corona virus btn
corona virus btn
Loading

মুসলিম ছেলেকে ভালবাসায় চড় মেরেছিলেন রাকেশ রোশন! বিস্ফোরক অভিযোগ আনলেন সুনয়না

মুসলিম ছেলেকে ভালবাসায় চড় মেরেছিলেন রাকেশ রোশন! বিস্ফোরক অভিযোগ আনলেন সুনয়না
Image courtesy: Sunaina Roshan/ Twitter
  • Share this:

#মুম্বই: প্রথমে বলা হয়েছিল হৃতিকের দিদি সুনয়না রোশন নাকি শারীরিকভাবে ভীষণ অসুস্থ ৷ বলা হয়েছিল, তিনি নাকি বাইপোলার ডিজঅর্ডারে আক্রান্ত ৷ ২০১৭ নাগাদ ওজন কমিয়ে, চেহারার বিপুল পরিবর্তন ঘটিয়ে খবরের শিরোনামে এসেছিলেন সুনয়না। কী ভাবে তা সম্ভব হল, তা নিয়ে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে নিজের অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছিলেন। বলেছিলেন, “পরিবার পাশে থেকেছে ঠিকই কিন্তু লড়াই করার মন নিজেকেই তৈরি করতে হবে। নিজেই নিজেকেই সবচেয়ে বেশি সাহায্য করতে পারে!’’ সুনয়নার শরীরে বাসা বেঁধেছিল ক্যানসার। দীর্ঘ দিন ডিপ্রেশনেও ভুগেছিলেন সুনয়না। কিন্তু এরপরেই ধীরে ধীরে ঘনাক্রম বদলাতে থাকে ৷ জানা যায়, সুনয়না শরীরিক নির্যাতনের শিকার ৷ মানসিকভাবেও তিনি বিপর্যস্ত ৷ এই বিতর্কের মধ্যেই ঢুকে পড়েন কঙ্গনা রানাউত ও তাঁর দিদি রঙ্গোলি চান্দেল ৷ কঙ্গনার সঙ্গে হৃতিকের সম্পর্ক নিয়ে বহু জলঘোলা হয়েছে অতীতে ৷ সেই বিতর্ক পৌঁছেছিল আদালত পর্যন্ত ৷ রঙ্গোলি সম্প্রতি সুনয়নার বিষয়টি নিয়ে সরব হয়েছেন ট্যুইটারে ৷

তিনি জানান, কিছুদিন আগে সুনয়না পরিবারের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নিতে চেয়ে সাহায্যের জন্য ফোন করেন কঙ্গনাকে ৷ তখনই সুনয়না জানান, দিল্লির এক মুসলিম যুবকের সঙ্গে সম্পর্ক রয়েছে তাঁর ৷ পরিবারের কেউ তাঁর ও রুহেলের সম্পর্ক মেনে নিচ্ছে না ৷ বাবা রাকেশ রোশন তাঁকে চড়ও মেরেছেন এই কারণে ৷ তবে রঙ্গোলি এও জানান যে এই মুহূর্তে কঙ্গনার নম্বর ব্লক করে দিয়েছেন সুনয়না ৷ ফলে তাঁর নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তায় রয়েছেন তাঁরা ৷ সে কারণেই প্রকাশ্যে মুখ খুলতে বাধ্য হয়েছেন তিনি ৷

সম্প্রতি Pinkvilla-কে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে সুনয়না নিজেই এ বিষয়ে মুখ খুলেছিলেন ৷ সে সময় তিনি জানিয়েছিলেন, বাড়ির কেউ এই সম্পর্ক মেনে নিতে চায় না ৷ পরিবারের বক্তব্য রুহেল একজন জঙ্গি ৷ এমনকি ভাই হৃতিকের বিরুদ্ধেও নির্যাতনের অভিযোগ তোলেন সুনয়না ৷   রঙ্গোলির ট্যুইটের পর আবার আসরে নেমেছেন হৃতিকের প্রাক্তন স্ত্রী সুজান খান ৷ সুনয়নাকে সাপোর্ট করেও রোশনের পরিবারের স্বপক্ষেই কথা বলেছেন সুজান ৷  

View this post on Instagram
A post shared by Sussanne Khan (@suzkr) on
First published: June 20, 2019, 4:49 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर