Home /News /crime /
কাঠুয়া ধর্ষণ: ৮ বছরের বাচ্চাকে আটকে রেখে ৭ দিন ধরে গণধর্ষণ-খুন, অবশেষে সোচ্চার সোশ্যাল মিডিয়া

কাঠুয়া ধর্ষণ: ৮ বছরের বাচ্চাকে আটকে রেখে ৭ দিন ধরে গণধর্ষণ-খুন, অবশেষে সোচ্চার সোশ্যাল মিডিয়া

Representative Image

Representative Image

কাঠুয়া ধর্ষণ: ৮ বছরের বাচ্চাকে আটকে রেখে ৭ ধরে গণধর্ষণ-খুন, অবশেষে সোচ্চার সোশ্যাল মিডিয়া

  • Share this:

    #শ্রীনগর: আট বছরের বালিকাকে সাতদিন আটকে রেখে লাগাতার গণধর্ষণ। তারপর নির্মমভাবে খুন। পুলিশের চার্জশিটের পর তিন মাস আগের জম্মুর হাড়হিম ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই দেশজুড়ে তোলপাড়। সোশ্যাল মিডিয়াতেও প্রতিবাদে বিস্ফোরক সেলিব্রিটিরা। এমন নৃশংস ঘটনাতেও পুরোদমে চলছে রাজনীতি। চাপের মুখে ফাস্ট ট্র্যাক কোর্টে বিচারের আশ্বাস দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি। নির্ভয়াকাণ্ডের মতোই শুরু হয়েছে নাগরিক-প্রতিবাদের প্রস্তুতি।

    বয়স মাত্র আট। ফুটফুটে মেয়েটি আদরের ঘোড়াটিকে চরাতে চরাতে চলে গিয়েছিল বাড়ির অদূরে বনের ধারে। তারপর সাতদিন কোনও খোঁজ নেই। সাতদিন পর বনের পথেই উদ্ধার হল তার ক্ষতবিক্ষত মৃতদেহ। ১৭ জানুয়ারি দেহ উদ্ধারের তিন মাস পর আদালতে চার্জশিট দাখিল করে পুলিশ।

    চার্জশিটে পুলিশি তদন্তের যে ছবি উঠে এসেছে তা হাড়হিম করা বললেও কম। দেবস্থানে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে আটক অবসন্ন মেয়েটিকে সাতদিন ধরে ধর্ষণ করে ছ-জন। এদের মধ্যে দুজন পুলিশকর্মী। এমনকি মীরাট থেকেও লালসা মেটাতে ডেকে নিয়ে যায় ঘটনার মূলচক্রী দেবস্থানের কেয়ারটেকার। ক্ষুধার্ত, মৃতপ্রায় মেয়েটিকে খুনের আগেও রেয়াত করা হয়নি। গলায় ফাঁস দিয়ে মারার আগেও তাকে শেষবারের মতো ধর্ষণ করে এক পুলিশ কর্মী। তারপর মুখ-মাথা পাথর দিয়ে থেঁতলে মারা হয় মেয়েটিকে। দেহ ফেলে দেওয়া হয় বনের পথে।

    এই ঘটনায় দেবস্থানের কেয়ারটেকার প্রাক্তন সরকারি কর্মী সহ আটজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ধৃতদের মধ্যে কেয়ারটেকারের ছেলে এবং নাবালক ভাইপোও রয়েছে। ঘটনা ধামাচাপা দিতে স্থানীয় দুই পুলিশ অফিসারকে চার লক্ষ টাকা ঘুষও দিয়েছিল কেয়ারটেকার।

    নৃশংস ঘটনার প্রতিবাদে আগেই গর্জে উঠেছে উপত্যকা। তবে উল্টো প্রতিবাদও চলছে সমানতালে। ধৃতদের সমর্থনে মুখ খুলেছেন রাজ্যের দুই বিজেপি মন্ত্রী। পুলিশের তদন্ত, চার্জশিটের বিরোধিতায় সড়ক, রেল অবরোধও হয়েছে। চার্জশিট পেশের বিরোধিতা করেন জম্মু বার অ্যাসোসিয়েশনের আইনজীবীদের একাংশও। চাপে পড়ে ফাস্ট ট্র্যাক কোর্টে বিচার করে দোষীদের দ্রুত শাস্তির প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি।

    আট বছরের ছোট্ট মেয়ের ওপর এমন নির্মম অত্যাচারের প্রতিবাদে সোশ্যাল মিডিয়ায় কার্যত বিস্ফোরণ। জাভেদ আখতার, ফারহান আখতার, রেণুকা সাহানে, রীতেশ দেশমুখ, অভিষেক বচ্চন, সোনম কাপুর, সিমি গেরওয়াল, গৌতম গম্ভীরের মতো সেলিব্রিটিরা সরব হয়েছেন। উন্নাও এবং কাঠুয়ার গণধর্ষণের প্রতিবাদে গর্জে ওঠারই আহ্বান জানিয়েছেন তারা। প্রতিবাদীদের প্রশ্ন, নির্ভয়াকাণ্ডের পর কঠোর আইন হয়েছে। কিন্তু তারপরও এমন নৃশংশ ঘটনা কীভাবে ঘটছে? তাদের দাবি, মানবতাই আজ প্রশ্নের মুখে। রাষ্ট্র চুপ করে থাকতে পারে না। শুরু হয়েছে নির্ভয়াকাণ্ডের মতোই নাগরিক-প্রতিবাদের প্রস্তুতি।

    প্রতিবাদে সরব হয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধিও। কাঠুয়ার ঘটনাকে মানবতা বিরোধী অপরাধ বলেই চিহ্নিত করেছেন তিনি। তাঁর দাবি, দোষীরা যেন কোনওভাবেই ছাড়া না পায়।

    First published:

    Tags: 8 Years old murder, Kathua, Kathua Rape-Murder Case, Social Media Outrages

    পরবর্তী খবর