• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • BOLLYWOOD ED WANTS MORE ANSWERS FROM RHEA OVER MISMATCH BETWEEN INCOME AND INVESTMENTS CALLS HER AGAIN ON 10TH AUGUST SDG

আয়ের সঙ্গে সঙ্গতি নেই! নজরকাড়া সম্পত্তির পরিমাণ! সোমবার ফের রিয়াকে তলব ইডি'র

রিয়া অনুরোধ করেছিলেন ইডি-র জেরার পর্বটি পিছিয়ে দিতে । কারণ এর আগেই সুশান্ত মামলায় সিবিআই ও বিহার পুলিশের হস্তক্ষেপের বিরোধিতা করে শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন নায়িকা । তাঁর বক্তব্য, সুশান্তের মৃত্যু যেহেতু মুম্বইয়ে হয়েছে, তাঁর আত্মহত্যার মামলা মুম্বই পুলিশই তদন্ত করুক। সেখানে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআই বা বিহার পুলিশের প্রবেশ অনৈতিক ও যুক্তরাষ্ট্র পরিকাঠামোর পরিপন্থী বলেছিলেন নায়িকার আইনজীবী শ্যাম দিবান । শীর্ষ আদালত এ বিষয়ে এখনও রায় দেয়নি, সেই কারণ দেখিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ পর্ব পিছতে চান রিয়া । তবে সে বিষয়ে কর্ণপাত করেনি ইডি । শুক্রবারই টানা ৯ ঘণ্টা জেরা করা হয় রিয়া চক্রবর্তীকে! আর সেই জেরায় তিনি যা বললেন, তাতে চোখ কপালে উঠেছে ইডি কর্তাদেরও! সুশান্ত অনুরাগীরা বুঝতে পারছেন না, হাসবেন না কাঁদবেন না চটে যাবেন ?

১০ অগাস্ট সোমবার সুশান্তের বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীকে জিজ্ঞাসাবাদ করবে ইডি।

  • Share this:

    #মুম্বই: ম্যারাথন জিজ্ঞাসাবাদ সন্তোষজনক নয়। বহু প্রশ্নের উত্তর 'মনে পড়ছে না' বলে এড়িয়ে গিয়েছেন রিয়া। ফলে ফের ১০ অগাস্ট সোমবার সুশান্তের বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীকে জিজ্ঞাসাবাদ করবে ইডি।

    আয় এবং সম্পত্তির হিসেবে রয়েছে বিস্তর গরমিল। ইডি সূত্রে খবর, শুক্রবার ৮ঘণ্টা টানা জিজ্ঞাসাবাদে রিয়া, তাঁর সম্পতির হিসেব নিয়ে সন্তোষজনক উত্তর দিতে পারেননি। কোথা থেকে তাঁর অ্যাকাউন্টে বিপুল অঙ্কের টাকা এল? সে টাকার উৎস কী? কী ভাবে সেই টাকা রোজগার করলেন তিনি? ইডির বহু প্রশ্নের উত্তর এড়িয়ে যান  তিনি। ফলে আবারও বিয়াকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। জানা গিয়েছে, রিয়াকে লিখিত আকারে আর্থিক লেনদেনের বিস্তারিত বিবরণ জমা দিতে বলা হয়েছে। ইডি সূত্রে জানা গিয়েছে, জিজ্ঞাসাবাদের সময় রিয়ার দাবি করেন, 'ছিছোড়ে' সিনেমার স্টিকার লাগানো একটি জলের বোতল ছাড়া সুশান্তের আর কোনও সম্পত্তি তাঁর কাছে নেই। তিনি একেবারে নির্দোষ।

    View this post on Instagram

    #rheachakrobarty with #showikchakraborty leaves the ED office after being questioned for several hours.

    A post shared by Viral Bhayani (@viralbhayani) on

    সুশান্তের বাবা যে ১৬ দফা অভিযোগ এনেছিলেন রিয়ার বিরুদ্ধে তার মধ্যে সুশান্তের টাকা আত্মস্যা‍ৎ করার অভিযোগও ছিল। শুক্রবার সাড়ে আট ঘণ্টার দীর্ঘ জিজ্ঞাসাবাদ চলে। ডেকে পাঠানো হয়েছিল রিয়ার ভাই সৌভিক চক্রবর্তীকে এবং বাবা ইন্দ্রজিত চক্রবর্তীকে। এছাড়া তলব করা হয়েছিল সুশান্তের প্রাক্তন বিজনেস ম্যানেজার শ্রুতি মোদি ও রিয়ার সিএ রিতেশ শাহকে।

    প্রসঙ্গত, শনিবার সুশান্তের ঘনিষ্ঠ বন্ধু সিদ্ধার্থ পিঠানিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ইডির সদর দফতরে হাজিরার জন্য তলব করা হয়। সুশান্তের সঙ্গে একই ফ্ল্যাটে থাকতেন সিদ্ধার্থ পিঠানি। রিয়ার গত এক বছরের কল রেকর্ড থেকে দেখা গিয়েছে গোটা বছরে ১০০ বার রিয়ার সঙ্গে কথা হয়েছে সিদ্ধার্থের। কিন্তু কেন? এতবার কেন তাঁর সঙ্গে কথা হয়েছে রিয়ার? ফলে রিয়ার সঙ্গে তাঁর ঘন ঘন ফোনে কথা, ভাবাচ্ছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট-এর কর্তাদের। সে কারণেই এ বার ডেকে পাঠানো হয়েছে সিদ্ধার্থকে। যদিও সিবিআই-এর দায়ের করা মামলায় ছ’জনের মধ্যে নাম নেই সিদ্ধার্থের ।

    Published by:Shubhagata Dey
    First published: