Home /News /education-career /
Bratya Basu|| 'মুসলিম শব্দটি না বললেই হত, হয়তো আবেগপ্রবণ হয়ে বলেছেন', মহুয়া দাস বিতর্কে মন্তব্য শিক্ষামন্ত্রীর

Bratya Basu|| 'মুসলিম শব্দটি না বললেই হত, হয়তো আবেগপ্রবণ হয়ে বলেছেন', মহুয়া দাস বিতর্কে মন্তব্য শিক্ষামন্ত্রীর

Bratya Basu on Mahua Das: পরীক্ষার্থীর ধর্ম পরিচয় তুলে ধরা নয়, আবেগের বসে মুখ থেকে বেরিয়ে গিয়েছে। মেধাতালিকা প্রকাশের পর থেকে তাঁর বক্তব্য ঘিরে যে শোরগোল পড়েছে, তার পরিপ্রেক্ষিতে বললেন ব্রাত্য বসু।

  • Share this:

    #কলকাতা: পরীক্ষার্থীর ধর্ম পরিচয় তুলে ধরা নয়, আবেগের বসে মুখ থেকে বেরিয়ে গিয়েছে। মেধাতালিকা প্রকাশের পর থেকে তাঁর বক্তব্য ঘিরে যে শোরগোল পড়েছে, তার পরিপ্রেক্ষিতে এমনটাই জানিয়েছেন উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের সভানেত্রী মহুয়া দাস (Mahua Das)। এ প্রসঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু (Bratya Basu) শুক্রবার নিউজ ১৮ বাংলাকে বলেন, 'মুসলিম শব্দটি না বললেই ভাল হত। উনি হয়তো এটা আবেগপ্রবণ হয়ে বলে ফেলেছেন। মনে রাখতে হবে এই প্রথম উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের ইতিহাসে একজন সংখ্যালঘু মহিলা বা মেয়ে প্রথম হয়েছেন। এটা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারের কৃতিত্বের জায়গা। সংসদ সভাপতিও একজন মহিলা। তাই তিনি হয়ত সেই মহিলা সম্পর্কে বলতে গিয়ে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েছিলেন।'

    গতকাল ফলাফল প্রকাশের সময় মহুয়া দাস উচ্চ মাধ্যমিকের সর্বোচ্চ নম্বর প্রাপক রুমানা সুলতানার ব্যাপারে বলেছিলেন, 'যিনি সর্বোচ্চ নম্বর পেয়েছেন, একা। সর্বোচ্চ নম্বর এককভাবে পেয়েছেন একজন মুসলিম কন্যা। মুসলিম। মুর্শিদাবাদ জেলা থেকে একজন মুসলিম লেডি, গার্ল। তিনি এককভাবে ৪৯৯ সর্বোচ্চ নম্বর পেয়েছেন।' ফলাফল প্রকাশের সময় তাঁর এই বক্তব্যের পর থেকেই শুরু হয় জলঘোলা।

    এরপরে সংসদ সভানেত্রী নিজের অবস্থান স্পষ্টও করে বলেন, 'মেয়েটি শিক্ষার রত্ন, গতকাল আবেগের বশে বলেছি। ওঁর কথা বলার সময় বেগম রোকেয়ার কথা মনে করছিলাম, যিনি এরকম একইভাবে লেখাপড়ায় ভালো ছিলেন, অতি সাধারণ জায়গা থেকে উঠে এসেছিলেন। তাই সকলের সুবিধার জন্য তথ্য হিসেবে বিষয়টা উল্লেখ করেছিলাম।'

    উল্লেখ্য, মহুয়া দাসের আচরণ নিয়ে সরগরম শিক্ষামহল। শুক্রবার দুপুরে সল্টলেকে শিক্ষা সংসদের দফতরের বাইরে বিক্ষোভ দেখান শিক্ষক ঐক্য মুক্ত মঞ্চের সদস্যরা। মহুয়ার পদত্যাগের দাবি তোলেন তাঁরা।

    সোমরাজ বন্দ্যোপাধ্যায় 

    Published by:Shubhagata Dey
    First published:

    Tags: Bratya Basu

    পরবর্তী খবর