মালা বদলের সময় পাজামা ছিঁড়ে গেল আদিত্য নারায়ণের! বলছেন ৩টে হানিমুনের আগে থামবেন না!

মালা বদলের সময় পাজামা ছিঁড়ে গেল আদিত্য নারায়ণের! বলছেন ৩টে হানিমুনের আগে থামবেন না!

ছেঁড়া পাজামা পরেই নববধূর গলায় মালাটা কোনও মতে গলিয়ে দেন তিনি! তার পর এক বন্ধুর পাজামা ধার করে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন।

ছেঁড়া পাজামা পরেই নববধূর গলায় মালাটা কোনও মতে গলিয়ে দেন তিনি! তার পর এক বন্ধুর পাজামা ধার করে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন।

  • Share this:

#মুম্বই: চলতি বছরের দেশের সেলিব্রিটি বিয়ের মধ্যে এটা একেবারে শেষের দিকে পড়ে! উঁহু, প্রোফাইলের দিক থেকে নয়, নেহাতই তারিখের হিসেবে। উদিত নারায়ণ (Udit Narayan) এ দেশের খুবই প্রতিভাবান এবং জনপ্রিয় প্লেব্যাক সিঙ্গার, তাঁর ছেলে আদিত্য নারায়ণের (Aaditya Narayan) বিয়েটা সংবাদমাধ্যমের কাছে হেলাফেলা করার মতো বিষয় নয় মোটেও! তা ছাড়া আদিত্য নিজেও প্রতিভার নিরিখে কম যান না! বাবার মতো না হলেও বেশ কম বয়স থেকেই গায়ক হিসেবে খ্যাতি রয়েছে তাঁর। সঙ্গে রয়েছে সেলিব্রিটি হিসেবে উপরি পাওনা কিছু বিতর্কও! সেই সব সঙ্গে নিয়ে তিনি যখন ছোটবেলার বন্ধু শ্বেতা আগরওয়ালের (Shweta Agarwal) সঙ্গে ১ ডিসেম্বর বিয়েটা সেরে ফেললেন, দেশ আনন্দ পেল বই কি!

তবে সব চেয়ে বেশি এ ব্যাপারে খুশি আদিত্য নিজে! সেলিব্রিটিরা সাধারণত তাঁদের বিয়ের (Wedding) দিন সংবাদমাধ্যমকে ধারে-কাছে ঘেঁষতে দেন না হালফিলে! কিন্তু আদিত্য তা করেননি। বরং, বিয়ে সেরেই মুখোমুখি হয়েছেন সংবাদমাধ্যমের, দিয়েছেন মোটামুটি দীর্ঘ এক সাক্ষাৎকারও। আর সেই সাক্ষাৎকারেই উঠে এসেছে দুই হইচই ফেলে দেওয়ার মতো তথ্য।

আদিত্য জানিয়েছেন, শ্বেতার গলায় মালা দেওয়ার সময়ে বন্ধুরা যখন তাঁকে তুলে ধরেছিলেন, ঠিক সেই মুহূর্তে তাঁর পাজামা ছিঁড়ে (Wardrobe Malfunction) যায়! ছেঁড়া পাজামা পরেই নববধূর গলায় মালাটা কোনও মতে গলিয়ে দেন তিনি! তার পর এক বন্ধুর পাজামা ধার করে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন। সেই ধার করা পাজামা পরেই মন্ত্রোচ্চারণ এবং সাতপাকে ঘোরার মতো জীবনের গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলো সারতে হয় তাঁকে!

অবশ্য বন্ধুর পাজামা পরে বিয়ে করতে হলেও এর ঠিক পরের ধাপ, অর্থাৎ হানিমুনের (Honeymoon) ক্ষেত্রে সব কিছু একেবারে ঠিকঠাক করে রেখেছেন আদিত্য, এ ব্যাপারে কোনও ভুলচুকের জায়গা তিনি রাখছেন না। বলছেন যে একটা নয়, তার বদলে তিনটে ছোট ছোট হানিমুন সারবেন শিলিম (Shillim), সুলা ভাইনইয়ার্ড (Sula Vineyards)আর গুলমার্গে (Gulmarg)! আপাতত কাজে ফাঁকি দেওয়া সম্ভব নয়, তাই কাজের মাঝে মাঝেই নিজেদের সময় দেওয়ার এ হেন বন্দোবস্ত!

Published by:Simli Raha
First published: