• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • ‘আমি কৃষকদের পাশেই রয়েছি’, প্রবল চাপের মুখে নতি স্বীকার কঙ্গনা রানাওয়াতের

‘আমি কৃষকদের পাশেই রয়েছি’, প্রবল চাপের মুখে নতি স্বীকার কঙ্গনা রানাওয়াতের

হঠাৎই ৩৬০ ডিগ্রি পাল্টি খেয়ে কঙ্গনার ট্যুইট তিনি কৃষকদের পাশেই আছেন ।

হঠাৎই ৩৬০ ডিগ্রি পাল্টি খেয়ে কঙ্গনার ট্যুইট তিনি কৃষকদের পাশেই আছেন ।

হঠাৎই ৩৬০ ডিগ্রি পাল্টি খেয়ে কঙ্গনার ট্যুইট তিনি কৃষকদের পাশেই আছেন ।

  • Share this:

    #মুম্বই: দ্বৈরত যেন আর থামতেই চাইছে না । কৃষক বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে বলিউডের অন্দরে কাদা ছোড়াছুড়ি চলছেই । সাম্প্রতিক কৃষি বিল নিয়ে উত্তপ্ত গোটা দেশই । কৃষক আন্দোলনে প্রায় অবরুদ্ধ রাজধানী দিল্লি । দেশের প্রতিটি রাজ্যেই এই আঁচ এসে পড়েছে । আর এই বিক্ষোভ নিয়ে মুখ খুলেই রোষের মুখে পড়েছেন বলি-নায়িকা কঙ্গনা রানাওয়াত ।

    বর্তমানে ইন্ডাস্ট্রি থেকে পলিটিক্স, সমস্ত ব্যাপারেই মুখ খোলেন কঙ্গনা । সমালোচনা, বিতর্ককে রেয়াত করেন না বলি-ক্যুইন । নিজের ঠোঁট কাটা স্বভাবের জন্য একাধিক কটূক্তিও সহ্য করতে হয় তাঁকে । বলি সেলেবদেরও রোষের মুখে পড়তে হয়েছে তাঁকে । গতকাল, অর্থাৎ বৃহস্পতিবার তিনি দিল্লি কৃষি আন্দোলনে শাহিনবাগের দাদি, বিলকিস বানোর প্রসঙ্গ তুলে আনেন । নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদের সময় ৮২ বছরের বিলকিস বানো পরিচিত মুখ হয়ে উঠেছিলেন ।

    এ দিন কৃষি আন্দোলনে মহিন্দর কৌর নামের এক বৃদ্ধাকে কঙ্গনা শাহিনবাগ দাদি ভেবে ভুল করেন । ট্যুইটে বলেন, ‘‘১০০ টাকা দিলে এরা যে কোনও জায়গায় চলে যাবে ।’’ এরপরই এ কথা বলার জন্য নেটিজেনের রোষের মুখে পড়তে হয়েছে বলিউডের ক্যুইনকে। প্রবল সমালোচিত হওয়ার পর ,টুইট মুছে ফেলেন তিনি। এর পাশাপাশি ,ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে মহিন্দর কৌর নামক এক প্রবীণা বলেন যে, এই বয়সে তাঁর পক্ষে কৃষিকাজ করা কঠিন এবং তাই তিনি কৃষকদের সমর্থন দিতে মোর্চায় যাচ্ছেন। তিনি আরও বলেন, তাঁকে বলা হয়েছিল কিছু অভিনেতা তাঁর সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন। কঙ্গনা কখনই তাঁর বাড়িতে যাননি, তিনি কী করছেন তা কখনও দেখতেও আসেননি এবং উল্টে কঙ্গনা বলেন যে তাঁকে নাকি ১০০ টাকায় পাওয়া যায়। তিনি এখনও কৃষিকাজে যথেষ্ট পারদর্শী এবং কৃষকদের আন্দোলনের অংশ নিতে তিনি যথেষ্ট সক্রিয় বলে জানান ৷ এর আগেও মুম্বইয়ের মেয়র তাঁকে দু’টাকার মানুষ বলায় অপমানের জবাব দেন কঙ্গনা ৷ তিনি তাঁর প্রাক্তন হৃত্বিক রোশন ও আদিত্য পাঞ্চালির সঙ্গে তুলনা করে বলেন, এর থেকে প্রাক্তনরা দয়ালু ছিলেন ।

    কঙ্গনার এই মন্তব্যে উত্তাল হয়ে ওঠে বলিউড । কী ভাবে নিজে একজন মহিলা হয়ে, বিচার বিবেচনা না করেই অন্য এক মহিলা সম্পর্ক তিনি এমন মন্তব্য করতে পারেন, সব হলেই প্রশ্ন ওঠে এ নিয়ে । দিলজিৎ দুসাঞ্জ থেকে মিকা সিং... সকলেই এক হাত নেন নায়িকাকে । মানহানির মামলা ঠোকেন জাভেদ আখতার । কৃষকদের নিয়ে এমন দায়িত্বজ্ঞানহীন মন্তব্য করায় কঙ্গনাকে ক্ষমা চাইতে হবে বলে দাবি করেন পঞ্জাবের জিরাকপুরের এক আইনজীবী। অভিনেত্রীকে পাঠানো হয়েছে আইনি নোটিসও।

    তারপরেই ৩৬০ ডিগ্রি পাল্টি খেয়ে কঙ্গনার ট্যুইট তিনি কৃষকদের পাশেই আছেন । আর পঞ্জাব সবসময় তাঁর হৃদয়ে তাকে ।

    Published by:Simli Raha
    First published: