বেঁচে থাকলে ৫৪-এ পা দিতেন ইরফান, জন্মদিনে ফিরে দেখা অচেনা মুহূর্ত

বেঁচে থাকলে ৫৪-এ পা দিতেন ইরফান, জন্মদিনে ফিরে দেখা অচেনা মুহূর্ত

বলিউডের তিন খানের বাইরে গিয়ে আরেক খানকেও মানুষ চিনেছিল। তিনি হলেন প্রয়াত অভিনেতা ইরফান খান। তাঁর অভিনয় দক্ষতা নিয়ে কথা বলতে গিয়ে বহু বর্ষীয়ান অভিনেতাই একাধিক উপমা জুড়েছেন। অনেকেই বলেছেন তাঁর সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে। আজ বেঁচে থাকলে ইরফান পা দিতেন ৫৪ বছরে।

বলিউডের তিন খানের বাইরে গিয়ে আরেক খানকেও মানুষ চিনেছিল। তিনি হলেন প্রয়াত অভিনেতা ইরফান খান। তাঁর অভিনয় দক্ষতা নিয়ে কথা বলতে গিয়ে বহু বর্ষীয়ান অভিনেতাই একাধিক উপমা জুড়েছেন। অনেকেই বলেছেন তাঁর সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে। আজ বেঁচে থাকলে ইরফান পা দিতেন ৫৪ বছরে।

  • Share this:

#মুম্বই: বলিউডের ব্যতিক্রমী অভিনেতা হিসেবে পরিচিত ছিলেন তিনি। নিজের অভিনয় দক্ষতার মাধ্যমে শুরু থেকেই দর্শকদের সামনে বাস্তব চরিত্র ফুটিয়ে তুলেছেন। বলিউড ছাড়িয়ে খ্যাতি অর্জন করেছিলেন হলিউডেও। বলিউডের তিন খানের বাইরে গিয়ে আরেক খানকেও মানুষ চিনেছিল। তিনি হলেন প্রয়াত অভিনেতা ইরফান খান। তাঁর অভিনয় দক্ষতা নিয়ে কথা বলতে গিয়ে বহু বর্ষীয়ান অভিনেতাই একাধিক উপমা জুড়েছেন। অনেকেই বলেছেন তাঁর সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে। আজ বেঁচে থাকলে ইরফান পা দিতেন ৫৪ বছরে।

১৯৬৭ সালে আজকের দিনে রাজস্থানের একটি পাঠান পরিবারে জন্মেছিলেন ইরফান। ১৯৮৮ সালে মীরা নায়ারের অস্কার মনোনীত ছবি 'সালাম বম্বে' দিয়ে বলিউডে যাত্রা শুরু করেন তিনি। এর আগে চুটিয়ে টেলিভিশন ও থিয়েটারে কাজ করেছেন তিনি। অন্য ধারার ছবিতে অভিনয় করার কথা ভেবেই হয়তো এগিয়েছেন শুরু থেকে। তবে, পরে বেশ কিছু বাণিজ্যিক ছবিতে অভিনয় করেন ইরফান। কিন্তু সেখানেও আলাদা ছাপ ফেলেছেন তিনি। ২০০৬ সালে নেমসেকও তাঁর মুকুটে নতুন পালক যোগ করে। তারপর থেকে আর সে ভাবে ফিরে তাকাতে হয়নি।
View this post on Instagram

A post shared by Babil (@babil.i.k)

সাড়ে তিন দশকের কেরিয়ারের অজস্ত্র কালজয়ী ছবি দর্শকদের উপহার দিয়েছেন অভিনেতা। তাঁর ঝুলিতে রয়েছে মকবুল, হাসিল, পান সিং তোমার, পিকু, হিন্দি মিডিয়াম-এর মতো ছবি। রয়েছে, স্লামডগ মিলেনিয়ার, লাইফ অফ পাই, জুরাসিক ওয়ার্ল্ড, দ্য আমেজিং স্পাইডারম্যানের মতো ছবিও।
View this post on Instagram

A post shared by Babil (@babil.i.k)

সব ঠিকঠাক চললেও কেরিয়ারে ছন্দপতন হয় ২০১৮ সালে। ওই বছর ফেব্রুয়ারি মাসে নিউরো এন্ডোক্রাইন টিউমারে আক্রান্ত হওয়ার খবর সামনে আসে। কাজ থেকে কিছুদিনের জন্য বিরতি নেন তিনি। এর পর দীর্ঘ সময়ে লন্ডনে চিকিৎসা চলেছে তাঁর। ক্যানসার জয় করলেও চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণেই ছিলেন। এপ্রিলে হঠাৎই শারীরিক পরিস্থিতি খারাপ হয়। ভর্তি হন হাসপাতালে। শোনা যায় কোলন ইনফেকশনের সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি। ২৯ এপ্রিল সকালে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।
View this post on Instagram

A post shared by Babil (@babil.i.k)

তাঁর ৫৪ বছরের জন্মদিনে তাঁর একাধিক স্মৃতি উঠে এসেছে অনুগামীদের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেলে। তাঁর স্মৃতি হাতড়ে একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন ছেলে বাবিল। যাতে দেখা যাচ্ছে, ইরফান ও তাঁর স্ত্রী সুতপা খুব জোরে জোরে বাবিলকে ডাকছেন। ক্যাপশনে বাবার উদ্দেশে একটি ছোট মেসেজও লেখেন তিনি।
Published by:Swaralipi Dasgupta
First published: