Aditi Munshi : রাধাষ্টমীতে শ্রীরাধিকার পূর্বরাগ অদিতির কণ্ঠে

অদিতি মুন্সী, ছবি-ফেসবুক

রাইয়ের এই জন্মতিথি বা আবির্ভাব তিথি (RadhaAshatmi 2021) উপলক্ষেও আয়োজিত হয় নানা পুজো অর্চনার ৷ বিশেষ এই ক্ষণের স্মরণে নতুন কীর্তন প্রকাশ করলেন অদিতি মুন্সী (Aditi Munshi) ৷

  • Share this:

    কলকাতা : জন্মাষ্টমীর পর ভাদ্র মাসের শুক্লপক্ষে পালিত হয় রাধাষ্টমী (Radha Ashatmi 2021)৷ কথিত, এই তিথিতেই জন্ম শ্রীরাধিকার ৷ বৈষ্ণব সম্প্রদায়ের কাছে এই তিথির গুরুত্ব অসীম ৷ রাইয়ের এই জন্মতিথি বা আবির্ভাব তিথি উপলক্ষেও আয়োজিত হয় নানা পুজো অর্চনার ৷ বিশেষ এই ক্ষণের স্মরণে নতুন কীর্তন প্রকাশ করলেন অদিতি মুন্সী (Aditi Munshi) ৷ ফেসবুকে শেয়ার করেছেন তার লিঙ্ক ৷

    সোমবার বিকেলে অদিতি গানের লিঙ্ক শেয়ার করেছেন ৷ রাতারাতি তার দর্শনসংখ্যা ছাপিয়ে গিয়েছে সাড়ে পাঁচ হাজার ৷ অদিতি মনে করেন, বৈষ্ণব সাহিত্য ও বাংলার কীর্তন আমাদের ঐতিহ্য ও অস্তিত্বের প্রতীক ৷ তিনি লিখেছেন, ‘‘করুণাময় ভগবান কৃপা না করলে এই সাধন ও মনন সম্ভব নয় ,আর সাধক ভবাপাগলা বলেন, ‘গানই সর্ব শ্রেষ্ঠ সাধনা’, তাই সঙ্গীতের মধ্যে দিয়েই সেই পরমেশ্বরের চরণ বন্দনা করি |’’

    রাধাষ্টমী উপলক্ষে অদিতি বেছে নিয়েছেন পদকর্তা গোবিন্দ দাস রচিত শ্রীরাধার পূর্বরাগ পর্যায়ের একটি রচনা ৷ শিল্পীর সঙ্গে যন্ত্রানুষঙ্গে সাহায্য করেছেন সুভাষ বসু, সৌম্যজ্যোতি ঘোষ, মৃগনাভি চট্টোপাধ্যায় এবং সোমনাথ রায় ৷ গানটির দৃশ্যগ্রহণ করা হয়েছে বন্দ্যোপাধ্যায় পরিবারের বনেদি বাড়ির সাবেক পরিবেশে ৷

    আরও পড়ুন : তালের বড়া নিয়ে এ আক্ষেপ রয়েই গেল সর্বজয়ার মেয়ে সারার

    বিভিন্ন ধরনের গানে অনায়াস গতি হলেও অদিতির প্রথম পছন্দ কীর্তন ৷ সঙ্গীতের এই শাখাতেই তাঁর উচ্চশিক্ষা ৷ দর্শক-শ্রোতাদের মতে, রিয়্যালিটি শো-এ অদিতির অংশগ্রহণের পরে কীর্তনগানের চাহিদায় নতুন করে জোয়ার এসেছে ৷

    আরও পড়ুন : ‘কৃষ্ণকলি’-র নিখিল কোথায় গেলেন? সে প্রশ্নের উত্তর দিলেন ‘উমা’-র অভিমন্যু

    বিধায়ক পদের দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি অদিতি সঙ্গীতচর্চাও বজায় রেখেছেন ৷ এর আগে স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষেও তিনি নতুন গান প্রকাশ করেছিলেন ৷ একইসঙ্গে চলছে বিধায়ক হিসেবে নতুন দায়িত্ব পালনও ৷ অতিমারির দ্বিতীয় তরঙ্গে অদিতির উদ্যোগে শুরু করা হয়েছিল সেফহোম ৷ অতিমারির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে অদিতি তাঁর এলাকাবাসীর পাশে ছিলেন ৷

    কিছু দিন আগে জন্মাষ্টমীও মহা সমারোহে পালন করেন অদিতি ৷ রীতি মেনে প্রতি বছরের মতো এ বারও নিজের বাড়িতে গোপালপুজো, ভোগপ্রসাদের আয়োজন করেছিলেন তিনি ৷ অভিনবত্ব ছিল জন্মাষ্টমীর পরের দিন নন্দ উৎসব পালনে ৷ সে দিন তিনি গিয়েছিলেন সেই সব শিশুদের কাছে, যারা জীবনযুদ্ধে কঠিন সংগ্রামের মুখোমুখি ৷ নিজের হাতে পরিবেশন করে তাদের খাইয়ে নন্দ উৎসব পালন করেন অদিতি ৷

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published: