corona virus btn
corona virus btn
Loading

অদ্ভুত সমাপতন! মাত্র ১ মাসের মধ্যেই সুশান্তের ঘনিষ্ঠ ৩ বন্ধুও আত্মহত্যা করেছেন!

অদ্ভুত সমাপতন! মাত্র ১ মাসের মধ্যেই সুশান্তের ঘনিষ্ঠ ৩ বন্ধুও আত্মহত্যা করেছেন!

গত এক মাসের মধ্যেই সুশান্তের তিন ঘনিষ্ঠ বন্ধুর আত্মহত্যা, শুধুই কী কাকতালীয়?

  • Share this:

#মুম্বই: কী হয়েছিল ছেলেটার? কেন চোখ ভরা স্বপ্ন আর অপূর্ণ অনেক সাধ নিয়ে এ ভাবে চলে গেল? এই প্রশ্নই যেন থামছে না দেশবাসীর । আর সেখানেই বারবার উঠে আসছে একাধিক কারণ । মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন সুশান্ত । এই তত্ত্ব এখন সকলের জানা । কিন্তু সেই গভীর অবসাদের পিছনে কারণ কী? তবে কি বলিউডের হৃদয়হীনতা, স্বজনপোষণের বাড়বাড়ন্ত, এলিট ক্লাসের উন্নাসিকতা এসবই কী ধীরে ধীরে সুশান্ত সিং রাজপুতকে ঠেলে দিল মৃত্যুর দিকে ? কাঠগোড়ায় এখন বলিউডের এই নেপোটিজম-ই ৷

তবে কারও কারও মৃত্যুতে হয়তো এমন অদ্ভুত সমাপতনই লেখা থাকে ৷ সুশান্তের মৃত্যুর সঙ্গে আগের মৃত্যুগুলির হয়তো কোনও সম্পর্ক নেই ৷ কোনও সংযোগ থাকলেও তা তদন্ত স্বাপেক্ষ ৷ এ বিষয়ে এখনও কোনও উপযুক্ত তথ্যপ্রমাণ পাওয়া যায়নি ৷ তবে গত এক মাসের মধ্যেই সুশান্তের তিন ঘনিষ্ঠ বন্ধুর আত্মহত্যা, শুধুই কী কাকতালীয়?

সুশান্তের বন্ধু মনমীত গ্রেওয়াল, ১৫ মে আত্মহত্যা করেন, নিজের বাড়িতেই ৷ এরপর প্রেক্ষা মেহতাও গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেন ২৬ মে, মধ্যপ্রদেশে ৷ সুশান্তের প্রাক্তন ম্যানেজার দিশা সালিয়ান ১৪ তলার উপর থেকে ঝাঁপ দেন সুশান্তের মৃত্যুর ঠিক পাঁচ দিন আগে, ৯ জুন ৷ এরপর ১৪ জুন সকালে নিজেকে শেষ করে দেন সুশান্ত সিং রাজপুত ৷

যদিও যতদূর জানা গিয়েছে, প্রত্যেকেরই আত্মহত্যার কারণ পৃথক ছিল ৷ মনমীত দীর্ঘদিন ধরে কাজ পাচ্ছিলেন না ৷ লকডাউন যেন তাঁর মনোবল একেবারে ভেঙে দেয় ৷ দীর্ঘদিন ধরেই অবসাদে ভুগছিলেন তিনি ৷ এমনকি বাড়ি ভাড়া দেওয়ার টাকাও ছিল না তাঁর কাছে ৷

কেরিয়ার নিয়ে চিন্তিত ছিলেন টেলি অভিনেত্রী প্রেক্ষা মেহতাও ৷ একাকীত্বতা গ্রাস করেছিল তাঁকেও ৷

লকডাউনে কর্মক্ষেত্রে নানারকম সমস্যায় ভুগছিলেন দিশা ৷ যে কারণে অবসাদ গ্রাস করেছিল তাঁকেও ৷

অবসাদের শিকার হলেন সুশান্তও ৷ ১৪ জুন, নিজের বান্দ্রার ফ্ল্যাটের বেডরুমে গলায় দড়ি দেন অভিনেতা ৷ পরপর নিজের ঘনিষ্ঠ বন্ধুদের মৃত্যুই কি তাঁকে অন্য পৃথিবীর দিকে আরও কয়েকটা ধাপ এগিয়ে দিল? প্রশ্নটা থেকেই যাচ্ছে....

Published by: Simli Raha
First published: June 18, 2020, 5:06 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर