সুশান্তকাণ্ডে নয়া মোড়, প্রিয়াঙ্কার বিরুদ্ধে মামলায় স্থগিতাদেশ আদালতের

সুশান্তকাণ্ডে নয়া মোড়, প্রিয়াঙ্কার বিরুদ্ধে মামলায় স্থগিতাদেশ আদালতের
সুশান্তের দুই দিদির বিরুদ্ধে আনা রিয়ার এফআইআর থেকে মিতু সিংয়ের নাম খারিজ করল বম্বে হাইকোর্ট

সুশান্তের দুই দিদির বিরুদ্ধে আনা রিয়ার এফআইআর থেকে মিতু সিংয়ের নাম খারিজ করল বম্বে হাইকোর্ট

  • Share this:

    #মুম্বই: সুশান্ত সিং রাজপুত মামলায় রায় দিল মুম্বই হাইকোর্ট। সুশান্তের দুই দিদির বিরুদ্ধে আনা রিয়ার এফআইআর থেকে মিতু সিংয়ের নাম খারিজ করল বম্বে হাইকোর্ট ৷ তবে প্রিয়াঙ্কা সিংয়ের বিরুদ্ধে আনা রিয়ার অভিযোগকে খারিজ না করে তাতে আপাতত স্থগিতাদেশ জারি করল মুম্বই হাইকোর্ট। বছরের শুরুতেই এই হাইকোর্টে এই মামলার শুনানি শেষ হয়েছিল। এরপর রায় সংরক্ষিত রেখেছিল আদালত। অবশেষে সেই রায় জানা গেল মুম্বই হাইকোর্টের তরফে।

    সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর সঙ্গে জড়িত মাদককাণ্ডে এনসিবির হাতে গ্রেফতারির কয়েক ঘন্টা আগে, ৭ই সেপ্টেম্বর পাল্টা অভিযোগ করেন অভিনেত্রী রিয়া। অভিনেত্রী, প্রয়াত অভিনেতার দুই দিদির বিরুদ্ধে সুশান্তকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগ আনেন। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মেনে এই মামলাও সিবিআইয়ের হাতে তুলে দেয় মুম্বই পুলিশ। সেই এফআইআর রদ করার জন্য বম্বে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন মিতু ও প্রিয়াঙ্কা। রিয়ার অভিযোগ, ৮ জুন অভিনেতার মৃত্যুর মাত্র ৬ দিন আগে হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে প্রিয়াঙ্কা সিং ‘ভুয়ো’ প্রেসক্রিপশন সুশান্তকে পাঠিয়েছিল। যেখানে নেক্সিটো, লিব্রিয়াম এবং লোনাজেপ সেবনের পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল। প্রত্যেকটি সাইকোট্রপিক ড্রাগ সমন্বিত ওষুধ এবং এনডিপিএস আইন, ১৯৮৫-এর আওতাধীন।

    এর পরেই এফআইআর দায়ের করেন রিয়া। রিয়ার সঙ্গেই প্রায় সহমত হয়ে বম্বে হাইকোর্টে হলফনামাও জমা দেয় মুম্বই পুলিশ। আদালতের দ্বারস্থ হন মিতু এবং প্রিয়াঙ্কাও। সুশান্তের পরিবারের পক্ষ থেকে আইনজীবী সতীশ মানশিন্ডে অবশ্য দাবি করেন, এ সবই মিথ্যে এবং ফেক মিডিয়া রিপোর্টের বশবর্তী হয়ে ওরকম অভিযোগ এনেছেন রিয়া। এফআইআর তুলে নেওয়ারও আর্জি জানানো হয়। যদিও রিয়াও সুশান্তের দুই দিদির বিরুদ্ধে যাতে মামলা তুলে নেওয়া না হয় সে জন্য বম্বে হাইকোর্টে আবেদন করেন।


    Published by:Simli Dasgupta
    First published: