন।

রণবীর পরিচালককে কৃতিত্ব দেওয়ার আগে বলেছিলেন, "আমরা এখন এমন সময়ে আছি যেখানে আমাদের বিবাহের বয়সসীমা বেঁধে দেওয়া একেবারেই উচিত নয়। যখন কেউ প্রেমে পড়ে, তখন বিয়ের বিষয়টি আসে, বাচ্চা জন্ম দেওয়ার বিষয়টি আসে। আমি মনে করি সব কিছু প্রাকৃতিক ভাবে এগোনো ভালো।"

অভিনেতা আরও বলেন, "এটি অয়নের থেকে পাওয়া আমার শিক্ষা। চার বছর আগে যখন আমার তাঁর সঙ্গে পরিচয় হয়, তখনই আমার মধ্যে বিয়ে করার একটা তাগিদ ছিল। আমি বলেছিলাম, আমি বিয়ে করতে চাই, বিয়ে করতে চাই, আমি সন্তান চাই। তখন তিনি আমাকে বলেছিলেন, আপনি একটু স্থির হন, আপনি কেবল নিজের কেরিয়ার শুরু করছেন, মানুষের সঙ্গে দেখা করুন, আগে নিজের জীবনকে উপভোগ করুন তার পর বিয়ে করবেন।”

Published by:Simli Raha
First published: