• Home
  • »
  • News
  • »
  • crime
  • »
  • ব্যাগে ভ্রুণ নিয়ে বিচার চাইতে পুলিশ সুপারের অফিসে ধর্ষিতা

ব্যাগে ভ্রুণ নিয়ে বিচার চাইতে পুলিশ সুপারের অফিসে ধর্ষিতা

Representational Image

Representational Image

ছুরি দেখিয়ে সাত মাস আগে ধর্ষণ করা হয়েছিল দশম শ্রেণির ছাত্রীকে ৷ এরপর একাধিকবার তাকে ধর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ জানিয়েছেন নির্যাতিতা ৷

  • Share this:

    #সাতনা: ছুরি দেখিয়ে সাত মাস আগে ধর্ষণ করা হয়েছিল দশম শ্রেণির ছাত্রীকে ৷ এরপর একাধিকবার তাকে ধর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ জানিয়েছেন নির্যাতিতা ৷ কিন্তু স্থানীয় পুলিশকে অভিযোগ জানালেও তারা কোনও পদক্ষেপই নেয়নি বলে অভিযোগ ৷ এরপর অসহ্য পেটের যন্ত্রণায় ভুগতে থাকায় নির্যাতিতা বুঝতে পারে যে সে গর্ভবতী ৷

    বুধবার মায়ের সঙ্গে অটো করে হাসপাতালের দিকে রওনা দেয় নির্যাতিতা ৷ কিন্তু পথেই তাদের আটকায় অভিযুক্ত ও তার শাগরেদরা। এরপর তাকে এক চিকিৎসকের বাড়িতে নিয়ে গিয়ে জোর করে গর্ভপাত করানো হয়।

    নির্যাতিতা জানান, ‘চিকিৎসক ভ্রুণটা একটি ব্যাগের মধ্যে ঢুকিয়ে আমাকে দিয়ে নর্দমায় ফেলে দিতে বলে ৷’ অটো ভাড়ার জন্য ২০ টাকাও দেওয়া হয় ৷ পাশাপাশি কাউকে কিছু জানালে তাকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকিও দেওয়া হয় বলে অভিযোগ।

    প্রতিদিনের এই অত্যাচার থেকে বাঁচার আর কোনও উপায় নেই দেখে এসপির-অফিসে গিয়ে অভিযোগ দায়ের করেন কিশোরী ৷ পুলিশ সুপার জানান সেই সময় তিনি অফিসে ছিলেন না ৷ তবে অভিযুক্তর বিরুদ্ধে মামলা রুজু করা হয়েছে।

    First published: