বউয়ের প্রেমিককে একসঙ্গে খুন করল খোদ বর-বউ, তারপর...

বউয়ের প্রেমিককে একসঙ্গে খুন করল খোদ বর-বউ, তারপর...

যুবক খুনের ঘটনায় উত্তপ্ত পুরাতন মালদহ, "খুন" করে সটান থানায় হাজির অভিযুক্ত দম্পতি।

যুবক খুনের ঘটনায় উত্তপ্ত পুরাতন মালদহ, "খুন" করে সটান থানায় হাজির অভিযুক্ত দম্পতি।

  • Share this:

#মালদহ:  বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্কের জেরে "খুন" যুবক। যুবককে খুন করে থানায় আত্মসমর্পণ দম্পতির। পাল্টা অভিযুক্তদের বাড়ি ভাঙচুর, আগুন মৃতের পরিবারের লোকজন ও আত্মীয়দের। রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ। পুলিশের গাড়িতেও ভাঙচুর। মালদহ থানার রসিলাদহ বাগানপাড়া এলাকার ঘটনা। মৃত লক্ষণ ঘোষ(৪০)। শ্বাসরোধ করে খুনের অভিযোগ। আত্মসমর্পণকারী দম্পতির কাছে খবর জেনে মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা দেখা যায় । উত্তেজনা থাকায় বসানো হয়েছে' পুলিশ পিকেট।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে , আত্মসমর্পনকারী মহিলার সঙ্গে বিবাহ বর্হিভূত সম্পর্কে জড়িয়ে ছিলেন লক্ষ্মন ঘোষ । ওই বাড়িতে তাঁর প্রায় যাতায়াত ছিল । রবিবার রাতভর এলাকায় বাউল মেলাও চলছিল । বেশির ভাগ বাড়ির লোকজন বাউল মেলায় গিয়েছিলেন । এরই মধ্যে গভীর রাতে ওই বাড়িতে দম্পতির সঙ্গে নিহত লক্ষ্মনের বচসা হয় । এরপরেই শ্বাসরোধ করে খুন করা হয় বলে অনুমান । তবে ভোর রাতে এলাকার লোকজন বাড়ি ফিরলেও কেউই খুনের বিষয় আন্দাজ করতে পারেন নি ।  সোমবার সকাল ছয়টা নাগাদ মালদহ থানায় গিয়ে হাজির হন দম্পতি । সেখানে তারাই খুনের কথা জানান পুলিশকে । এরপর ঘটনাস্থলে তদন্তে এসে বাড়ির উঠোনে লক্ষ্মন ঘোষের দেহ পায় পুলিশ । এরপর মৃতদেহ উদ্ধার করে  ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়ে দেওয়া হয় মালদহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে । খুনের ঘটনা চাউর হতেই অভিযুক্ত দম্পত্তির বাড়ি এবং আশপাশের কয়েকজন আত্মীয়ের বাড়িতে ব্যাপক ভাঙচুর করে আগুন জ্বালিয়ে দেন মৃতের পক্ষের লোকজন । খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছয় দমকল ও পুলিশ । দমকল গিয়ে আগুন নেভায় । পুলিশ পৌছানোর আগেই ভাঙচুর চালিয়ে এলাকা ছাড়ে মৃতের পক্ষের লোকজন । তবে পরিবারের লোককে না জানিয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়ায় পুলিশের বিরুদ্ধেও সরব হন মৃতের আত্মীয়রা । রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখানোর পাশাপাশি পুলিশের একটি গাড়িতে ভাঙচুর চালানো হয় ।

মালদার পুলিশ সুপার  অলোক রাজোরিয়া জানিয়েছেন, খুনের ঘটনায় দম্পতিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অভিযুক্তদের বাড়িতে ভাঙচুর এবং পুলিশের গাড়িতে হামলা করায় পৃথক মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু করা হয়েছে।

Sebak DebSarma

Published by:Debalina Datta
First published: