Home /News /education-career /
US Study Rules: মার্কিন বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদন করার সময় কী কী বিষয় মাথায় রাখা উচিত?

US Study Rules: মার্কিন বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদন করার সময় কী কী বিষয় মাথায় রাখা উচিত?

US Study Rules

US Study Rules

কীভাবে আবেদন লিখলে বাকিদের তুলনায় ভিন্ন এবং অনন্য হওয়া যাবে? (US Study Rules)

  • Share this:

    SPAN Magazine

    #নয়াদিল্লি: আন্তর্জাতিক হাই স্কুলের শিক্ষার্থীরা প্রায়ই আন্ডারগ্র্যাজুয়েট কোর্সের জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্টের কলেজগুলোতে ভর্তি হওয়ার আবেদন করে থাকেন, শিক্ষার্থীদের সামগ্রিক বিকাশের দিকে এখানকার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর অবদানই এই জনপ্রিয়তার নেপথ্য কারণ। সব চেয়ে বড় কথা, এই কোর্সগুলো শিক্ষার্থীদের শুধু মার্ক শিট এবং টেস্ট স্কোরের ভিত্তিতে যাচাই করে না, বরং তাঁদের ব্যক্তিত্ব এবং আগ্রহের নিরিখে মূল্যায়ণ করে।

    এই আবেদনে শিক্ষার্থীরা তাঁদের শিক্ষা জীবনের ১০টি পাঠ্যক্রম বহির্ভূত কার্যকলাপে কৃতিত্ব প্রদর্শন করার সুযোগ পেয়ে থাকেন। আবেদনকারীর এক্সট্রাকারিকুলার অ্যাক্টিভিটিতে যোগদান বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টুডেন্ট কমিউনিটিতে তাঁর যোগদানের নির্ধারণ প্রক্রিয়ায় সাহায্য করে। অনেক ক্ষেত্রেই মেধা তালিকা এবং এই পাঠক্রম বহির্ভূত প্রতিভা বিচার করে স্কলারশিপ প্রদান করা হয়। আবেদন ফর্ম পূরণ করার সময় শিক্ষার্থীরা তাঁদের প্রতিভা প্রদর্শন করার জন্য 'এসে' বিভাগটি বেছে নিতে পারেন। এই শূন্যস্থানে প্রতিভার বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য প্রদান করা যেতে পারে।

    আরও পড়ুন: ত্বকে কালচে ছোপ? ডায়াবেটিসের উপসর্গ হতে পারে! জানুন

    এখন প্রশ্ন হচ্ছে কীভাবে আবেদন লিখলে বাকিদের তুলনায় ভিন্ন এবং অনন্য হওয়া যাবে? অন্যান্য সময়ে এই বিষয়টি সহজ বলা গেলে অতিমারী পরবর্তী বিশ্বে প্রতিযোগিতা অনেক বেশি বেড়ে যাওয়ার কারণে এটিকে এখন আর খুব সহজ বলা যায় না। মূল কথা এই যে আবেদন ফর্মকে অন্যদের চেয়ে নজরকাড়া করতে সবসময় অ্যাকাডেমিক স্কোর এবং পাঠ্যক্রম বহির্ভূত প্রতিভা বৃদ্ধি করার পরামর্শ দেওয়া হয়। পাশাপাশি আরও কী প্রয়োজন, সেই নিয়ে এই প্রতিবেদনে এডুকেশন ইউএসএ-এর একজন উপদেষ্টা উন্নতি সিংঘানিয়ার কিছু টিপস দেওয়া হল। এই উপদেষ্টা হাজার হাজার আবেদনের ফর্ম থেকে যোগ্য আবেদনকারী বেছে নেওয়ার প্রক্রিয়ার সঙ্গে দীর্ঘ দিন ধরে যুক্ত, তাঁর অভিজ্ঞতা শিক্ষার্থীদের পথ দেখাবে।

    নিজের পছন্দ তৈরি করা

    কোনও বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য আবেদন করার আগে প্রথমে নিজের লক্ষ্য এবং পছন্দ বেছে নিতে হবে। বেশিরভাগ আবেদনকারী পছন্দ না থাকা সত্ত্বেও বিশ্ববিদ্যালয়ের সবচেয়ে আকর্ষণীয় কোর্সের জন্য আবেদন করেন যার ফলে বাছাই প্রক্রিয়ায় তাঁরা বাতিল হয়ে যান। সাধারণত যে সমস্ত আবেদনে পড়ুয়ার পচ্ছন্দ স্পষ্টভাবে উল্লেখ করা থাকে তাঁদেরই পরবর্তী পদক্ষেপের জন্য বেছে নেওয়া হয়। অনেক সময় একজন আবেদনকারীর পছন্দের বিকল্প উপলব্ধ নাও থাকতে পারে, সেক্ষেত্রে অন্য বিকল্পে আবেদন না করে সক্রিয়ভাবে সুযোগ আসার অপেক্ষা করতে হবে।

    আরও পড়ুন: সাফল্যের দরজা! মার্কিন বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক পড়ুয়ারা কী কী সুবিধা উপভোগ করেন?

    হাই স্কুলে থাকাকালীন বিভিন্ন ক্লাব এবং স্টূডেন্ট কমিউনিটির সঙ্গে যুক্ত হয়ে পাঠ্যক্রম বহির্ভূত কার্যকলাপে অংশগ্রহণ করতে হবে। শিক্ষক এবং স্কুল উপদেষ্টারা ছাত্রদের পছন্দ বেছে নিতে সাহায্য করতে পারেন। অনেক স্কুলেই নেচার ক্লাব, সাংস্কৃতিক ক্লাব, ট্রেকিং গ্রুপ, স্কাউট, স্কুল ম্যাগাজিন, সম্পাদকীয় বোর্ড, স্পোর্টস টিম এবং ডিবেটিং সার্কেল জাতীয় একাধিক পাঠ্যক্রম বহির্ভূত কার্যকলাপে যুক্ত হওয়ার বিকল্প পাওয়া যায়। শিক্ষার্থীর নিজের পচ্ছন্দ অনুযায়ী যে কোনও একটিতে বা একাধিকে যুক্ত হয়ে নিজের প্রতিভা বৃদ্ধি করা উচিত।

    ক্রীড়াক্ষেত্রে প্রতিভা

    যাঁদের ক্রীড়াক্ষেত্রে প্রতিভা রয়েছে এবং খেলাধুলায় পারদর্শী তাঁরা ন্যাশনাল কলেজিয়েট অ্যাথলেটিক অ্যাসোসিয়েশন (NCCA), ন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্টারকলেজিয়েট অ্যাথলেটিকস (NAIA) বা ন্যাশনাল জুনিয়র কলেজ অ্যাথলেটিক অ্যাসোসিয়েশন (NJCAA)-এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে গিয়ে স্পোর্টস এবং কোচ খুঁজে নিতে পারেন। ক্রীড়াক্ষেত্রে ছাত্রদের সাহায্য করতে পারে এমন বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকা পাওয়া যায় এই ওয়েবসাইটগুলিতে। স্পোর্টসে প্রতিভার উপর ভিত্তি করে অনেক বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রছাত্রীদের স্কলারশিপ প্রদান করে। যাঁদের খেলাধুলায় মনোযোগ রয়েছে তাঁদের ক্লাস ৮ থেকেই ভবিষ্যতে কীভাবে এই প্রতিভাবে আরও উন্নত করা যায় সেই বিষয়ে চিন্তাভাবনা শুরু করা উচিত।

    কমিউনিটির সঙ্গে যোগাযোগ

    হাইস্কুলের গণ্ডির বাইরেও বিভিন্ন পাঠ্যক্রম বহির্ভূত কার্যকলাপে অংশগ্রহণ করা উচিত। পড়ুয়ারা তাঁদের বাড়ির আশেপাশের স্পোর্টস ক্লাবে যোগদান করতে পারে, পারফরর্মিং আর্টস বা নতুন একটি ভাষা শেখার ক্লাস শুরু করতে পারেন। ছাত্ররা অন্যদের টিউশন দেওয়ার মাধ্যমেও নিজের প্রতিভায় শান দিতে পারেন। এছাড়া ক্লিন-আপ ড্রাইভ বা প্রবীণদের সাহায্যমূলক স্বেচ্ছাসেবী কার্যকলাপে অংশগ্রহণ করা উচিত। এই কার্যকলাপের মাধ্যমে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলি ছাত্রদের সামজিক দায়িত্ববোধ বিচার করে।

    প্রতিভায় উন্নতি

    গ্রীষ্মকালীন অবকাশ বা সাপ্তাহিক ছুটির দিনগুলোতে ছাত্রছাত্রীরা নিজেদের স্কিল বৃদ্ধি করতে পারেন বা নতুন কোনও বিষয় শিখতে পারেন। একাধিক মার্কিন এবং ভারতীয় লিবারাল আর্টস বিশ্ববিদ্যালয়গুলো ২-৩ সপ্তাহের উচ্চ মানের গ্রীষ্মকালীন কোর্সের সুবিধা প্রদান করে। অবসরের সময় শিক্ষার্থীরা বাড়িতে বসেই একটি নতুন স্কিল শিখতে পারেন। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য আবেদন করার সময় ফর্মে এই প্রতিভাগুলো উল্লেখ করা যেতে পারে। যদি কোনও আবেদনকারীর ছবি আঁকা, গান বা নাচে প্রতিভা থাকে তবে আবেদনের সময় পোর্টফোলিওর একটি লিঙ্ক দেওয়া যেতে পারে।

    Published by:Raima Chakraborty
    First published:

    Tags: Education, USA

    পরবর্তী খবর