জানতেন না কী ভাবে তৈমুরের পটি সাফ করতে হয়, মা হওয়ার ফ্যাসাদ নিয়ে অকপট করিনা!

করিনার অকপট স্বীকারোক্তি- সদ্যোজাত সন্তানের মল-মূত্র কী ভাবে সাফ করতে হয়, তা তিনি জানতেন না!

করিনার অকপট স্বীকারোক্তি- সদ্যোজাত সন্তানের মল-মূত্র কী ভাবে সাফ করতে হয়, তা তিনি জানতেন না!

  • Share this:

#মুম্বই: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর (Rabindranath Tagore) লিখেছিলেন যে সংসার করা এবং মা হওয়া কোনও মেয়েকেই না কি শিখতে হয় না, এই সত্তা মেয়েদের মধ্যে লুকিয়ে থাকে, ঠিক সময়ে বিকশিত হয়। ওই ঠাকুর পরিবারেরই মেয়ে শর্মিলার (Sharmila Tagore) দ্বিতীয় পুত্রবধূর অভিজ্ঞতাও একেবারে এরকমটাই, যা খোলাখুলি বইয়ে লিখতে কসুর করেননি তিনি!

এত দিনে আমরা জেনে ফেলেছি যে প্রেগন্যান্সি বাইবেল (Pregnancy Bible) নামে করিনা কাপুর খানের (Kareena Kapoor Khan) লেখা বই চলে এসেছে বিতর্কের কেন্দ্রে, উঠেছে ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত হানার মতো অস্বস্তিকর অভিযোগ। কিন্তু মুখে স্বীকার না করলেও অনেক নতুন মা যে বিষয়টি নিয়ে অস্বস্তিতে ভোগেন, তা সরাসরি লেখায় তুলে ধরেছেন করিনা, বিষয়টি হল সন্তানকে পরিচ্ছন্ন রাখা, সহজ ভাবে বললে তার মল-মূত্র পরিষ্কার করা!

এই প্রসঙ্গে করিনার অকপট স্বীকারোক্তি- সদ্যোজাত সন্তানের মল-মূত্র কী ভাবে সাফ করতে হয়, তা তিনি জানতেন না! ফলে বড় ছেলে তৈমুর আলি খানের (Taimur Ali Khan) বেলায় তাঁকে বেশ সমস্যায় পড়তে হয়েছিল। প্রথম প্রথম যে তৈমুরের পটি পরিষ্কার করতে গিয়ে তাঁর অস্বস্তি হত, সেটারও উল্লেখ রেছেন তিনি। জানিয়েছেন, অনেক দিন পর্যন্ত তিনি সঠিক ভাবে ছেলেকে ডায়াপার পরাতে পারতেন না, ফলে তৈমুর বিছানা ভিজিয়ে ফেলত!

নায়িকা আরও জানিয়েছেন যে সন্তানকে ছেড়ে কাজে ফেরা নিয়েও প্রথম দিকে অপরাধবোধে ভুগতেন তিনি! পরে ধীরে ধীরে বুঝতে পারেন যে কাজে যোগ দেওয়ার পরেও তৈমুর তাঁকে কম ভালো বাসছে না, ফলে তিনি নিশ্চিত হন। সেই জায়গা থেকেই এবারেও কাজে যোগ দেওয়ার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী করিনা। জানিয়েছেন যে এক ছেলের হাত ধরে এবং অন্য ছেলেকে কোলে নিয়েই তিনি শ্যুটিং ফ্লোরে ফিরবেন, উপভোগ করবেন কাজ এং মাতৃত্ব সমান তালে!

শোনা গিয়েছে যে সব ঠিক থাকলে চলতি বছরের অক্টোবরেই আবার লাইট, ক্যামেরা, অ্যাকশনের জগতে দেখা যাবে করিনাকে!

Published by:Dolon Chattopadhyay
First published: