corona virus btn
corona virus btn
Loading

Exclusive: ‘আমাদের কোথাও একটা থামিয়ে দিল প্রকৃতি’: দেবেশ চট্টোপাধ্যায়

Exclusive: ‘আমাদের কোথাও একটা থামিয়ে দিল প্রকৃতি’: দেবেশ চট্টোপাধ্যায়

‘আমাদের কোথাও একটা থামিয়ে দিল প্রকৃতি’: দেবেশ চট্টোপাধ্যায়

  • Share this:

#কলকাতা: বাড়িতে বসে থাকতে থাকতে এমনিতেই কেমন যেন একটা অবসাদ গ্রাস করছে সকলকে। কিন্তু হাত পা গুটিয়ে কতদিন বসে থাকা যায়। সেখান থেকেই দেবেশ চট্টোপাধ্যায় নতুন ভাবনায় বানিয়ে ফেলেছেন বেশ কয়েকটি শর্ট ফিল্ম। প্রধানত করোনা পরিস্থিতি এবং এর চারিপাশে বদলে যাওয়া সামাজিক ছবিটা তুলে ধরছেন দেবেশ। নিজের এই ভাবনাকে কীভাবে রূপ দিচ্ছেন তিনি? দেবেশ জানান "পরিকল্পনা ছিল বাড়িতেই বসে যদি কিছু করা যায়। কনটেন্ট দিয়ে স্টোরিবোর্ড বানিয়ে, ছবি একে, শট ডিভিশন করে পাঠিয়ে দেওয়া, তার পরে আর্টিস্ট আমাকে গোটা জিনিসটা শুট করে পাঠালে আমি নিজেই এডিট করে মিউজিক বসিয়ে শেয়ার করে দিচ্ছি আমার নিজের চ্যানেলে। এতে অনেককে কাজের মধ্যে ইনভল্ভ করে রাখা যায়।"

এরই মধ্যে চারটে শর্ট ফিল্ম বানিয়ে ফেলেছেন দেবেশ। 'কবি', 'ফ্রিজ ম্যাগনেট', 'ভদকা' ও 'গলদা চিংড়ি' নামে চারটে ছবিই করোনা পরিস্থিতিতে মানুষ কিভাবে রিআ্যক্ট করছেন সেটাই তুলে ধরেছেন দেবেশ।কটা এরকম ছবি বানাবেন দেবেশ? "ঠিক নেই। এখন বাচ্ছাদের একটা বই লিখছি 'গ্রিক থিয়েটারের সহজ পাঠ' বলে। সেটা খানিক্ষণ লিখি। দুপুরবেলাটা কি করি কি করি একটা ভাব আসে,তখন মাথা থেকে কনসেপ্ট বেরিয়ে এলেই সেটাকে লিখে ফেলি। যাকে দিয়ে কাজটা করাব ঠিক করি, তাঁকে পাঠিয়ে দিই। সে শুট করে পাঠালে এডিটে বসে যাই। আবার কবে মানুষ থিয়েটার দেখতে আসবে সে নিয়ে বেশ অনিশ্চয়তা রয়েছে। স্বাভাবিক ভাবেই একটা ফ্রাস্ট্রেশন কাজ করছে সকলের মধ্যে। এরকম ছোট ছবি বানালে নিজের কাজের অভ্যেসটাও বজায় থাকে এবং সচেতনতার দিকটাও দেখান যায়।" বলেই মনে করেন দেবেশ।

দেবেশ এর শেষ ছবি 'গলদা চিংড়ি'তে কাজ করেছেন অম্বরীশ। নিজের যারা কাছের মানুষ যেমন রজতাভ, সুদীপ্তা, বিদীপ্তা, নীল, দেবশঙ্কর হালদার বা থিয়েটারের আরও যারা রয়েছেন, আগামি দিনে তাঁদের কাছেও নিজের এই ছোট ছবির জন্য আবদার করতেই পারেন বলে জানান পরিচালক। "আমরা সকলেই দ্রুত দৌড়োচ্ছিলাম। আমাদের কোথাও একটা থামিয়ে দিল প্রকৃতি। থেমে থাকা, অপেক্ষা করা, আমাদের জীবন থেকে চলে গিয়েছিল। সেগুলোই আবার ফিরে এলো হয়তো",বলে জানান দেবেশ। আগামী দিনে আজকের দিনগুলোকে মাথায় রেখেই একটি বড় নাটকের কথাও ভাবছেন পরিচালক।

First published: April 15, 2020, 10:34 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर