Home /News /crime /
জাদুঘরে তখন হাড়হিম বিপদ, AK-47 হাতে ঘুরছেন সেই জওয়ান, সেই রাতে ঠিক কী ঘটেছিল?

জাদুঘরে তখন হাড়হিম বিপদ, AK-47 হাতে ঘুরছেন সেই জওয়ান, সেই রাতে ঠিক কী ঘটেছিল?

Kolkata Museum shootout: দর্শনার্থীরা আতঙ্কিত হয়ে দিশাহীন ভাবে ছোটাছুটি করলে বিপদ বাড়তে পারে। সেই কথা চিন্তা করে নিজেদের অনেকটা সংযত রেখে কীভাবে নিরাপদে দর্শনার্থীদের বের করা যায় সেই দিকেই তাঁরা জোর দিয়েছিলেন।

  • Share this:

#কলকাতা: তখনও পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায়নি জাদুঘরের দরজা। দর্শনার্থীদের অনেকেই তখন শেষবারের মতো চোখ বুলিয়ে নিচ্ছেন। সেই সময়ে আচমকা গুলির আওয়াজ। একটা, দুটো করে একের পর এক আওয়াজ। কর্মীদের কাছে খবর চলে আসে। এক জওয়ান এলোপাথাড়ি গুলি বর্ষণ করে চলেছেন। দর্শনার্থীরা কিছু বুঝে ওঠার আগেই তৎপর হয়ে উঠেছিলেন জাদুঘরের কর্মী তথা নিজস্ব নিরাপত্তারক্ষীরা। দর্শনার্থীরা আতঙ্কিত হয়ে দিশাহীন ভাবে ছোটাছুটি করলে বিপদ বাড়তে পারে। সেই কথা চিন্তা করে নিজেদের অনেকটা সংযত রেখে কীভাবে নিরাপদে দর্শনার্থীদের বের করা যায় সেই দিকেই তাঁরা জোর দিয়েছিলেন। দ্রুত এবং ঠান্ডা মাথায় সেই কাজ করেছিলেন কর্মীরা। অবশেষে এক এক করে সব দর্শনার্থীদের বের করতে সক্ষম হন এই কর্মীরা।

যদিও এই কাজে তাঁদের জীবনেরও ঝুঁকি কম ছিল না। তবে প্রাণ ভয়ে তাঁরা নিজেরা পালিয়ে না গিয়ে দর্শনার্থীদের জীবনের গুরুত্ব দিয়েছিলেন। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কর্মীরা এই কাজ না করলে আরও অনেক বড় বিপদ ঘটতে পারত। এই কথাগুলো এক নিশ্বাসে বলে চলছিলেন জাদুঘরে কর্মচারী সমিতির সম্পাদক অশোক ত্রিপাঠি। ঘটনার কিছুক্ষণের মধ্যেই জাদুঘরে এসে উপস্থিত হন তিনি।

আরও পড়ুন: দেশের মানুষ ফিরে তাকায়নি, বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুকে দত্তক নিল কানাডার দম্পতি

অশোক ত্রিপাঠি বলেন, "আমাদের কর্মীরা অনেক বড় বিপদ হওয়ার হাত থেকে রক্ষা করেছেন নিজেদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে। কিন্তু এখন প্রশ্ন হচ্ছে আমাদের কর্মীদের নিরাপত্তার গ্যারান্টি কে দেবে৷ আমাদের কর্মীরা ভিতরেই কাজ করেন। তাঁদের কারও গায়ে তো গুলি এসে লাগতে পারত। ভবিষ্যতে এরকম ঘটনা ঘটবে না সে কথাই বা কে বলতে পারে। আমরা কর্তৃপক্ষের কাছে সেই আশ্বাসটাই চাইছি। কর্তৃপক্ষ কী ব্যবস্থা নেবে সেটা আমরা জানতে চাইছি। এখানে যারা কাজ করতে আসে তাঁরা আতঙ্কিত। তাঁদের পরিবারের লোকও ভয় পেয়ে গিয়েছে। এমন অবস্থায় কর্তৃপক্ষের কিছু করা উচিত যাতে আত্মবিশ্বাস নিয়ে কর্মীরা ফের কাজে যোগ দিতে পারে।"

UJJAL ROY

Published by:Shubhagata Dey
First published:

Tags: Indian Museum

পরবর্তী খবর