corona virus btn
corona virus btn
Loading

জাঁকজমক নয়, পুজোর খরচ কমিয়ে ঘূর্ণিঝড়ে দুর্গত মানুষকে সাহায্যের আবেদন সুজিতের

জাঁকজমক নয়, পুজোর খরচ কমিয়ে ঘূর্ণিঝড়ে দুর্গত মানুষকে সাহায্যের আবেদন সুজিতের
পুজোর উদ্যোক্তাদের কাছে আবেদন সুজিতের৷

সুজিত সরকার উদ্যোক্তাদের কাছে খরচ কমিয়ে পুজোর আয়োজেনর আবেদন রাখলেও এবারে পুজোর বাজেট জোগাড় করা নিয়েই চিন্তায় বহু পুজো কমিটি৷

  • Share this:

#মুম্বই: ঘূর্ণিঝড় আমফানের তাণ্ডবে বিধ্বস্ত পশ্চিমবঙ্গের বিস্তীর্ণ অংশ৷ রাজ্য সরকারের হিসেব অনুযায়ী, ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ এক লক্ষ কোটি টাকারও বেশি৷ বাড়ি ঘর থেকে শুরু করে জমির ফসল, ঘূর্ণিঝড়ের রোষ থেকে কিছুই রক্ষা পায়নি৷ এই পরিস্থিতিতে দুর্গাপুজো এবং কালীপুজোর উদ্যোক্তাদের কাছে বিশেষ আবেদন রাখলেন বলিউড পরিচালক সুজিত সরকার৷

দুর্গাপুজো এবং কালীপুজোর উদ্যোক্তাদের কাছে ভিকি ডোনার, মাদ্রাস কাফে, পিকু খ্যাত পরিচালকের আবেদন, পুজোর পিছনে বিপুল খরচ না করে সেই টাকা যেন ঘুর্ণিঝড়ে বিধ্বস্ত এলাকাগুলিতে ত্রাণ পাঠানোর কাজে ব্যবহার করা হয়৷

ট্যুইটারে সুজিত লিখেছেন, 'দুর্গা পুজো এবং কালী পুজোর উদ্যোক্তাদের কাছে আমার বিনীত অনুরোধ, উৎসবের পিছনে মাত্রাতিরিক্ত খরচ না করে বরং সেই অর্থ ঘূর্ণিঝড়ে বিধ্বস্ত এলাকাগুলির পুনর্গঠন এবং ত্রাণ পাঠানোর কাজে ব্যবহার করা হোক৷'

ট্যুইটারে অনেকেই সুজিতের এই আবেদনকে স্বাগত জানিয়েছেন৷ তাঁদেরও অভিমত, এ বছর জাঁকজমক করে পুজোর আয়োজনের বদলে দুর্গত এলাকার মানুষের পাশে দাঁড়ানো অনেক বেশি প্রয়োজন৷

সুজিত সরকার উদ্যোক্তাদের কাছে খরচ কমিয়ে পুজোর আয়োজেনর আবেদন রাখলেও এবারে পুজোর বাজেট জোগাড় করা নিয়েই চিন্তায় বহু পুজো কমিটি৷ অন্যান্য বছর এতদিনে বড় বড় পুজো কমিটিগুলির পরিকল্পনা অনেকটাই এগিয়ে যায়৷ অর্থের সংস্থান থেকে শুরু করে পুজোর থিম তৈরি, পুজোর কয়েকমাস আগে থেকেই শুরু হয়ে যায় প্রস্তুতি৷ কিন্তু করোনা ভাইরাসের জেরে দু' মাসেরও বেশি সময় ধরে চলা লকডাউনে সেই প্রস্তুতি এবছর জোর ধাক্কা খেয়েছে৷ তার উপর আর্থিক মন্দার কারণে বিজ্ঞাপনদাতাদের থেকে অর্থের সংস্থান অন্যান্য বছরের মতো হবে কি না, তা নিয়েও তৈরি হয়েছে অনিশ্চয়তা৷ ফলে এবছরের পুজোয় অন্যান্য বছরের মতো জাঁকজমক দেখা যাবে কি না, তা নিয়েই সংশয় থেকে যাচ্ছে৷

 
Published by: Debamoy Ghosh
First published: June 9, 2020, 5:01 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर