বারবার বেআইনি নির্মাণের পথে হেঁটে অভিযুক্ত সোনু সুদ, বলছে বৃহণ্মুম্বই কর্পোরেশন

বারবার বেআইনি নির্মাণের পথে হেঁটে অভিযুক্ত সোনু সুদ, বলছে বৃহণ্মুম্বই কর্পোরেশন

এখন যেখানে তিনি হোটেল বানিয়েছেন, সেটা বসতি এলাকা এবং সেখানে বানিজ্যিকরণের কোনও অনুমতি ছিল না।

এখন যেখানে তিনি হোটেল বানিয়েছেন, সেটা বসতি এলাকা এবং সেখানে বানিজ্যিকরণের কোনও অনুমতি ছিল না।

  • Share this:

    #মুম্বই: মহাবিপাকে পড়েছেন ‘মসিহা’ সোনু সুদ ৷ করোনা কালে যেভাবে মানুষের সাহায্যের জন্য এগিয়ে এসেছিলেন সোনু, তা সত্যিই প্রশংসাযোগ্য ৷ লক্ষ লক্ষ মানুষকে পৌঁছে দিয়েছিলেন নিজের বাড়িতে ৷ কাউকে ঘর দিয়েছেন, কাউকে দিয়েছেন চাকরি ৷ বিহারে তো তাঁর মূর্তিও গড়া হয়েছে ৷ তৈরি হয়েছে তাঁর নামে মন্দির ৷ সেই সোনুকেই এবার বেআইনি কাজে অভিযুক্ত করেছি বিএমসি! একবার নয়, তিনি বারবার বেআইনি নির্মাণ করছেন, এমনই অভিযোগ তাঁর বিরুদ্ধে।

    তা হঠাৎ কী হলে সোনুর ? সোনু নাকি তাঁর বাড়িকে হোটেলে রূপান্তরিত করেছেন ৷ আর সেই কারণেই বৃহণ্মুম্বই পুরনিগম থানায় অভিযোগ জানিয়েছেন সোনুর নামে !অভিযোগ অনুযায়ী, সোনু তাঁর জুহুর ৬ তলা ব্লিন্ডিংয়ের বাড়ি শক্তি সাগরকে হোটেল বানিয়েছেন বিএমসি-কে না জানিয়েই ৷ বেআইনি এই নির্মান ভেঙে ফেলার নির্দেশ দেয় বিএমসি। পূর্বে ২ বার এমন নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। সোনু একটি পিটিশন দাখিল করেন, যার পরিপ্রেক্ষিতে ফের সোনুর এই বেআইনি নির্মান নিয়ে সুর চড়া করেছেন বৃহন্মুম্বই কর্পোরেশন।

    সোনু বারবার আইন লঙ্ঘন করেন এবং অননুমোদিত জমি সংক্রান্ত কাজে যুক্ত হন। একবার নয়, বহুবার এই কাজে তিনি করেছেন। এখন যেখানে তিনি হোটেল বানিয়েছেন, সেটা বসতি এলাকা এবং সেখানে বানিজ্যিকরণের কোনও অনুমতি ছিল না। তারপরও তিনি হোটেল তৈরি করে বেআইনি পথে হেঁটেছেন। বিএমসি জানিয়েছে যে, ২০১৮র সেপ্টেম্বরে এই নির্মাণ কাজের বিরুদ্ধে প্রথম পদক্ষেপ নেওয়া হয়। সেই বছরই নভেম্বর মাসে তা ভেঙে দেওয়া হয়। তবে এতটাই সাহস সোনুর যে সেই জায়গাতেই ফের একবার নির্মাণ চালু করেছেন তিনি। তাই ফের একবার সেই নির্মাণ ভাঙতে বাধ্য হয়েছে বৃহন্মুম্বই কর্পোরেশন। তাদের বক্তব্য এই জমি সোনু বা তাঁর স্ত্রীর নামে নেই। বুধবার, আজ, ফের একবার এই মামলার শুনানি রয়েছে।

    অনেকে মনে করছেন, গরীবদের সাহায্যের জন্যই এরকমটি করেছেন সোনু ৷ আর তাই এখন বিএমসি-র চক্ষুশূল ! তবে এখনও পর্যন্ত এই নিয়ে কোনওরকম মন্তব্য প্রকাশ করেননি সোনু !

    Published by:Pooja Basu
    First published: